Monday, 25 June 2018

এবার রাজ্যের বিজেপি সহ সভাপতি চন্দ্র বসু দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন


ওয়েব ডেস্ক ওয়েব ডেস্ক ২৫ই জুন ২০১৮ :ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় নিন্দার ঝড়টা অনেক দিন আগেই উঠেছিল , এবং সেটা এখনও চলছে ।কদর্য ভাষার রাজনীতি, যে, এই বাংলার রাজনীতি নয় বহুবার ইলেক্ট্রিনিক মিডিয়াতে অনেকেই বার্তা দিয়েছেন ,কিন্তু দিলীপ ঘোষ যে দিলীপ ঘষেই আছেন   বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত হয়তো এর  জন্যই  সহ্যের বাঁধ ভেঙে গিয়ে বিজেপি সহ সভাপতি চন্দ্র বসু  টুইটে  দিলীপ ঘোষের নেতৃত্ব নিয়ে সরাসরি প্রশ্ন তুলে বসলেন
চন্দ্র বসুর আর একটা পরিচয় আছে , তিনি বসু পরিবারের অন্যতম সদস্য ।তিনি বুধবার সরাসরি বিজেপির গঠনতন্ত্র নিয়ে নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ।তিনি অভিযোগ করেন সভাপতি মনোনীত প্রক্রিয়ায় নয়, বরং নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হওয়া উচিত তার এহেন টুইটে রাজনৈতিক মহলে আলোড়ন পড়েগেছে ।তার এই বিদ্রোহী টুইট কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নজরেও এসেছে কৌতূহলী সাংবাদিকদের তিনি বলেন , ‘বাংলায় বিজেপির নেতৃত্ব সংকট রয়েছে৷ দিলিপবাবু বলেছেন, তিনি ডিসেম্বর পর্যন্ত সফলভাবে সভাপতির মেয়াদ শেষ করবেন। দলের আর একটা অংশ বলছে, অন্য কেউ সভাপতি হবেন৷ এই জল্পনা নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে একটা স্পষ্ট বার্তা দেওয়া উচিত৷ কর্মীরা আমাকে ফোন করেও বিষয়টা জানতে চাইছেন৷ নেতৃত্বে কে আছে সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে৷’’ বিশেষত বিজেপি সভাপতি বদলের একটা হাওয়া শোনাগিয়েছিল কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্বের মুখে , তারই পরিপ্রেক্ষিতে পরের কথাগুলি বলেন চন্দ্র বাবু৷
যদিও চন্দ্র বাবুর দাবি অনুসারে অমিত শাহ কেও তিনি এবিষয়ে অবগত করেছেন যেটা ভালো চোখে নেয়নি বিজেপি নেতৃত্ব এবিষয়ে দিলীপ বাবু বলেন ‘‘বিজেপি গণতান্ত্রিক পার্টি৷ সকলের বলার অধিকার আছে। কিন্তু কোন কথা কোথায় বলা উচিত সেটা ভাবতে হবে৷ উনি যা বলছেন তা পার্টির বাইরে বলার বিষয় নয়৷ দলের একটা ডিসিপ্লিন আছে৷’’ বিদ্যজনেদের একাংশের মত, তাই যদি হয় তাহলে , পুলিশকে মার দেওয়া উচিত , শাসক দলের কর্মীদের লাশ ফেলা উচিত , এধরণের কথা কোন ডিসিপ্লিনের মধ্যে পড়ে ? তার কোনো সদুত্তর দিলীপ ঘোষের কাছ থেকে এখনও পাওয়া যায়নি

No comments:

Post a Comment

loading...