Saturday, 24 March 2018

ইলেকট্রনিক প্রসেসিং সিস্টেম ’দিয়ে চুরি রুখতে গ্রামে গ্রামে নজরদারি

ওয়েব ডেস্ক, ২৪ শে মার্চ :-  রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “ইলেকট্রনিক প্রসেসিং সিস্টেমের মাধ্যমে রেশন ডিলারের সঙ্গে খাদ্য ভবনের সরাসরি যোগাযোগ থাকবে। আগামী আর্থিক বছরেই এটি কাজ করা শুরু করবে । কোনও গ্রাহক সংশ্লিষ্ট ডিলারের কাছ থেকে রেশন পণ্য কোনও সপ্তাহে না নিলে, তা ওই মেশিনের মাধ্যমে খাদ্যভবন জেনে যাবে। ফলে পরের সপ্তাহে সেই মজুত পণ্য বাদ দিয়ে গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী বাকিটা বরাদ্দ করা হবে। এই ব্যবস্থায় কোনও বেনিয়ম হবে না।” গণবণ্টনে ‘চুরি’ রুখতে গ্রামে–গ্রামে রেশন ডিলারদের সঙ্গে খাদ্য ভবনের সর্বদা যোগাযোগ রাখার জন্য  ‘ইলেকট্রনিক প্রসেসিং সিস্টেম’ চালু করছে রাজ্য সরকার । পরিবেশকরাও এই সার্ভার সঙ্গে যুক্ত  থাকতে পারবেন ।
                                                                            

 এই ইলেকট্রনিক প্রসেসিং সিস্টেম ব্যবস্থায় সরাসরি গ্রাহকরাই রেশন পণ্য নিয়ে ওই মেশিনে এন্ট্রি করতে পারবেন  বলে খাদ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। যাতে রেশন ডিলাররা মেশিনে এন্ট্রির সময় কোনও কারচুপি না করতে পারেন।বিভিন্ন সূত্রে  খাদ্য দফতর অভিযোগ পেয়েছে জঙ্গলমহলে দু’টাকা কেজি চালে সবচেয়ে বেশি বেনিয়ম হয়েছে । তাছাড়া কেরোসিনকে ঘিরেও নানান বেনিয়ম চলছে বলে অভিযোগ।

 রাজ্য জুড়ে গণবন্টন ব্যবস্থার দুর্নীতি রুখতে রাজ্য সরকার এরকম পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে । ইলেকট্রনিক প্রোসেসিং সিস্টেম চালু করতে ইতিমধ্যেই প্রক্রিয়া শুরু করেছে রাজ্য সরকার ।  কোন পরিবেশককে কতটা  রেশন  দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে রেশন ডিলারের কাছে কত পরিমাণ পণ্য গিয়েছে, কিংবা রাজ্য জুড়ে প্রত্যেকটি রেশন দোকান থেকে এক সপ্তাহে কত পণ্য গ্রাহকরা নিয়েছেন, সব তথ্যই থাকবে রাজ্য সরকারের নজরে ।

No comments:

Post a Comment

loading...