Monday, 24 September 2018

ওয়েব ডেস্ক  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮  বিদ্যজনেদের একাংশ এ বিষয়ে অনেক বারই সন্দেহ প্রকাশ করেছে , যে কেন্দ্র সরকারের   প্রচ্ছন্ন মদত না থাকলে বিজয়  মাল্য , মেহুল চোকসিরা দেশের অর্থ এই ভাবে  লুন্ঠন করে পালাতে পারতনা ,এবার নব তম সংযোজন ভদোদরার স্টারলিং বায়োটেকের কর্ণধার  নিতিন সন্দেসরা । তাকে এখন হন্যে হয়ে খুজ্যে ইডি ।


থমে শোনা গিয়েছিল দুবাইয়ে তাঁকে আটক করা হয়েছে। এখন শোনা যাচ্ছে আরব আমিরশাহির কোথাও নাকি তাঁর সন্ধান মেলেনি। মনে করা হচ্ছে নাইজেরিয়ায় পালিয়ে গিয়েছেন অভিযুক্ত ব্যবসায়ী। সিবিআই এবং ইডি সূত্রে খবর নিতিন সন্দেসরা শুধু একা নন পরিবারের সকলকে নিয়ে নাইজেরিয়ায় পালিয়ে গিয়েছে। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন ভাই চেতন সন্দেসরা এবং ভাইবউ দীপ্তিবেন সন্দেসরাও। নাইজেরিয়ার সঙ্গে ভারত সরকারের অপরাধী প্রত্যর্পণ নিয়ে এর আগে কোনও চুক্তি হয়নি। তাই তাঁদের ফেরাতে বেগ পেতে হবে বলে মনে করা হচ্ছে। এমনকী তাঁর বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করার জন্য ইন্টারপোলের কাছেও আবেদন জানাতে চলেছে ইডি। তবে ভারতের পাসপোর্ট নিয়েই সন্দেসরা নাইজেরিয়া গিয়েছেন কিনা সেসম্পর্কে এখনও নিশ্চিত নন।
ভারতে এবং বিদেশে ৩৫টি ভুয়ো কোম্পানির নাম দেখিয়ে একাধিক ব্যাঙ্ক থেকে ৫০০০ কোটি টাকা লোন নিয়েছিলেন নীতীন সন্দেসরা। বিদ্যজনেদের একাংশের দাবি ,এতো সব কিছু  ঘটে গেল , আর কেন্দ্রীয় সরকার কিছুই জানতেননা ? এতো নীরব মোদী মেহুল চোকসিডের পুনরাবৃত্তি । এভাবে আর কতদিন ? মানুষ এর প্রতিফলন ভোটবাক্সে দেবেই বলে মনে করেন তারা ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল"
ওয়েব ডেস্ক  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ :তেলের দাম যখন সেঞ্চুরির দৌড় গোড়ায় সেই সময় দ্রুতগতিতে সেনসেক্স পড়তে শুরু করল ।সঙ্গত কারণেই প্রশ্ন মানুষের মনে , তাহলে ৫৬ ইঞ্চের ছাতি দিল্লির মসনদে বসে কি সুরাহা হল ?সোমবার দুপুরে সেনসেক্স সূচক ৫৪৬.‌৩৪ পয়েন্ট বা ১.‌৪৮ শতাংশ নেমে দাঁড়ায় ৩৬২৯৫.‌২৬ পয়েন্টে। নিফটির সূচক ১৭৫.‌৫৫ পয়েন্ট বা ১.‌৫৮ শতাংশ নেমে দাঁড়ায় ১০৯৬৭.‌৫৫ পয়েন্টে।

