Tuesday, 24 April 2018

ওয়েব ডেস্ক ২৪ সে এপ্রিল ২০১৮: মমতা বানার্জি আজ একটি ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে বলেন ,বিরোধী তিন দল ,বিজেপি,কংগ্রেস, এবং সিপিএম পশ্চিমবাংলায় তিন ভাইয়ে পরিণত হয়েছে । কোনো রাক ঢাক না করেই তিনি বলেন এই তিন ভাই একত্র হয়ে বাংলায় হিংসা ছড়াচ্ছে ।
 

                                                                                                                     প্রতীকী চিত্র
 তিনি স্পটতই বলেন   'শাসক দল অশান্তি চায় না। তারা শান্তি চায়।' মনোনয়নে হিংসায় তাঁর দল তৃণমূল কোনওভাবেই জড়িত নয় । বরং বিরোধীরা পরিকল্পিতভাবে হিংসা ছড়াচ্ছে । বিজেপি-কংগ্রেস দিল্লিতে একে অপরের শত্রু  বলে পরিচিত। কিন্তু বাংলায়  বিজেপি ও কংগ্রেস একত্র হয়েছে । এতে সামিল হয়েছে সিপিএমও।
    তিনি তথ্য দিয়ে বোঝান সিপিএম ইচ্ছাকৃত ভাবে বিজেপিকে জায়গা ছেড়ে দিয়েছে ।মুখমন্ত্রী বলেন , গত বার সিপিএম  মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলো ৬৭ হাজার, আর এবার বিজেপি দিয়েছে ৩৮ হাজার  সিপিএম সিপিএম দিয়েছে  ২৮ হাজার। তিনি আরো বলেন উৎসব নিয়ে বিজেপি শুধু রাজনীতি করছে আর মমতা ব্যানার্জির গায়ে মুসলিম তোষণের সিলমোহর লাগাচ্ছে  । তিনি পরিষ্কার  করে দেন সব ধর্মই তার কাছে সমান ।



ওয়েব ডেস্ক ২৪সে এপ্রিল ২০১৮:আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ব আইনমন্ত্রী সালমান খুরশিদ আজ স্বীকার করে নিয়েছেন  , যে কংগ্রেসের হাতেও মুসলিমদের  রক্তের দাগ রয়েছে  । 
    সালমান খুরশিদের মন্তব্যটি আসে যখন আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের  একজন ছাত্র প্রশ্ন করেন  যে  কংগ্রেস  কীভাবে মুসলিমদের রক্তে রাঙানো হাত ধুয়ে ফেলবে ? সালমান খুরশিদ  বলেন ,যে তাদের (কংগ্রেসের) হাতে রক্তের দাগ আছে বলেই আজ মুসলিমদের ওপর অত্যাচার হলে কংগ্রেস মুসলিমদের বাঁচাতে এগিয়ে আস্তে পারবেনা ? ছাত্রটি কংগ্রেস শাসনকলে  সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা এবং অন্যান্য বিতর্কিত কর্মের কথা উল্লেখ করে  প্রশ্ন তুলেছিলেন ।

                                                                                                                         প্রতীকী চিত্র

সালমান খুরশিদ বলেন "আমি তোমাকে বলছি. আমরা আমাদের হাতের রক্ত ​​দেখানোর জন্য প্রস্তুত, যাতে তুমিও  উপলব্ধি করো  যে তোমার হাতেও যেন রক্তের দাগ না থাকে । যদি তোমরা আক্রমণের পথ বেছে নাও  , তাহলে তোমার হাতেও রক্তের দাগ থাকবে । " সালমান খুরশিদ উপদেশ দেন "আমাদের অতীত থেকে কিছু শিখুন। আমাদের ইতিহাস থেকে শিখুন এবং নিজের জন্য এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করবেন না যে, যদি আপনি ১০  বছর পর আলীগড়  মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে আসেন, তাহলে আপনার মত কেউ ,আপনাকে  প্রশ্ন করার মত  থাকবে "।
    ছাত্রটি কংগ্রেস জামানায় কি কি অধর্মের কাজ ঘটেছিলো তার একটা লিস্ট তৈরী করে সালমান খুরশিদের সামনে রেখেছিলেন ।
তারপর ছাত্রটি প্রশ্ন করেন কংগ্রেসের হাতেও তো মুসলিম রক্তের দাগ আছে , তাহলে কোন শব্দ ব্যবহার করে তিনি সেই রক্ত মুছে ফেলবেন ?
ওয়েব ডেস্ক ২৪ সে এপ্রিল ২০১৮ :ভোট প্রচার সেরে বাড়ি ফেরার সময় ,তাকে শেষ বারের মতো উত্তেজিত অবস্থায় ফোনে কথা বলতে শোনা গিয়েছিল তার পর সারা রাত আর বাড়ি ফেরেননি ,কিন্তু সোমবার সকালে বাড়ির কাছেই রাস্তার ধারে আমিরুল মোল্লার(২৭ )নলি কাটা দেহ উদ্ধার হল ৷ঘটনাটি স্বরূপ নগরের নিত্যানন্দকাটি গ্রামের মাঝেরপাড়ার ৷তদন্তকারী অফিসারেরা জানান আমিরুল মোল্লাকে নৃশংস ভাবে কোপানো হয়েছিল ,সঙ্গে গলার নলি কেটে তাকে খুন করা হয় এই তৃণমূল কর্মীকে  ৷



