Saturday, 21 April 2018

কথা রাখলেন না কেন্দ্রীয় ভারী শিল্প দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, বন্ধ হলো শতাব্দী প্রাচীন বার্ন স্ট্যান্ডার্ড

ওয়েব ডেস্ক ২১সে এপ্রিল ২০১৮ :অবশেষে বার্নপুরের   বার্ন স্ট্যান্ডার্ড বন্ধ হলো , রেখে গেলো এক রাশ অনিশ্চয়তা শ্রমিকদের জন্য  ৷ কাকতালীয় ভাবে শতবর্ষের দৌড় গোড়ায় এসে রেলওয়ে ওয়াগন তৈরী কারখানাটি বন্ধ হলো ৷ গত ৪ এপ্রিল রুগ্ন বার্নস্টেন্ডার্ড বন্ধ করার সিলমোহর দেয় কেন্দ্রীয় সরকার , তারপর গত বুধবার কারখানা বন্ধের নোটিশ দেওয়া হয় , সেই মতো শেষ দিন কাজ করেই শ্রমিকরা কারখানা থেকে বেরিয়ে আসেন ৷
     কিন্তু কথা হচ্ছে , কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় থাকা সত্ত্বেও কেন বার্ন স্ট্যান্ডার্ড বাঁচানো গেলোনা তার সদুত্তর কেউ দিতে পারছেনা ৷
           

প্রসঙ্গত ২০১৪  সালে লোকসভা নির্বাচনের সময় বাবুল সুপ্রিয় মহাশয় অঙ্গীকার করেছিলেন যে তিনি যদি এই কেন্দ্রে জেতেন তাহলে কিছুতেই বার্ন স্ট্যান্ডার্ড কোম্পানি বন্ধ হতে দেবেননা  ৷

                            তাহলে আজ কেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তার শপথ ভুলে গেলেন ?এই নিয়ে সাধারণ কর্মীরা প্রশ্ন তুলেছেন  ৷বিএমএসের সভাপতি তথা বার্ন স্ট্যান্ডার্ড বাঁচাও কমিটির কনভেনর বলেন বার্ন স্ট্যান্ডার্ড বাঁচাতে আর কোনো আন্দোলন কাজে আসবেনা  ৷ তাহলে কিসের ভিত্তিতে তিনি এতো গুলো মানুষকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলন করেছিলেন ?শুধু ভোট পাওয়ার আশায় ? ঠিক যেই ভাবে দিনের পর দিন বামপন্থীরা আন্দোলন করেছিলেন শুধু সংগঠন মজবুত করার লক্ষে ,মানুষের সুরাহা কিছুই হয়নি  ৷আসানসোলের মানুষ প্রশ্ন তুলেছেন  ৷ 
              শ্রমিক সংগঠনের তরফ থেকে ওনার কাছে যাওয়া হলেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় কোনো পাত্তাই তাদের দেয়নি , সূত্রের খবর ৷ এখন শ্রমিকরা কি করবেন জানেননা , কবে অবসরের টাকা পাবেন , কোম্পানির আবাসন ছেড়ে যাওয়ার পর তারা কোথায় গিয়ে থাকবেন এসব নিয়েই তাদের রাতের ঘুম ছুটেছে ৷ ১৯৭৬ সালে কারখানাটির রাষ্ট্রায়ত্তকরন হয় , এই কারখানাটি রেলের ওয়াগন তৈরী কারখানা হিসেবে পরিচিত , এবং রেল মন্ত্রী থাকাকালীন মমতা ব্যানার্জি  রেলের তরফ থেকে অধিগ্রহন করেন ৷ কারখানাটিতে ২৬২ জন স্থাহি, এবং ২৫০ জন অস্থায়ী শ্রমিক ছিলেন ৷ 

No comments:

Post a Comment

loading...