Friday, 12 January 2018

মাস্টারদা সূর্য্য সেনের মৃত্যুদিন ভুলে গেলো বাঙালি !!

ওয়েব ডেস্ক, ১২ই জানুয়ারী :-  আজ ১২ই জানুয়ারী অর্থাৎ আজ ১২ই জানুয়ারীর দিনটা অধিকাংশের কাছে স্মরণীয় বিবেকানন্দের জন্মদিন হিসাবে। কিন্তু আরো একটি কারণে আজকের দিনটি স্মরণীয়, সেই কারণটি যদিও বিষাদের ৷ আজ মাস্টারদা সূর্য সেনের মৃত্যু দিন৷ এই দিনেই তাঁকে ফাঁসি দিয়েছিলো তৎকালীন বৃটিশ সরকার৷ তার পার্থিব দেহের মৃত্যু হয়তো আগেই হয়েছিলো জেলের ভিতর অকথ্য অত্যাচারে ৷ শুধু লোক দেখানো ফাঁসি দেওয়া হয়েছিলো তার প্রাণহীন দেহকে ৷ অনেকে অবশ্য বলেন তাকে অচেতন অবস্থায় ফাঁসি দেওয়া হয়েছিলো ৷


মৃত্যুর আগে কি করা হয়েছিলো তার সাথে ? পিটিয়ে শরীরের সমস্ত হাড় ভেঙে দেওয়া হয়েছিলো ৷ ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে ভেঙে দেওয়া হয়েছিলো তার সব কটা দাঁত ৷ উপড়ে ফেলা হয়েছিলো হাত ও পা এর সমস্ত নখ ৷ তৎকালীন বৃটিশ সরকার এমনই বর্বর আচরণ করেছিলো তাঁর সাথে ৷ এমন কি মৃত্যুর পর তার দেহ তুলে দেওয়া হয়নি পরিজনদের হাতে ৷ ছুঁড়ে ফেলা হয়েছিলো সমুদ্রের বুকে, ঠিক যেভাবে আমরা ছুঁড়ে ফেলি কোনো আবর্জনাকে ডাস্টবিনে, তেমনভাবে ৷ 


চট্টগ্রাম সশস্ত্র বিপ্লবের এই নেতা যিনি আজীবন স্বপ্ন দেখেছিলেন স্বাধীন ভারতের, যিনি প্রাণের মায়া না করে যুদ্ধ চালিয়েছিলেন অপরাজেয় বৃটিশদের সাথে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ৷ যিনি সাধারণ একজন স্কুল শিক্ষক হয়ে দেশের জন্য লড়াই করতে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন অগণিত ছাত্রদের। পুরস্কার, উপাধি এসবের লোভে তার বিশ্বাসভাজন অনুচর নেত্র সেন বিশ্বাসঘাতকতা করে তাকে ধরিয়ে দিয়েছিলেন ৷

মাস্টারদার ফাসীর মঞ্চের ছবি

সেই নেত্র সেনের অবশ্য বেশীদিন আর ধরাধামে থাকা সম্ভব হয়নি এবং অর্থ, পুরস্কার কিছুই পাওয়া সম্ভব হয়নি, কারণ মাস্টারদার অনুগামী এক বিপ্লবী যার নাম আজও আমরা জানিনা তাঁর দ্বারা নেত্র সেন খুন হয় কিছুদিন পরেই ৷ সেই বিপ্লবীর নাম জানতেন একমাত্র নেত্র সেন এর স্ত্রী, যিনি কোনোদিন সেই নাম প্রকাশ করেননি। আজকের দিনে চোখের জলেই বিদায় জানানো হয় এই মহাত্মাকে,শত অত্যাচারেও যার মুখ দিয়ে বন্দেমাতরম ছাড়া আর কিছু বের করতে পারেনি ব্রিটীশরা।




No comments:

Post a Comment

loading...