তৃণমূলের জেলা যুব সম্পাদক অভিযোগ  করেন সিপমের তরফ থেকেই, পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে আমিরুলকে ৷
খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতি প্রিয় মল্লিক সোমবার নিহতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ করেন  ,শাসক দলের এতো কর্মী নিহত হচ্ছে আর বিরোধীরা বলেই যাচ্ছেন তৃণমূল সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে ৷ পুলিশের তরফ থেকে জানা গিয়েছে ,গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ,সিপিম প্রার্থীরা জয়ী হন ,তার পর একে একে  বহু সিপিম কর্মী তৃণমূলে যোগদান করে , এবং তার পর থেকেই মনোনয়ন জমা নিয়ে একটা চাপান উত্তর ছিলই  ৷ রুস্তম মল্লিক , আমিরুলের সম্পর্কিত ভাই অভিযোগ করেন সকালের দিকে স্থানীয় এক সিপিএম  নেতা আমিরুল কে হুমকি দিয়ে যায় ,তার পরেই এই নৃশংস হত্যা  ৷ বাড়ির লোকেরা সেই সিপিএম নেতাকেই সন্দেহ করছে এই হত্যার পেছনে  ৷

ওয়েব ডেস্ক ২৪সে এপ্রিল ২০১৮ :দিল্লির গ্রেটার নয়ডার এক ষোড়শী অভিযোগ করেন, তিন জন দুষ্কৃতী তাকে একটি গাড়িতে গণ ধর্ষণ করে, তার মধ্যে একজন আবার তার দূর সম্পর্কের আত্মীয় । ঘটনার পর থেকে তিনজন অভিযুক্ত  পলাতক এবং তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নির্যাতিতা এগারো ক্লাসের ছাত্রী ,তিনি অভিযোগ করেন ১৮ই এপ্রিল  বাড়িতে ফেরার সময় এই ঘটনাটি ঘটে ।



পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয় , নির্যাতিতা রোজকার মতো স্কুল বাস ধরার জন্য বাড়ি থেকে বেরোয় , কিন্তু স্কুল বাস নির্দিষ্ট সময়ে ছেড়ে চলে যাওয়ায় ষোড়শী মেয়েটি বাস টা মিস করে , তাই সে বাড়ি অভিমুখে  হাঁটার পরিকল্পনা নেয়  । বাড়ির অভিমুখে হাঁটার কয়েক মিনিটের মধ্যে ,একটি গাড়ি এসে তার সামনে দাঁড়ায় , গাড়িটি ছিলেন তিন জন ,একজন নির্যাতিতার দূর সম্পর্কের আত্মীয় , দ্বিতীয় জন তার ক্লাসের এক বন্ধু ,এবং আর একটি ছেলে ।তারা তাকে বাড়িতে ড্রপ করে দেবে বলে জানায়, যেহেতু চেনা পরিচিত লোক ছিল ,নির্যাতিতা গাড়িতে উঠে পরে ।
    গাড়িতে ওঠা মাত্রই নির্যাতিতার মুখে কাপড় বেঁধে একজনের  পর একজন তাকে ধর্ষণ করতে ধর্ষণ করতে থাকে । এক একজন অভিযুক্ত তাদের ধর্ষণের তৃস্না মেটাবার পর নির্যাতিতাকে একটি ঠান্ডা পানীয় পান করতে বাধ্য করে , তারপর ষোড়শী নির্যাতিতা তার জ্ঞান হারান ।
     নির্যাতিতা  যখন বাড়িতে ফিরে আসেনি, তখন তার বাবা  পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ অজ্ঞান  অবস্থায় নির্যাতিতাকে  রাত ২ টায় নলেজ পার্কের গ্যালগোটিয়াস   ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি কলেজের সামনে একটি নির্জন রাস্তা থেকে  উদ্ধার করেন ।
ওয়েব ডেস্ক ২৪ সে এপ্রিল ২০১৮ : যেই সব রাজনৈতিক দলগুলোকে জোট সঙ্গী করে , মানিক সরকারের বামফ্রন্ট সরকারকে উৎখাত করেছিল বিজেপি ত্রিপুরা থেকে , সেই জোট সঙ্গীদের সঙ্গে গন্ডগোলে জড়িয়ে পড়লো বিজেপি । দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলার শান্তি বাজারে জোট সঙ্গী আইপিএফটি কর্মকর্তাদের সঙ্গে ব্যাপক বোমাবাজি হয় বিজেপি সর্মথকদের ।
   

