Wednesday, 27 June 2018

প্রেম করার অপরাধে ,নীতিপুলিশ মাথা কমিয়ে দিল যুবতীর : বিজেপি শাসিত অসমে

ওয়েব ডেস্ক ২৭ ই জুন  ২০১৮ :ভারতীয় জনতা পার্টি যেই রাজ্যেই সরকার গঠন করেছে সেই রাজ্যে ,নয় ধর্ষণ , না হলে দাদাগিরি কিছু না কিছু ঘটছেই ।এবার নব তম সংযোজন ঘটল অসমে , কপথ কপোতীদের ভালোবাসার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে 'নীতিপুলিশ' ।তাদের দাদা গিরি ক্রমস্য বেড়েই চলেছে , প্রেম করার অপরাধে এবার এক যুগলকে বেধড়ক পিটালেন তারা ।গাছের ডাল দিয়ে এক যুবতীকে ,বেদম প্রহার করা হয় , অনেক আর্তনাদ সত্ত্বেও মেয়েটিকে রেহাই দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ নীতিপুলিসের বিরুদ্ধে ।মেয়েটি এবং ছেলেটিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে । এখনো প্রজন্ত এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।


‘নীতিপুলিশ’-এর দাদাগিরির ঘটনা এ নিয়ে তিনবার ঘটল অসমে । জুনের গোড়ায় কার্বি আংলংয়ে শিশু পাচারকারী অভিযোগে পিটিয়ে মারা হয় দুই যুবককে। আর বিয়ে না করে ওই ভাবে ঘোরাফেরা করার দায়ে গত সপ্তাহে গোয়ালপাড়া জেলায় বাইক-আরোহী এক যুগলকে প্রচণ্ড মারধর করে নীতিপুলিশরা, ।পুলিশ সূত্রের খবর নগাঁও জেলার তুবুকি গ্রাম থেকে এক যুবক ভালোবাসার টানে তার প্রেমিকাই যিনি ঝুমুরমুর গ্রামে বাসিন্দা  ,তার সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন  ,এই সময় গ্রামের মহিলা সহ কিছু লোক তাদের ঘিরে ফেলে , তাদের দাবি ছেলেটি এবং মেয়েটি তারা দুজনেই অনত্র বিবাহিত , এটা তাদের বিবাহ  বহির্ভূত সম্পর্কের ।এদিন গ্রামবাসীরা যুবকটিকে টেনে হিচড়ে মেয়েটির বাড়ির থেকে বের করে আনে , সঙ্গে চলে অত্যাচার , মেয়েটি .ছেলেটাকে বাঁচাতে এলে তার ওপর চড়াও হয় গ্রামবাসীরা । মেয়েটির মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া হয় , এবং লাঠির বাড়িও দেওয়া হয় ।নগাঁও জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিপুল দাস বলেছেন, ‘‘গ্রামবাসীরা আমাদের খবর দেন সোমবার সকালে। সেখানে পৌঁছলে গ্রামবাসীরা ওই যুগলকে আমাদের হাতে তুলে দেন। ওঁরা (যুগল) গুরুতর জখম ছিলেন। পুলিশ ওঁদের হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে।’’

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আনন্দ বাজার পত্রিকা "

No comments:

Post a Comment

loading...