 শেয়ার সূচক পড়তেই মাথায় হাত পড়ে যায় বিনিয়োগকারীদের। বাজার বিশেষজ্ঞদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়লেও দ্রুত অবস্থা পরিবর্তনের আশ্বাস দিয়েছে সরকার।এদিন বাজারে ধস নামার ফলে ইকুইটি পড়লেও কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি লগ্নিকারীদের আশ্বাস দিয়েছেন নন ব্যাঙ্কিং ফিনান্স কোম্পানি বা এনবিএফসি–র জন্য পর্যাপ্ত লিকুইডিটির ব্যবস্থা করবে সরকার।ইরানে অপরিশোধিত তেল রপ্তানিতে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা জারি থাকায় বিশ্ববাজারে ব্যারেল প্রতি তেলের দাম হয়েছে ১০০ মার্কিন ডলার। তার জেরে দেশেও এদিন তেলের দাম বেড়েছে ২ শতাংশ। ব্রেন্ট অপরিশোধিত তেলের দাম ১.‌৪৫ শতংশ উঠে ব্যারেল প্রতি হয়েছে ৭৯.‌৯২ মার্কিন ডলার। ইউএস ডব্লুটিআই ১.‌৩১ শতাংশ উঠে ব্যারেল প্রতি হয়েছে ৭১.‌৭১ মার্কিন ডলার। এদিনও ডলারের তুলনায় টাকার দাম পড়েছে।বিদ্যজনেদের একাংশের দাবি এই সময় মোদীজির উচিত তেলের ওপর থেকে সেস কমানো তাহলে আর তেলের দাম বাড়াতে হয়না ।অর্থ মন্ত্রী কি সেই পথেই হাঁটবেন ? সময়ই বলবে ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল"
ওয়েব ডেস্ক  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ :রাবনের সম্বন্ধ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়ে সংসদ সুব্রামানিয়াম স্বামী ঝড় তুললেন ৷সোশ্যাল মিডিয়ায় এর প্রতিক্রিয়াও তীব্র থেকে তীব্রতর হয় ৷ প্রসঙ্গত গোয়ার ‘ভারতীয় সভ্যতা ও তার গুরুত্ব’ শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানে বক্তিতা দিতে গিয়ে তিনি বলেন রাবন জাতে ব্রাম্মণ ছিলেন দ্রাবিড় নন , তার বক্তিতার মূল উদেশ্য ছিল উত্তর ভারত বনাম দক্ষিণ ভারতের মধ্যে সৃষ্টি হওয়া ভেদা ভেদ দূর করা , সেটা করতে গিয়ে এই বিতর্কিত এবং কিছু মানুষের কাছে হাস্যকর এই মন্তব্যটি করে বসেন তিনি  ৷

সঙ্গে তিনি এও বলেন বৃটিশরা ভারতের ইতিহাস কি লিখেছে তার ওপর কর্নপাত না করতে , যা আগুনে ঘি দেওয়ার মতো ঘটনা  ৷স্বামী এদিন বলেন, ‘‘রামকে দক্ষিণ ভারতের মানুষ ঘৃণা করে৷ কারণ সে উত্তর ভারত থেকে লঙ্কায় এসে রাবণকে হত্যা করে৷ রাবণ যাকে জাতিতে দ্রাবিড় বলা হয়৷ কিন্তু রাবণ লঙ্কায় জন্মাননি৷ তিনি দিল্লির নয়ডার কাছে একটি গ্রামে জন্মেছিলেন৷ যে গ্রামের নাম বিসরাখ৷ এখনও সেই গ্রামের অস্তিত্ব আছে৷ সেই গ্রামে বিলবোর্ডও ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে৷’’ তার স্বপক্ষে তিনি যুক্তিও সাজিয়েছিলেন, কিন্তু বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত সেই যুক্তি বুমেরাং হয়ে তার কাছেই ফিরে এসেছে ৷তিনি  শুধু মাত্র নিজের  ভাবমূর্তির সাথেই  তিনি ছেলে খেলা করেননি , বিজেপি দলকেও অসস্তির মধ্যে ফেলেছেন ৷


তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "কলকাতা ২৪*৭ "

Sunday, 23 September 2018

ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ :সন্দেহটা অনেক আগেই ছিল , এবার রাজ্যের মন্ত্রীর মুখ থেকেই সেই একই কথা বেরোল। বিদ্যজনেদের একাংশ অনেক আগে থেকেই বলে আসছিলেন ইসলামপুরের ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত ছাড়া হতেই পারেনা , এবার সেই কথায় পার্থ চট্টোপাধ্যায় বললেন । সঙ্গে তিনি এও যোগ করেছেন  ‘‌পুলিসের কেউ দোষী প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই ঘটনায় ডিআইয়ের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন আছে। তাঁকে ইতিমধ্যেই সাসপেন্ড করা হয়েছে। বিভাগীয় তদন্ত চলছে। সেখানে তিনি দোষী প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ শাস্তি পেতে হবে তাঁকে।’‌নদিয়ার কৃষ্ণনগরে একটি দলীয় অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী।


