Friday, 15 June 2018

আর.এস.এস. , বজরং দল এবং হুরিয়াত কনফারেন্সকে একই আসনে বসাল আমেরিকার তদন্ত সংস্থা সি.আই.এ

ওয়েব ডেস্ক ১৫ই জুন ২০১৮ : যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি (সিআইএ) দ্বারা প্রকাশিত সম্প্রতি  বিশ্ব ফেসবুকে  সংঘের সহযোগী বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) এবং বজরং দলকে জঙ্গি ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে।
 সূত্রের খবর গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে ব্যাপারটা ভালো ভাবে নেওয়া হয়নি , তারা এখন আইনি পরামর্শ নিচ্ছে আতঙ্কবাদীর ছাপ মুছে ফেলার জন্য । বজরং দলের তরফ থেকে মনোজ ভার্মা বলেন " কয়েক দিন আগে ব্যাপারটা আমাদের নজরে এসেছে । আমরা পরামর্শদাতাদের পরামর্শ দিচ্ছি এর মোকাবেলার জন্য । "


'রাজনৈতিক ও নেতাদের চাপ সৃষ্টিকারী  গোষ্ঠী  ' নামে এই দুটি সংগঠনকে জঙ্গি ধর্মীয় গোষ্ঠী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে সি .আই.এর তরফ থেকে । একই শিরোনামে  ক্ষমতাসীন বিজেপির আদর্শী হিসেবে পরিচিত  জাতীয় স্বয়ংসেবক সংঘকে  (আরএসএস) একটি জাতীয়তাবাদী সংগঠন হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে।
তালিকায় অন্যান্যের সংগঠনের মধ্যে হুরিয়াত কনফারেন্সকে  বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে, আর জামিয়াত উল্লা-ই হিন্দকে  (মাহমুদ মাদানি) একটি ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে বিবেচিত করা হয়েছে।
যদিও সংঘের নেতারা দাবি করেন  ধর্মীয় কট্টরপন্থার সাথে কোনো রকম কোনো সাদৃশ্য নেই তাদের দলের  বরং  তারা শুধুমাত্র  জাতীয়তাবাদী ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।
বজরং দলের এক নেতা বলেন "কেন কোন গোয়েন্দা সংস্থা আমাদের জঙ্গি সংগঠন  হিসেবে আখ্যা দেবে ? কে তাদের অধিকার দিয়েছে? আমাদের  আন্তর্জাতিক শাখা আছে,কিন্তু আমরা কখনও কাউকে অসুবিধে দিইনি । আমরা জাতীয়তাবাদী একটা সংগঠন ,এটা ঠিক করতে কি করতে হবে ,সেটা আমাদের দেখতে হবে, "।
গেরুয়া শিবিরের নেতারা এতেও ক্ষুদ্ধ , যে তাদের সংগঠনকে  হুরিয়াত কনফারেন্সের মতো সংগঠনের সাথে একই আসনে বসিয়ে দিয়েছে সি.আই. এ , প্রসঙ্গত হুরিয়াত কনফারেন্সকে চিরকালই বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন হিসেবে মনে করে এসেছে আর.এস.এস  ।

No comments:

Post a Comment

loading...