Sunday, 22 April 2018

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম যখন কমছিল তখন শুল্ক বাড়িয়েই চলেছিলেন অরুন জেটলি

ওয়েব ডেস্ক, ২২ শে  এপ্রিল ২০১৮ :বিজেপি সরকারের জমানায় পেট্রোলের দাম আজ সর্বোচ্ছ ৭৪ .৪০টাকা প্রতি লিটার  পৌঁছিয়েছে । বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনে এটাই সর্বোচ্চ পর্যায় এখনো অবধি , আর  ডিজেলের দাম  ₹ ৬৫.৬৫  এর উচ্চতার রেকর্ডে ছুঁয়েছে । তবে গ্রাহকদের সুবিধের জন্য এক্সসাইস ডিউটি  কিছুটা কমানো হয়েছে । উল্লেখ্য রাজ্য সরকারের অধীনে তেল সংস্থাগুলি গত জুন মাস থেকে  প্রতিদিনকার তেলের দাম ওঠানামার ওপর তেলের দাম ঠিক করে থাকে , আজ রবিবার তারা ১৯ পয়সা বাড়িয়েছে  প্রতি লিটার পেট্রল এবং ডিজেলে  ।
   


সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে ,আন্তর্জাতিক বাজারে পেট্রোলের দাম ১৩ পয়সা , আর ডিজেলের দাম ১৫ পয়সা বাড়ার জন্যই , তেলের দাম বাড়াতে বাধ্য হয়েছে সরকার  । কিন্তু তেল মন্ত্রণালয়ের থেকে বরংবার শুল্ক কমানোর আবেদন করা সত্ত্বেও অর্থ মন্ত্রী অরুন জেটলি কর্ণপাত  করেননি ,শুধু তাই নয় ১ লা ফেব্রুয়ারী বাজেটও কোনোরকম শুল্ক ছাড় দেননি তেলের ওপর ।

শুধু তাই নয় দক্ষিণ পূর্ব দেশগুলির মধ্যে ভারতের খুচরো তেলের দাম সবচেয়ে বেশি ।তথ্য বলছে নভেম্বর ২০১৪ থেকে জানুয়ারী ২০১৬ মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারে ৯ বার তেলের দাম পড়েছে ,কিন্তু অরুন জেটলি মহাশয় একবারও  তেলের দাম কমাননি উল্টে তিনি শুল্ক বাড়িয়েই গেছেন ।

 পরবর্তী কালে কেন্দ্র থেকে রাজ্য গুলিকে নির্দেশ দেওয়া  হয় তেলের ওপর থেকে ভ্যাট কমানোর জন্য ,কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হলো বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলি একবারের জন্যেও কর্ণপাত করেনি । নভেম্বরের ২০১৪ থেকে জানুয়ারী ২০১৬ মধ্যে শুল্ক বাড়াতে বাড়াতে প্রতি লিটার পেট্রলে ₹১১.৭৭ টাকা , আর প্রতি লিটার ডিজেলে ১৩ .৪৭ টাকায় গিয়ে পৌঁছয় ।এই ১৫ মাসে , কেন্দ্র সরকার ২৪২০০০ হাজার কোটি টাকা রোজগার করে পেট্রল থেকে , যেখানে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমছিল   । কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে তেলের দাম যখন কমছিল কেন অরুন জেটলি মানুষকে  সুরাহা না দিয়ে তেলের শুল্ক বাড়িয়েই চলেছিল ?

তথ্য সূত্র -দ্য হিন্দু 

No comments:

Post a Comment

loading...