সেখানে তিনি বলেন, ‌‘‌যে ছাত্ররা শিক্ষক চাইছে তারা কি এভাবে বিদ্যালয় ধ্বংস করতে পারে?‌ ক্লাসরুম, টেবিল, চেয়ার, কম্পিউটার সব কিছু ভেঙে দেওয়া হয়েছে। সব কিছু দেখে মনে হচ্ছে এই ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত। এর পেছনে গভীর পরিকল্পনা আছে।’‌ এদিন রাতে কলকাতায় ফিরে নাকতলায় নিজের বাড়িতে রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ পার্থ সাংবাদিক বৈঠক করেন। তিনি বলেন, ‘‌রবিবার দুপুর দেড়টায় তৃণমূল ভবনে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। মন্ত্রীরা থাকবেন। এছাড়া পর্যবেক্ষকদেরও ডাকা হয়েছে। ইসলামপুর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।’‌ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে পার্থর কথা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘‌ছাত্ররা কখনই নিজেদের স্কুল ভাঙচুর করতে পারে না। বন্‌ধ নিয়ে বিজেপি দিবাস্বপ্ন দেখছে। বাংলাকে ওরা মৃত্যুপুরী করতে চায়। আরএসএস ও বিজেপি সুপরিকল্পিতভাবে ইসলামপুরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’‌ দুই ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনা সম্পর্কে পার্থ বলেন, ‘‌এদের অকালে চলে যাওয়ার দায়িত্ব নিতে হবে আরএসএস ও বিজেপি–কে। পুলিসের গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন।’‌ তিনি বলেন, ‘‌আরএসএস বিজেপি–কে বাঁচানোর চেষ্টা করছে। অন্যদিকে, আরএসএসের নামও পাওয়া গেছে। বিদ্যজনেদের একাংশের মন্তব্য খুব পাকা মাথার বুদ্ধি না হলে এরকম কাজ করা যায়না ।আর যারা ওখানে গোলমাল পাকাতে এসেছিল , তারা যদি সত্যি তারা স্কুল ছাত্র হতো তাহলে মুখে গামছা দিয়ে আসতোনা ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল"
ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : কোনটা সত্যি বা কোনটা মিথ্যে সেটা সময়ই বলবে । তবে পাকিস্তানের সাথে বৈঠকে না বসার কারণ যেটা পাকিস্তানের তরফ থেকে ব্যাখ্যা করা হয়েছে সেটা রীতি মতো চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে ভারতীয় রাজনীতিতে ।রাফাল দুর্নীতি থেকে দেশবাসীর নজর ঘোরাতেই পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক বাতিল করেছেন মোদি। শনিবার টুইট করে একথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফওয়াদ হুসেন।

টুইটে তিনি লিখেছেন, যুদ্ধের প্রবণতা এড়াতে শান্তি আলোচনায় বসার প্রস্তাব দিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু মোদি যা করলেন তাতে মনে হয়েছে, রাফাল দুর্নীতি থেকে ভারতীয়দের নজর ঘোরানোর চেষ্টা করছেন তিনি।টুইটটি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে শেয়ার করেছেন পাক তথ্যমন্ত্রী। কারণ মোদির পাকিস্তানের সঙ্গে বৈঠক বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরেই রাহুল গান্ধী তাঁকে আক্রমণ করে বলেছিলেন। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছেন মোদি।  এমনকী শহিদদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন তিনি। যদিও বিজেপির তরফে পাকিস্তানের এই দাবি উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অমিত শাহ পাল্টা টুইট করে বলেছেন পাকিস্তান এখন রাহুল গান্ধীর সুরে কথা বলছে। তাহলে কী কংগ্রেস মোদিকে হঠাতে আন্তর্জাতিক মহাজোট তৈরি করছে।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল"
ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : মাত্র দুমাস আগেই বিশ্ব-খ্যাত  বাংলার কন্যাশ্রীতে রাজ্যে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করার পর ,এইবার প্রধান মন্ত্রী আবাস যোজনায় দেশের শীর্ষ স্থানের শিরোপা পেল মুর্শিদাবাদ জেলা।"তৃণমূল সরকার উন্নয়নের কাজে বিশ্বাসী" এই কথাটি শুধুমাত্র কথায় নয় বিভিন্ন সময়ে প্রকৃত উন্নয়নের মধ্যদিয়ে বিরোধীদের নানান কুৎসা আর অপপ্রচারের জবাব দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী। পিছিয়ে পড়া মুর্শিদাবাদ যে এইবার উন্নয়নে বাংলার মুখ হয়ে উঠতে চলেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা ।

