Thursday, 11 January 2018

নজরে পঞ্চায়েত ভোট, কলকাতায় বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চার মিছিল ও সমাবেশ

ওয়েব ডেস্ক, ১১ ই জানুয়ারী :- পঞ্চায়েত ভোটকে নজরে রেখে গুটি সাজাচ্ছে তৃণমূল ও বিজেপি ৷ বিজেপির হিন্দুত্বের তাসকে মোকাবিলা করার জন্য কয়েকদিন আগেই তৃণমূল পুরোহিত সম্মেলন করে ৷ তেমনি সংখ্যালঘু ভোট কে আকৃষ্ট করার জন্য তাদের দাবিদাওয়া নিয়ে সরব হলো বিজেপি ৷ কলকাতায় এই উপলক্ষ্যে আজ বিজেপি মিছিল ও সমাবেশ করে৷


                  সংখ্যালঘু মানুষকে পাশে পেতে বৃহস্পতিবার বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চা আয়োজন করেছিল একটি সমাবেশ মিছিলের ৷ রাজ্য বিজেপির দফতর থেকে ওয়াই চ্যানেল পর্যন্ত মিছিলে হাজির ছিলেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায় ৷ ছিলেন সর্বভারতীয় সভাপতি আবদুল রহিম আনসারিও ৷ দলীয় সূত্রে পাওয়া হিসেব অনুযায়ী সমাবেশে প্রায় ১৫ হাজার মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন ৷


                মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন মুকুল রায় ৷ বললেন সংখ্যালঘুদের চাকরি নিয়ে ৷ এককালে তৃণমূলনেত্রীর বিশ্বস্ত সহযোগী বৃহস্পতিবার ধর্মতলায় দাঁড়িয়ে বললেন, ‘‘আপনার আমলে কতজন সংখ্যালঘু চাকরি পেয়েছেন, তার তালিকা প্রকাশ করুন৷’’

              অন্যদিকে দিলীপ ঘোষ সভা থেকে তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে৷ তৃণমূল নেত্রী মুসলিমদের বোকা বানাচ্ছেন বলেও তিনি অভিযোগ করেন৷ তাঁর দাবি, বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে সংখ্যালঘুরা ভাল আছেন৷ গুজরাতে সংখ্যালঘুরা অনেক বেশি উন্নত৷ তাঁদের অনেকেই কারখানার মালিক৷ অনেকে BMW গাড়ি চড়ে বলেও দাবি করেন দিলীপ ঘোষ৷ সেই কারণেই এ রাজ্য থেকে সংখ্যালঘুরা দলে দলে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে কাজ করতে যাচ্ছেন বলেও দাবি করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি৷ তবে এই পরিস্থিতি বেশিদিন চলবে না বলেও তিনি দাবি করেন৷ তাঁর দাবি, চালাকির রাজনীতি শেষ হওয়া প্রয়োজন৷

                উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত-সহ একাধিক রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফলে দেখা গিয়েছে সংখ্যালঘু ভোটারদের একটি অংশ ক্রমশ বিজেপির প্রতি আস্থাশীল হচ্ছেন৷ পশ্চিমবঙ্গেও পরিস্থিতি বদলাচ্ছে বলে একাধিকবার দাবি করেছেন বিজেপির নেতারা৷ তিন তালাকের বিরুদ্ধে মামলা করে জয়ী ইসরত জাহান ও তাঁর আইনজীবী নাজিয়া ইলাহি খানও এখন বিজেপির সদস্য৷ এদিনের সভায় তাঁরাও উপস্থিত ছিলেন৷ তাঁদের সামনে রেখেই কার্যত বঙ্গের সংখ্যালঘু ভোটারদের মন পাওয়ার চেষ্টা করছে বিজেপি৷ 

No comments:

Post a Comment

loading...