Saturday, 13 January 2018

মাওবাদীদের মোকাবিলায় ভারতের হাতে আসতে চলেছে ইস্রায়েলে তৈরী এস্যাল্ট রাইফেল

ওয়েবডেস্ক ১৩ই জানুয়ারি; IWI ACE হল একটি এসাল্ট রাইফেল এবং এটি তৈরী করেছে ইস্রায়েলের রিসার্চ সংস্থা আই.এম.আই এর হামাত ম্যাশেরন। ভারত প্রথম ধাপে একলাখ পনেরো হাজার ACE 52 এসল্ট রাইফেল কিনতে চলেছে। ইস্রায়েলের তৈরি 7.62×51mm এই রাইফেল গুলি এক কথায় অসাধারণ এবং বিশ্বের শ্রেষ্ঠ এসল্ট রাইফেল গুলির মধ্যে একটি। ভারতের মেক ইণ্ডিয়া মডেলে এগুলি ভারতেই বানানো হবে, এবং কথা চলছে টেকনোলোজি ট্রান্সফার নিয়েও। মূলত এগুলি দিয়ে পুরনো ইনসাস গুলি প্রতিস্থাপিত করা হবে এবং পরে নতুন অর্ডারও দেওয়া হবে। পরবর্তীতে জিউস দেশের নেগিভ লাইট মেশিন গান 21 ট্যাভর এবং গালিল স্নাইপার রাইফেল টট কিনে ভারতেই বানিয়ে ব্যাবহার করা হবে।


এখন এসব শুধু ভারতের কমাণ্ডোরা ব্যাবহার করে, এরপর গোটা ভারতের সেনাবাহিনী তা প্র‍য়োগ করবে। ACE 52 এসল্ট রাইফেল, নেগিভ লাইট মেশিন গান, GALIL স্নাইপার রাইফেল, ছাড়াও MKU বুলেট প্রুফ হেলমেট, বুলেট প্রুফ জ্যাকেট ও নাইট ভিশন ডিভাইস সহ অন্যান্য গ্যাজেটস মিলিয়ে DRDO 2025 সালের মধ্যে ভারতীয় সেনাকে পৃথিবীর অত্যাধুনিক সেনা বাহিনীর মধ্যে একটি বানাতে চলেছে।

ACE-52 অস্ত্র হাতে ইসরাইলি সৈন্য

এই ব্যাটল রাইফেলটি ইস্রায়েলে সার্ভিসে আসে ২০০৮ নাগাদ এবং এখনো একটি অপরিহার্য অস্ত্র হিসেবে রয়েছে। এই ডেসিগনেশন মাক্সম্যান রাইফেলটি ব্যবহার হয়েছে আরবান ওয়ারফেয়ার, ম্যাক্সিকান ড্রাগ যুদ্ধ, কলোম্বিয়ান কনফ্লিক্ট সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে।

এর কার্টিজের আকার ৫.৫৬X৪৫ মিমি,এক্সান গ্যাস অপারেটেড, রোটেটিং বোল্ট। বুলেট নির্গমনের মান ৬৮০ থেকে ৮৮০ আর.পি.এম (রেট প্রতি মিনিট)। এফেক্টিভ ভাবে বুলেট বিদ্ধ করার ক্ষমতা ৩০০ থেকে ৫০০ মিটার। বলাই বাহুল্য এরকম একটি সমরাস্ত্র ভারতের হাতে আসলে তা দেশবাসীর কাছে গর্বের কারণ হবে।


No comments:

Post a Comment

loading...