 ২০১৮-২০১৯ আর্থিক বর্ষে জেলার ৪৫৩০১ টি গৃহ নির্মানের লক্ষমাত্রার মধ্যে ৪৫২১৭ টি বাড়ি তৈরীর কাজ  ইতিমধ্যে সম্পূর্ণ সম্পন্ন করেছে মুর্শিদাবাদ জেলা । এই কারণে কেন্দ্রীয় গ্রামীণ উন্নয়ন মন্ত্রক পুরস্কৃত করেছে মুর্শিদাবাদকে। কয়েক দিন আগে দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে মুর্শিদাবাদের অতিরিক্ত জেলা শাসকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন গ্রাম উন্নয়ন দপ্তরের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নরেন্দ্র শিং তোমর ।  রাজ্যগত ভাবে পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় হলেও , জেলার ভিত্তিতে মুর্শিদাবাদ দেশের মধ্যে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে এনেছে, তার মধ্যে বেলডাঙা ১ ও ২ নম্বর ব্লক এবং বহরমপুর অনেক খানি এগিয়ে রয়েছে । কেন্দ্রীয় উন্নয়ন মন্ত্রক এই মানের বিচার করে থাকে সাধারণত ৫ টি ক্যাটাগরিতে। যেমন -আবাস যোজনার সার্বিক কাজের মান, বাড়ি তৈরির সংখ্যা ,রাজমিস্ত্রিদের প্রশিক্ষন, প্রকল্প ও যোজনার সমন্বয় সাধন এবং যোজনা ও উপভোক্তাদের আধার সংযুক্তিকরণ । আর্থিক বৎসরের মধ্যবর্তী সময়ে লক্ষমাত্রা পূরণের গতি স্থিমিত হয়ে পড়লেও ,শেষ পর্যন্ত বর্তমানে সম্ভবকে অসম্ভব করে ,দেশের মধ্যে সেরার সেরা হয়ে দেখিয়ে দিয়েছে মুর্শিদাবাদ জেলা প্রশাসন। প্রতি মাসে উপভোক্তাদের বাড়ীতে গিয়ে তদারকি,সমস্যা খুঁজে সমাধানের পথ বের করা,ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ ও আলোচনার মধ্যে দিয়ে ,উপভোক্তাদের ঠিকঠাক আর্থিক যোগানের সুব্যবস্থা করা ও বিভিন্ন দুর্নীতি প্রতিরোধ করে কাজকে ত্বরান্বিত  করাই হল এই চূড়ান্ত সাফল্যের চাবিকাঠি, বলে জানান -মুর্শিদাবাদের জেলা শাসক পি. উলগানাথন।




ওয়েব ডেস্ক  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : স্বচ্ছ ভারত অভিযান নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের অভিযান চোখে পড়ার মতন , এই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই , আর যেই জন্য পদক্ষেপটা ভাল , সেই কারণে কুর্নিশ করা ছাড়া অন্য কিছুই ভাবাই যায়না ।  এতঅবধি ব্যাপারটা ঠিকই ছিল , কিন্তু কোন গ্রামে জনসংখ্যা হিসেবে কতগুলো বাথরুমের প্রয়োজন সেটা একবার সমীক্ষা করে দেখা উচিত ছিল বলে করেন বিদ্যজনেদের  একাংশ ।  তাহলে একজন নিরীহ লোকের প্রাণ এই ভাবে যেতোনা  ।


