Tuesday, 20 March 2018

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলের মিছিল কেন্দ্র করে দুইসম্প্রদায়ের মধ্যে মারামারি : ভাগলপুরে

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অশ্বিনী কুমার চৌবের  ছেলে অরিজিত শশওটের  নেতৃত্বে শনিবার বিজেপি, আরএসএস এবং বজরং দলের  কর্মীদের একটি উত্তেজনামূলক স্লোগান যুক্ত মিছিল ভিত্তি করে দুইসম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা ছড়ায় । 



  হিন্দু নববর্ষের প্রাক্কালে ভারতীয় নববর্ষের জাগরণ সমিতি কর্তৃক সংগঠিত মিছিলটি 15 কিলোমিটার পথের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়, যার মধ্যে কমপক্ষে অর্ধ ডজন ডজন মুসলিম-আধিপত্যপূর্ণ এলাকা অন্তর্ভুক্ত ছিল। নাথনগর থানার অন্তর্গত মেদনিচকএ সংঘর্ষটি ঘটে ।
 সূত্র জানায়, মোটর সাইকেল মিছিলটি প্রায় 3.45 টা এলাকার ভেতর দিয়ে যাওয়ার সময় পাথর পাথর বৃষ্টির সূত্রপাত । লালমাতিয়া ভারপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার  সঞ্জীব কুমার, যিনি নাথনগরে নিয়োজিত ছিলেন, তিনি বলেন, অংশগ্রহণকারীদের  কিছু স্লোগান ছিল "উত্তেজনা প্রবন " ছিল যার জন্য এই সংঘর্ষের সূত্রপাত ।
  এই অভিযোগ নসাৎ করেন  শশওট  , যিনি  বিগত নির্বাচনের ভাগলপুর থেকে বিজেপি প্রার্থী হিসাবে ব্যর্থ হন, বলেন: "এটি একটি মোটরসাইকেল মিছিল ছিল। পাথর বৃষ্টি  যখন  ঘটে তখন আমি ঘটনাস্থল থেকে প্রায় 3-4 কিলোমিটার দূরে ছিলাম। পুলিশ জীপ আমার থেকে এগিয়ে ছিল I আমি যা বলছি  তা নিশ্চিত করতে ঘটনার ভিডিও ক্লিপ চেক করতে পারেন। "
    স্বাস্থ্য ও পারিবারিক কল্যাণ কেন্দ্রের  মন্ত্রী চৌবে  বলেন, "আমি গর্বিত অরিজিৎ  আমার ছেলে। সব বিজেপি কর্মী আমার ছেলের মত, হিন্দু নববর্ষ উদযাপন করা, ভুল কিছু ? না, ভারত মা কথাটা বলা ভুল ? না, বন্দেমাতরম কথাটা বলা ভুল ?  "
   মিছিলটিতে অংশগ্রহণকারী একটি স্থানীয় বিজেপি নেতা সঞ্জীব কুমার বলেন, মোটরসাইকেলে আরো এগিয়ে যাওয়ার সময় পাথর ছোড়া হয়। "কিছু লোক  স্লোগান দিলে, কিছু মুসলমান প্রতিক্রিয়া দেখায়। কিছু সময় পরে, পাথর ছোড়া শুরু হয় , "তিনি বলেন ,
        দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে পাথর-ছোরাতে তিন পুলিশ কর্মী  আহত হয়েছে। নাথনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো। আব্দুর রাজ্জাক বলেন, "আমাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা সত্ত্বেও, প্রায় 45 মিনিটের পাথর ছোড়াছড়ি হয়েছে ।" ভাগলপুর এসএসপি মনোজ কুমার জানান, অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে পুলিশ একটি মামলা করেছে।

যদিও কোন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি , তবে বেশিরভাগ  নাথনগরে দোকানই বন্ধ রয়েছে। পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীকে  ১৮টি  সংবেদনশীল জায়গায় মোতায়েন করা হয়েছে । 

No comments:

Post a Comment

loading...