Monday, 15 January 2018

আজ আর্মী দিবস, আমাদের স্বাধীনতা বজায় রাখতে যারা জীবন বাজি রাখছে জানুন তাদের কথা

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ই জানুয়ারি :-  ১৮৯৫ সালের ১ এপ্রিল ভারতের সেনাবাহিনী প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১২১ বছর প্রতিষ্ঠা হওয়া এ বাহিনীর বর্তমান সক্রিয় সদস্য ১২ লাখ ২৫৫ জন। আর রিজার্ভ সদস্য রয়েছে ৯৯ হাজার ৯৬০ জন। ১৯৪৮-৪৯ সাল পর্যন্ত জেনারেল স্যর ফ্রান্সিসের বুচারের পর সেনাবাহিনীর প্রথম ভারতীয় প্রধান হন লেফটেন্যান্ট কে এম কারিআপ্পা। সেই মুহূর্ত স্মরণীয় করে রাখতে প্রতি বছর ১৫ জানুয়ারি সেনাদিবস পালন করা হয়।


ভারতীয় সেনাবাহিনী ভারতীয় সামরিক বাহিনীর বৃহত্তম শাখা। এই শাখার উপর ন্যস্ত রয়েছে যাবতীয় স্থলভিত্তিক সামরিক কার্যাবলির দায়িত্ব। এই বাহিনীর প্রাথমিক লক্ষ্যগুলি হল: বহিঃশত্রুর হাত থেকে দেশকে রক্ষা করা, আভ্যন্তরিন শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা করা, সীমান্ত প্রহরা ও সন্ত্রাসবাদবিরোধী অপারেশন পরিচালনা করা। এছাড়াও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও অন্যান্য দুর্বিপাকের সময় উদ্ধারকাজ সহ বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক কাজও সেনাবাহিনী করে থাকে। ভারতের রাষ্ট্রপতি সেনাবাহিনীর সর্বাধিনায়ক।

গোটা পৃথিবীর যে কটি দেশে সেনার সংখ্যা সবথেকে বেশি, সেই তালিকায় তৃতীয় নম্বর স্থানে ভারত। আমেরিকা আর চিনের পরই রয়েছে ভারত। ভারতীয় সেনাবাহিনী পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম সেনাবাহিনী। এই বাহিনীতে কার্যরত সেনা-জওয়ানের সংখ্যা ১,১৩০,০০০ জনেরও বেশি এবং সংরক্ষিত ট্রুপের সংখ্যা প্রায় ১,৮০০,০০০ জন। এটি সম্পূর্ণত স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন। যদিও ভারতীয় সংবিধানে সামরিক পরিকল্পনার একটি উল্লেখ থাকলেও তা কখনও বাস্তবায়িত হয়নি।

১৯৪৭ সালে স্বাধীনতাপ্রাপ্তির অব্যবহিত পরেই ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীর অধিকাংশ রেজিমেন্টকে একত্রিত করে ভারতীয় সেনাবাহিনী গঠিত হয়। রাষ্ট্রসংঘের শান্তিরক্ষীবাহিনীর সদস্য হিসেবে বিশ্বের বহু অশান্ত অঞ্চলে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে নিয়োগ করা হয়েছিল। 

১২০ কোটির ভারত শান্তিতে ঘুমায়, কারণ ওরা জেগে থাকে। ১২০ কোটির ভারত নিরাপদে থাকে কারণ আমাদের নিরাপত্তা দেয় ওরা। প্রত্যেক মুহুর্তে মৃত্যুর মুখোমুখি হন ওরা। তেরঙ্গার সম্মান বাঁচাতে স্প্লিনটারকে নিজের বুকে আশ্রয় দিতেও দ্বিধা করে না ওরা। ওরা রক্ষক, ওরা ভারতীয় আর্মি। 

জেনে নিন ভারতীয় সেনা সম্পর্কে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য :-

১) ইন্ডিয়ান আর্মিতে কোনও সংরক্ষণ নেই। জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে কেবল যোগ্যতাকেই প্রাধান্য দেওয়া হয় ভারতীয় আর্মিতে। 

২) রাষ্ট্রসংঘের শান্তি মিশনে ভারত অন্যতম প্রধান দেশ যাঁদের শান্তি রক্ষা বাহিনী আর্মি গোটা বিশ্বে 'শান্তির বর্ষণে মেঘ'। 