  সূত্রের খবর গত ১৮ ফেব্রুয়ারী  সিপিম পার্টি ছেড়ে একাধিক কর্মী বেরিয়ে আসে , সেই সব কর্মীদের বিজেপি বলে আমাদের লোক আর আইপিএফটি বলে আমাদের দলের সমর্থক  , এই নিয়েই ঝামেলা বাধে । এই নিয়ে তর্কাতর্কি থেকে হাতাহাতিতে পৌঁছয় , এবং ব্যাপক বোমাবাজি হয় ।ঘটনার পরে আইপিএফটি সমর্থকরা জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। বেশ কয়েক ঘন্টার জন্য জাতীয় সড়ক অবরূদ্ধ হয়ে পড়ে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় স্থানীয় প্রশাসন। যান স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও। তাঁরা বুঝিয়ে অবরোধ তুলে দেন।
     ভোটের আগে বিজেপি ,আইপিএফটির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে একটি আলোচনা সভা আয়োজন করে । সেই আলোচনা সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছিলেন ভোটের পরে আইপিএফটির দাবি গুলো খতিয়ে দেখার জন্য উচ্চস্তরের একটি কমিটি গঠন করা হবে কেননা আইপিএফটি পক্ষ থেকে প্রটোক রাজ্যের দাবি অনেকদিন ধরেই করে আশা হচ্ছিলো ।কিন্তু ভোটে জেতার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়ে দেয়, এ ধরণের কমিটি গঠন করার পরিকল্কনা এই মুহূর্তে একেবারেই নেই ।

Monday, 23 April 2018

 ওয়েব ডেস্ক ২৩সে এপ্রিল ২০১৮ :জনসংযোগ বাড়াতে ফেস বুককে কাজে লাগছে ট্রাফিক পুলিশ ৷এর জন্য দেশের  বিভিন্ন ট্রাফিক পোলিসেরই ফেসবুকে পেজ রয়েছে ৷সে সবের মধ্যে দ্বিতীয় স্থান অধিকার নিল কলকাতা পুলিশ ৷


জনপ্রিয়তা ও কার্যকারিতার নিরিখে এই সিদ্ধান্ত ৷ সম্প্রতি ডিসি ট্রাফিকের দফতর থেকে এ খবর জানানো হয়েছে ৷ সূত্রের খবর সম্প্রতি ফেইসবুক এই সমীক্ষাটি করে ৷ তাতে ট্রাফিক পুলিশ পুলিশ বিভাগে প্রথম হয়েছে ব্যাঙ্গালুরু ৷দ্বিতীয় কলকাতা পুলিশ ৷লালবাজারের খবর ফাসেবুককে আরও কিভাবে কাজে লাগানো যায়সেই চেষ্টাই করছেন ট্রাফিক পুলিশর কর্তারা ৷
ওয়েব ডেস্ক ২৩ সে এপ্রিল ২০১৮ :   ভারতের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের ইমপিচমেন্ট  জন্য কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন একটি পদক্ষেপ, উপরাষ্ট্রপতি   ভেঙ্কাইয়া নাইডু প্রত্যাখ্যান  করে দিয়েছেন , তিনি বলেন যথেষ্ট "মেরিটের"  অভাব রয়েছে এই বিষয়ে ৷ রাজ্যসভায় চেয়ারম্যান হিসাবে উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু আজ সকালে ৬০  জন সংসদ সদস্যের স্বাক্ষরিত একটি প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন যেখানে আবেদন করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের  প্রধান বিচারপতি  দীপক মিশ্রকে যেন তার অবসরের ৬ মাস আগেই ইমপিচ করা হয়  ৷