প্রসঙ্গত ৫৯ বছরের ফুলচাঁদ যাদবকে পিটিয়ে খুন করা হল। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার মুম্বইয়ে। জানা গিয়েছে, ফুলচাঁদ শৌচালয়ে ঢোকার পর বেশ অনেকটা সময় তিনি শৌচালয়ের মধ্যেই ছিলেন। এটাই ছিল তার অপরাধ । সূত্রের খবর অনুসারে ওয়াডালার সংগ্রাম নগরে সুলভ শৌচালয়ের অভাব রয়েছে। গ্রামে একটি মাত্র শৌচালয় রয়েছে, যেখানে গ্রামবাসীরা লাইন দিয়ে তাঁদের প্রাত্যহিক কাজ সারেন। নয়তো তাঁদের গ্রাম ছাড়িয়ে কোনও ফাঁকা জায়গায় যেতে হয়। এরকম অবস্থায় ফুলচাঁদ যাদব শৌচালয়ে ঢোকার পর আর বেরতেই চাইছিলেন না। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা শাকির আলি শেখ তাঁকে তৎক্ষণাত শৌচালয় খালি করতে বলে। ফুলচাঁদ শৌচালয় থেকে বেড়নোর পরই তাঁর সঙ্গে শাকির আলির বচসা শুরু হয়। কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দাদের হস্তক্ষেপে সেটা সেই সময়ের মত থেমে যায়। এরপর সকাল সাড়ে ন’‌টা নাগাদ ফুলচাঁদ যখন তাঁর বাড়ি পিরছিলেন, সেই সময় পেছন দিক থেকে এসে শাকির আলি তাঁর ওপর হামলা করে। হামলার চোটে ফুলচাঁদ নর্দমাতে পরে যান। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় তাঁর। পুলিস এই ঘটনায় শাকির আলিকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে মৃতের ছেলে জানিয়েছে, তাঁদের গ্রামে পর্যাপ্ত শৌচালয় না থাকার কারণেই এতবড় ঘটনা ঘটে গেল। এ বিষয়ে প্রশাসনকে বলেও কোনও সুরাহা মেলেনি বলেও দাবি মৃতের ছেলের।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত এই ভাবে কোটি কোটি টাকা স্বচ্ছ ভারত অভিযানে ব্যয় না করে যদি শৌচালয় বানাবার কাজে মন দিত সরকার তাহলে জন সাধারণ উপকৃতই হতেন ।                                                         


তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "
ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন , উনি বলেছিলেন বদলা নয় বদল চাই । আদিত্যনাথের পদবি কোনো বন্দ্যোপাধ্যায় নয় , তাই ভদ্রতা আশা করাটাই ভুল বলে মনে করেন বিদ্যজনেদের একাংশ ।হয়ত সেই জন্যেই ফের শিশু চিকিৎসক কাফিল খানকে গ্রেপ্তার করল যোগীর পুলিস।
গোরখপুর হাসপাতালে শিশুমৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত কাফিল জামিনে মুক্ত ছিলেন। কিন্তু কাফিলকে বেশিদিন মুক্ত রাখতে রাজি ছিল না যোগীর পুলিস। এবার তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে তিনি নাকি জেলা হাসপাতালে রোগীর চিকিৎসায় বাধা দিচ্ছিলেন। একারণে হাসপাতালের অন্য চিকিৎসকদের রোগী দেখায় হস্তক্ষেপ করছিলেন। যদিও কাফিলের দাদা আদিল খানের অভিযোগ, রাজ্যে এনসেফ্যালাইটে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে এই নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করার কিছু আগেই তাঁর ভাইকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। পুলিস সুপার সভরজি সিং জানিয়েছেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছিলাম এক ব্যক্তি হাসপাতালের ভেতর ঢুকে চিকিৎসায় বাধার সৃষ্টি করছে। সেই অভিযোগ পেয়ে সেখানে গিয়ে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করি। পরে ধৃত নিজের পরিচয় দেয় চিকিৎসক কাফিল খান বলে।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত যদি  আদিল খানের অভিযোগ সত্যি হয় তাহলে এটা গর্হিত অপরাধ ।এর জন্য অবশ্যই  গণ আন্দোলন গড়ে তোলা উচিত ।                                                                                                           

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "



ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ :কেন্দ্র সরকারের ঘনিষ্ট রাজ্য বলে পরিচিত তেলেঙ্গানা ।সেই তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের  অতি ঘৃণ্য একটি ঘটনা সামনে আসল , যা বাবা মায়েদের রাতের ঘুম কেড়ে নেওয়ার জন্য যথেষ্ট । প্রসঙ্গত একই দিনে দু’‌টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটল হায়দরাবাদের একটি নামী স্কুলে। দু’‌টি ক্ষেত্রেই আক্রান্তের বয়স মাত্র চার বছর।


