Sunday, 14 January 2018

কাশ্মীরে সন্ত্রাস ঠেকাতে শিক্ষাব্যবস্থা, মাদ্রাসা ও মসজিদে নিয়ন্ত্রণ দরকার - সেনাপ্রধান এর মন্তব্যের তীব্র বিরোধ বিজেপি পিডিপি মন্ত্রীর

ওয়েব ডেস্ক, ১৪ই জানুয়ারী :-  কয়েক দিন আগে জম্মু কাশ্মীরের উগ্রবাদ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন ভারতের সেনা প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেন সোস্যাল মিডিয়া, জম্মু ও কাশ্মীরের কিছু স্কুল ভুল, মিথ্যা প্রচারাভিযান চালাচ্ছে। এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিচ্ছে রাজ্যের কিছু মাদ্রাসা ও মসজিদ। যার ফলে রাজ্যের  যুবসমাজ মৌলবাদ, কট্টরপন্থার দিকে ঝুঁকে পড়ছে বলে অভিমত জানান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে তিনি  রাজ্যের মসজিদ, মাদ্রাসাগুলির ওপর কিছুটা নিয়ন্ত্রণ চাপানোর কথা বলেন। এভাবে মিথ্যা প্রচার ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো যেতে পারে বলে তিনি মনে করেন ও সরকারকে ভেবে দেখতে বলেন।


সেনাপ্রধানের মতে, সমস্যার মোকাবিলায় শিক্ষা ব্যবস্থায় ‘বড় রকমের সংস্কার, বদল’ দরকার। কারণ হিসাবে তিনি বলেন কাশ্মীরে পাথরবাজদের একটা অংশ সরকারি স্কুলের পড়ুয়া। তাই এই সংস্কার অত্যন্ত জরুরি বলে তিনি মনে করেন। 

সেনাদিবসের প্রাক্কালে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন,বাচ্চাদের মনে একটা আলাদা পরিচয়, সত্তার বোধ তৈরি হচ্ছে কারণ জম্মু ও কাশ্মীরে সরকারি স্কুলের প্রতিটি ক্লাসে ভারতের ম্যাপের পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীরের পৃথক মানচিত্র রয়েছে। এইব্যস্থার ও তিনি পরিবর্তন হওয়া জরুরি বলে মনে করেন। জম্মু ও কাশ্মীরে বিরাট ভুল মিথ্যা প্রচার চলছে । আর সেই কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে সোস্যাল মিডিয়া। সেই খবর যাচাই না করে বিশ্বাস করে নিচ্ছে যুবকরা । ফলে যুবকদের মধ্যে কট্টরপন্থী ভাবনাচিন্তার জন্ম দিচ্ছে। সাথে মাদ্রাসা, মসজিদের মাধ্যমেও ছাত্রদের মাথায় ভুল তথ্য ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। 

কিন্তু জম্মু কাশ্মীরের বিজেপি পিডিপি সরকারের শিক্ষামন্ত্রী আলতাব বুখারী এই বক্তব্যের তীব্র বিরোধ করে বলেন, " উনি সেনাপ্রধান, অধ্যাপক নন"। উনি আরো সংযুক্ত করে বলেন আমাদের দুটো সংবিধান, দুটো মানচিত্র, দুটো পতাকা আছে। আর তাই এই প্রসঙ্গে সেনাপ্রধানের বক্তব্যর প্রয়োজন নাই। আর ছাত্রদের কি ভাবে পড়ানো হবে সেটা সেনা প্রধানের ভাবার দরকার নাই।  

আলতাব বুখারীর বক্তব্য 


Source :- ANI


No comments:

Post a Comment

loading...