                                                                                                                      প্রতীকী চিত্র
 উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নবাইডু ১০ পাতার অর্ডার পড়ে  বলেন  ৬০  জন সংসদ সদস্যের স্বাক্ষরিত  প্রস্তাবে যথেষ্ট যাচাই করার মতো কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি, এবং এর কোনো গ্রহণ যোগ্যতাও দেখা যাচ্ছেনা   ৷কংগ্রেসের এই  প্রচেষ্টার সমালোচনা করেন   ফরি নরিমান সহ শীর্ষ জুরি , উনি বলেন  এটি একটি বিপজ্জনক উদাহরণ স্থাপন করবে - উদাহরণস্বরূপ  তিনি বলেন চিফ জাস্টিস , যদি সরকারের  সিদ্ধান্তের সাথে একমত না হয় তবে ক্ষমতাসীন দল প্রধান বিচারপতিকে অপসারণের চেষ্টা করতে পারে।
   প্রতিদিনকার মতো আজও জাস্টিস দীপক মিশ্র সুপ্রিম কোর্টে স্বাভাবিক কাজ কর্ম করেছেন ।
ওয়েব ডেস্ক ২৩ সে এপ্রিল ২০১৮ :রবিবার গোপালনগরে দিঘাড়ীতে এসে নাম না করে তৃণমূল নেতাদের সরাসরি 'খুনের হুমকি দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ।তৃণমূলের কর্মীদের অনাথ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন তিনি ।এ বিষয়ে দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে এফ আই আর দায়ের করেছেন উত্তর ২৪ পরগনার তৃণমূল জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ।


                                                                                                          প্রতীকী চিত্র
               

এ নিয়ে নতুন করে বিজেপি- তৃণমূলের চাপানউতোর শুরু হয়েছে ।রবিবার ছুটির দিনে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার একাধিক জায়গায় দিলীপ ঘোষ তার দলের কর্মীদের নিয়ে সভা করেছেন ।দিঘাড়ীতে এসে তৃণমূল নেতাদের  নাম না করে , বলেন তোমরা যে ভাষায় বুঝবে আমি সেই ভাষাতাই কথা বলবো ।তিনি আরও বলেন তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশে , যে পাবলিকের পকেট ঝেড়ে যা কামিয়েছো সেগুলো ভোগ করতে পারবেনা । ছেলে মেয়েদের দেখার লোক থাকবেনা ।দিলীপ ঘোষ এও বলেন যে এখানে দাঁড়িয়ে বলে যাচ্ছি ,অনাথ করে দেব । কস্মিনকালেও কেউ মনে করতে পারছেনা , বাংলায় দাঁড়িয়ে এরকম ভাষাতে কেউ কোনোদিন কথা বলেছে কিনা । ইলেক্ট্রিনিক মিডিয়াতে এই খবর প্রকাশ করার পরই তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দর মহলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে । জ্যোতি প্রিয় মল্লিক সময় নষ্ট না করে তড়িঘড়ি থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করেন দিলীপ বাবুর বিরুদ্ধে ।
ওয়েব ডেস্ক ২৩ সে এপ্রিল ২০১৮ : চেন্নাই এক্সপ্রেসে এক  নাবালিকাকে যৌন নির্যাতনের অভযোগ উঠলো এক বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে ।পেশায় আইনজীবী ওই নেতা বিরুদ্ধে অভিযোগ যে তিনি এক নাবালিকাকে ঘুমন্ত অবস্থায় যৌন নির্যাতন করার চেষ্টা  করেন ।পুলিশের তরফ থেকে জৈনিক নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে ,এবং পেশায় ওই আইনজীবীর নাম জানা গেছে কে.পি.প্রেম অনন্ত ।
   