এই ঘটনার জেরে ওই আন্তর্জাতিক স্কুলটি বন্ধ করে দেওয়ার জোরালো দাবি উঠেছে ।পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৪ সেপ্টেম্বর ওই দু’‌টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। একটি ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয় সেদিনই। কিন্তু দ্বিতীয় ঘটনার অভিযোগ পুলিসের কাছে আসে সাতদিন পর। অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে পুলিস তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। এক আক্রান্ত শিশুর বাবা পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার তিনি জানান, তাঁর সন্তানকে যৌন নির্যাতন করা হয়েছে। কিন্তু কে এই অপকর্মটি করেছে তা সনাক্ত করতে পারেনি তাঁরা। শুক্রবারই শিশুটির পরিবার গোলকোণ্ডা থানায় অভিযোগ দায়ের করে। পুলিসের এক আধিকারিক জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরই পকসো আইনে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তের খোঁজ চলছে। খতিয়ে দেখা হবে স্কুলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজও। স্কুলের সব কর্মী এবং শিক্ষক–শিক্ষিকাদের জিজ্ঞাসাবাদও করা হচ্ছে। শিশু দু’‌টিকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। বিদ্যজনেদের একাংশের প্রশ্ন , এই দিন দেখবার জন্যই কি পৃথক রাজ্য তেলেঙ্গানার দাবি জানানো হয়েছিল ? এরকম নক্কার জনক ঘটনা যদি ঘটে তাহলে তেলেঙ্গানা হয়ে লাভটা কি হলো ?

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "
ওয়েব ডেস্ক  ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : বিজেপি শাসিত রাজ্যে বহুবার ধর্ষণের ঘটনা সামনে এসেছে  , এবার মহিলাকে উলঙ্গ করে ঘোরাবার ঘটনা সামনে আসল , যা এক কথায় নক্কারজনক । একবিংশ শতাব্দীতেও যে এরকম হতে পারে  সেটা দুঃস্বপ্নেও ভাবা যায়না কিন্তু এরকম ঘটনা ঘটেছে এবং বিজেপি শাসিত রাজ্যেই ঘটেছে ।


প্রসঙ্গত  বেআইনি মদ বিক্রির অভিযোগে সেই মহিলাকে প্রকাশ্যে নগ্ন করে তাঁর গোপনাঙ্গে লঙ্কাগুঁড়ো ছিটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে  একদল মহিলার বিরুদ্ধে।গত ১০ তারিখ অসম–মিজোরাম সীমানায়, অসমের করিমগঞ্জ জেলার একটি আদিবাসী গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছিল। কিন্তু গত শুক্রবার সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরই নড়েচড়ে বসে পুলিস। অসম পুলিসের ডিজি কুলাধার সইকিয়া বলেছেন, শনিবার পর্যন্ত মোট ১৯ জন মহিলাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখনও মূল অভিযুক্ত পলাতক হলেও দ্রুত ধরা পড়বে বলে আশ্বাস দিয়েছেন সইকিয়া। করিমগঞ্জ সিজেএম কোর্টে নিগৃহীতা মামলা দায়ের করলেও নির্দিষ্টভাবে কারও নাম উল্লেখ করেননি। বিধবা ওই মহিলা তাঁর শ্বশুরবাড়িতেই থাকেন। আদালতে তিনি অভিযোগ করেছেন, গত ১০ তারিখ ওই গ্রামেরই একদল মহিলা দরজা ভেঙে ঢুকে প্রথমে তাঁকে মারধর করে। তারপর তাঁকে নগ্ন করে তাঁর গোপনাঙ্গে লঙ্কাগুঁড়ো ছিটিয়ে দেয়। করিমগঞ্জের এসপি গৌরব উপাধ্যায় বলেছেন, অভিযুক্তদের পাল্টা দাবি, নিগৃহীতা মহিলা গ্রামে বেআইনি মদ বিক্রি করে এবং নানান রকমের অসামাজিক কাজকর্মেও জড়িত। তদন্ত শুরু হয়েছে। তদন্তের পরই সত্যি ঘটনা জানা যাবে। এমনকি ১০ তারিখের ওই ঘটনার ছবি যে তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছিল তার খোঁজ পেতে তথ্যপ্রযুক্তি আইনেও তদন্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এসপি। বিদ্যজনেদের একাংশের প্রশ্ন , শুধু মাত্র বিজেপি শাসিত রাজ্যেই মেয়েদের এতো বেশি করে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে ? সেখানকার প্রশংসন আদেও কি কোনো কাজ করছে ? না, বিজেপি শাসিত রাজ্য বলে , রাম রাজত্ব মনে করেছে ?


তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "
loading...