Friday, 20 July 2018

সংখ্যা রাখতে হাত জোর করতেও বাধ্য হলেন অমিত শাহ

ওয়েব ডেস্ক ২০শে জুলাই ২০১৮ : সংখ্যা থাকা সত্ত্বেও অনাস্থার বিরুদ্ধে ভোট জোগাড় করতে গিয়ে কার্যত হাত জোড় করতে বাধ্য হলেন অমিত শাহ ।প্রধানমন্ত্রীর একনোবিষ্ট সৈনিকের যে এরকম দশা হবে , অতি বিরোধীও হয়তো কল্পনা করতে পারেনি । কিন্তু এমনটা হয়েছে কারণ , যখন দেখাযায় বিজেপির নিজেস্ব কুড়ি জন সংসদ গরহাজির তখন বাধ্য হয়েই অমিত শাহজি কে ফোন ঘোরাতে হয় বিভিন্ন জায়গায় ।পরিস্থিতি বুঝে উদ্ধব ঠাকরে, চন্দ্রশেখর রাও, নবীন পট্টনায়েক, এডিএমকে-র মতো শরিক ও ‘বন্ধু’ নেতাদের অনেকটা হাতজোড় করে অমিত অনুরোধ করেন, তাঁরা যেন ভোটদানে বিরত না থেকে সরকারের পক্ষেই ভোট দেন।


Image result for pics of Amit Shah

কিন্তু সেই কৌশলই বা কাজে এল কই! আগের দিন মোদী সরকারকে সমর্থন করা নিয়ে জারি করা হুইপ প্রত্যাহার করে বৃহস্পতিবার রাতে শিবসেনা জানাল, কাল সকালে সমর্থনের বিষয়টি তারা চূড়ান্ত করবে। তবে হাল না-ছেড়ে রাত পর্যন্ত সংসদ ভবনে থেকে নিজের দলের সাংসদদেরও প্রত্যেককে ফোন করেন অমিত। আজ নৈশভোজ থেকে কাল মধ্যাহ্নভোজ— একসঙ্গে করতে হবে। এমনকি হাসপাতালে ভর্তি এক সাংসদকে তুলে এনে ভোট করানোর কথা ভাবছে অমিত-শিবির।
বিজেপির এমন দশা দেখে কংগ্রেসের রণদীপ সুরজেওয়ালার কটাক্ষ, ‘‘এতই যদি সংখ্যার দম্ভ, তা হলে কেন জনে জনে প্রণাম করতে হচ্ছে অমিত শাহকে? গত লোকসভার সংখ্যা ধরে রাখতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে! দেশের মানুষ মোদীর প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে বসে আছেন। অপেক্ষা শুধু আগামী লোকসভা ভোটের।’’ কংগ্রেসের আর এক নেতার কথায়, ‘‘লড়াইটা কৌরব-পাণ্ডবের। কৌরবের সংখ্যা আর দম্ভ দুটোই বেশি। আখেরে জয় হয় পাণ্ডবের সত্যেরই।’’ সাংসদ সংখ্যার অনুপাতে কাল বিজেপি সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় পেলেও কংগ্রেসের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে মাত্র ৩৮ মিনিট!
অনাস্থা প্রস্তাবের বিরুদ্ধে জেতার জন্য অন্য পন্থাও নিল বিজেপি , জয় পণ্ডা যিনি বিজেপি ছেড়ে বিজেডিতে চলে গেছেন তার ইস্তফাই আজ হটাৎ করে গৃহীত হয়েছে বিজেপি অফিসে ।এখানেই শেষ নয় শত্রুঘ্ন সিন্হাকেও যা ক্যাটাগরি নিরাপত্তা বলয়
দিয়ে তুষ্ট করা হয়েছে । এখন শত্রুঘন চুপ । মোদির বিরুদ্ধে তার কোনো মন্তব্য নেই ।

No comments:

Post a Comment

loading...