পুলিশের তরফ থেকে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পক্সো আইনে মমালা রুজু  করা হয়েছে এবং  পাঠানো হয়েছে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে।তিনি একবার বিজেপির হয়ে ২০০৬ সালে আর .কে নগর থেকে দাঁড়িয়েছিলেন । চেন্নাই এক্সপ্রেসে ,নাবালিকা যখন গভীর ঘুমে মগ্ন ছিলেন ,ঠিক সেই সময় কে.পি.প্রেম অনন্ত  শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করেন । কিন্তু মেয়েটি জেগে গিয়ে চিৎকার শুরু করে দেন । মেয়েটির চিৎকার শুনে তার বাড়ির লোক ছুটে আসেন এবং অভযুক্তকে ধরে ফেলেন ।
    প্রসঙ্গত কিছু দিন যাবৎ  বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে মেয়েদের প্রতি যৌন নির্যাতন  বার বার উঠে আসছে ।জম্মু কাশ্মীর ও গুজরাটে যেমন দু জন নাবালিকাকে ধর্ষণ করে ক্ষণ করা হয়েছে ,ঠিক তেমনি উন্নাওতে  এক নাবালিকাকে ধর্ষণ করেন বিজেপির বিধায়ক কুলদীপ সিংহ সেঙ্গার ।এই পরিস্থিতিতে  কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা থেকে একটি অর্ডিন্যান্স  পাস করা হয়েছে যে ১২ বছরের কম বয়সী মেয়েদের ধর্ষর করলেই ফাঁসি ।
ওয়েব ডেস্ক ২২ শে এপ্রিল ২০১৮ :লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির  একটা বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে ভারতের চিকিৎসক মহল ক্ষোভে ফেটে পড়লো ৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লন্ডনে 'ভারত কি বাত সাবকে সাথ ' আলোচনা সভায়  মন্তব্য করেন , ভারতের চিকিৎসকদের অপকর্মের জন্য দেশবাসী ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছে ৷তিনি আরও বলেন ভারতের চিকিৎসকেরা বিদেশে গিয়ে ওষুধ কোম্পানির প্রচার করেন ৷
 
                                                                                                                    প্রতীকী চিত্র

তার এহেন মন্তব্যে মুম্বাইয়ের চিকিৎসক মহল ক্ষোভে ফেটে পরে ,তারা মোদীজিকে চিঠি লিখে বোঝাতে চেয়েছেন তার এই মন্তব্যে চিকিৎসক ও রোগীর সম্পর্কই মধ্যে একটা অবিশ্বাসের বাতাবরণ তৈরী হবে ৷নরেন্দ্র মোদির মন্তব্যে দুঃখপ্রকাশ করে ডাঃ রবি ওয়ানখেদকার বলেন, '‌ভারতীয় চিকিত্‍সকদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদির মন্তব্য মেনে নিতে পারছি না। ব্রিটেনে যেখানে চিকিত্‍সা ব্যবস্থার ৭০ শতাংশ ভারতীয় চিকিৎসকরা  নিয়ন্ত্রণ করেন। ওষুধের মূল্য বৃদ্ধি সেটা তো সরকারের হাতে, আমাদের হাতে নয়। আমরা বিনীতভাবে অনুরোধ করব প্রধানমন্ত্রী যেন তাঁর মন্তব্য প্রত্যাহার করেন ।'‌আর এক চিকিত্‍সক বীণা পণ্ডিত জানান, কিছু চিকিত্‍সক রয়েছেন যাঁরা ওষুধ সংস্থার টাকাতে বিদেশ ভ্রমণ করেন কিন্তু তা বলে সকলে নয়। ব্যতিক্রম চিকিত্‍সকরাও রয়েছেন। কিন্তু তা বলে বিদেশে গিয়ে এভাবে প্রকাশ্যে ভারতীয চিকিত্‍সকদের অপমান করা মোটেও ঠিক নয়।

                  প্রসঙ্গত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মহাশয় লন্ডনের আলোচনা সভায় আরো বলেছেন ভারতীয় ডাক্তাররা বিদেশে গিয়ে ওষুধ কোম্পানি হয়ে প্রচার চালান যাতে ওষুধ গুলো বেশি দামে বিকোয় ,কিন্তু সেই একই গ্রূপের ওষুধ অন্য কোম্পানির অতি কম দামে পাওয়া যায় । তিনি আরও বলেন চিকিৎসকরা সিঙ্গাপুর, দুবাই এ আলোচনা সভায় যায় কিন্তু কোনো রোগীকে দেখতে নয় শুধু  কোম্পানির ওষুধের প্রচারের জন্য 
loading...