৩) ভারতীয় আর্মির স্পেশ্যাল ইউনিটকে বলা হয় প্যারা কমান্ডো। বলা হয় এই প্যারা কমান্ডো হল বিশ্বের অন্যতম গোপন সংস্থাগুলোর মধ্যে একটি। 

৪) ১৮৯৭ সালে সারাগারি যুদ্ধে ১৪০০ আফগানিদের সঙ্গে লড়াই করেছিল সাহসী ২১ শিখ। তাঁরা সকলেই ভারতীয় আর্মি ছিলেন।    

৫) ভারতের সেনারা গোটা বিশ্বের সবচেয়ে বড় যুদ্ধ ক্ষেত্রে ঘাঁটি গেড়েছেন। সিয়াচেন, যেখানে তাপমাত্রা থাকে -৫০ ডিগ্রিরও কম। 

৬) ভারতের সেনাবাহিনী কেবল ১৯৬২ সালের চিন যুদ্ধ ছাড়া কোনও যুদ্ধেই হারেনি। 

৭) শোনা যায় এডলফ হিটলার নাকি গোর্খা রেজিমেন্টের দখল নিতে চেয়েছিলেন। কারণ একমাত্র গোর্খা সেনারাই জার্মানির হামলা প্রতিহত করার সার্মথ্য ছিল। তাই গোর্খা সেনাদের দিয়ে ইউরোপ দখলের স্বপ্নে বিভোর হিটলার তার ইচ্ছাপূরণ করতে চেয়েছিলেন।

৮) তৎকালীন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি কলকাতায় ভারতীয় সেনাবাহিনী গঠন করেন।

৯) ভারতীয় সেনারা নিজেদের সদস্য ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনসহ অনেক দেশের সেনা সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেয়।

১০) ভারতের দেহরাদুনের ভারতীয় মিলিটারি একাডেমি এবং মিজোরামের ভাইরেংটের সেনা একাডেমিতে সন্ত্রাসদমন ও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে যুদ্ধ করার বিশেষ প্রশিক্ষণের দেওয়া হয়।

১১) প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান স্বাধীন হওয়ার পর বেশ কয়েকবার অভ্যুত্থান হলেও স্বাধীন ভারতে এখন পর্যন্ত কখনই সেনা অভ্যুত্থানের ঘটেনি।

১২) অনেক বহু যুদ্ধের সাক্ষী থাকলেও ভারতীয় সেনা কখনই শত্রুপক্ষকে আগে আক্রমণ করেনি।

১৩) ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নানা ভাষাভাষীর রয়েছে। তবে নিয়োগের যোগ্যতা হিসেবে জাতি,ধর্ম, বর্ণ সবাই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারে। এ খানে বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে পরীক্ষা দিতে আসার প্রার্থীর শারীরিক সক্ষমতা ও অন্যান্য যোগ্যতা। এসব ঠিকঠাক থাকলেই সেনাবাহিনী নিয়োগ দেওয়া হয়।

১৪) ভারতীয় রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা বিভিন্ন বাহিনীর মধ্যে সেনাবাহিনী সবচেয়ে পুরনো। ১৭৭৩ সাল থেকে এ বাহিনী রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। ওই সময় অবশ্য ভারত রাষ্ট্র ছিল না। 

১৫) বিশ্বের তিনটি দেশের কেবল সেনাবাহিনীর নিজস্ব অশ্বারোহী বাহিনী রয়েছে। এর মধ্যে ভারত একটি দেশ।

১৬)  লাদাখের বেইলি ব্রিজটি ছিল বিশ্বের সবচেয়ে উঁচুতে অবস্থিত সেতু। এটি নির্মাণ করেছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। দ্বিতীয় উঁচু সেতুও নির্মাণ করে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

১৭) দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য রয়্যাল ইন্ডিয়ান আর্মির সিপাহী কমল রাম ভিক্টোরিয়া ক্রস মেডেল পান। তিনিই ছিলেন সবচেয়ে কমবয়সী ভারতীয় সেনা যিনি ওই সম্মাননা পান।

১৮) আসাম রাইফেলস ভারতের সবচেয়ে পুরনো আধাসামরিক বাহিনী।


No comments:

Post a Comment

loading...