Saturday, 13 January 2018

কলকাতায় আক্রান্ত বিজেপি; মমতার বাণিজ্য সম্মেলন বয়কট মোদী সরকারের

ওয়েব ডেস্ক , ১৩ই জানুয়ারী :- ১২ জানুয়ারী কলকাতায় সংঘর্ষ হয়েছিল তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। আহত হয়েছিল বেশ কিছু বিজেপি কর্মী। এর আগে বিজেপির মিছিল গুলির অনুমতি দেয়নি রাজ্য প্রশাসন। যদিও হাইকোর্টে গিয়ে সেই অনুমতি জোগাড় করে বিজেপি নেতৃত্ব । কিন্তু গতকালের সংঘাতের আঁচ গিয়ে পড়লো রাজ্য ও কেন্দ্র সম্পর্কে। আগামী ১৬ এবং ১৭ জানুয়ারি বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের আয়োজন করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। কেন্দ্রের মোদী সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে সেখানে উপস্থিত থাকার কথা ছিল কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণমন্ত্রী নিতিন গডকড়ীর। কিন্তু নতুন পরিস্থিতিতে এই সম্মেলন তিনি বয়কট করছেন ।



এই ব্যাপারে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, শুক্রবার বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলার পর কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে সেকথা জানান কেন্দ্রীয় জলসম্পদ উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী অর্জুনরাম মেঘওয়াল। এরপরই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে ফোন করেন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও। রাজ্য বিজেপি সূত্রে দাবি, সব শুনে অমিত শাহ বলেন, আন্দোলনের রাশ আলগা হতে দেওয়া যাবে না। বিষয়টি আমারও দেখছি।শুক্রবারের এই উত্তপ্ত পরিস্থিতির পর রাজ্য বিজেপির কাছ থেকে বার্তা পেয়ে কেন্দ্রের সরকার এবার বিশ্ববাংলা বাণিজ্য সম্মেলনে না আসার সিদ্ধান্ত নিল। ইতিমধ্যে নবান্নে সেই বার্তা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে নরেন্দ্র মোদীর সরকারের তরফে কোনও প্রতিনিধি এবার বিশ্ববাংলা সম্মেলনে প্রতিনিধিত্ব করবে না।

এই সিদ্ধান্তকে দুর্ভাগ্য জনক বলে মন্তব্য করেছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় । পাল্টা আক্রমণে নেমেছেন অভিষেক বন্ধ্যোপাধ্যায়। বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্র সরকারের বঞ্চনার কথা তুলে ধরেছেন তিনি কিন্তু রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, এই পরিস্থিতিতে বাণিজ্য সম্মেলন এড়িয়ে যাওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না৷ কারণ, বাণিজ্য সম্মেলনে অনেক সম্মানীয় অতিথি থাকবেন৷ সম্পূর্ণ প্রশাসনিক মঞ্চ থেকে রাজনৈতিক আক্রমণ সম্ভব নয়৷ সেটা প্রোটোকলের বাইরে হয়ে যাবে৷ সম্ভবত সেই কারণেই  এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷

No comments:

Post a Comment

loading...