Wednesday, 18 July 2018

রাজ্যের অভাবনীয় উন্নতি দেখে ,কেন্দ্রের কাছে ঋণ মকুবের জন্য সুপারিশ করবে অর্থ কমিশন

ওয়েব ডেস্ক ১৮ই জুলাই ২০১৮ :শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্যের অভাবনীয় সাফল্যের জন্য অর্থ কমিশন  ভূয়সী প্রশংসা করল । গত বাম সরকারের আমলে রাজ্যের যেই বেহাল দোষ হয়েছিল , সেখান থেকে এতো অল্প সময়ে তৃণমূল সরকার যে ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে , তাতেই অর্থ কমিশন তাজ্জব ।মঙ্গলবার রাজ্য সরকারের সাথে বৈঠক করার পর অর্থ কমিশনের চেয়ারম্যান নন্দকিশোর সিংহ এই মন্তব্য করেন ।মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও বলেছেন, ‘‌খুবই সদর্থক আলোচনা হয়েছে। বিভিন্ন ইস্যুতে পুঙ্খানুপুঙ্খ আলোচনা হয়েছে। আমাদের আশা, ঋণের বোঝা কমানোর কথা বিবেচনা করবে কমিশন।’‌ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে ছিলেন অর্থমন্ত্রী ড.‌ অমিত মিত্র, মুখ্য সচিব মলয় দে–‌সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সচিবরা। ওপর প্রান্তে অর্থ কমিশনের তরফ থেকে ছিলেন ৫ সদস্যের একটা টীম ।

Image result for pics of mamta banerjee + nand kishore singh

এন কে সিং এদিন বলেছেন, ‘‌আলোচনায় উঠে এসেছে ৫–‌৬টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। গত বেশ কয়েকবছরে অসামান্য উন্নয়নমুখী কাজ হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। বিশেষত স্বাস্থ্য, শিক্ষার সঙ্গে রাজস্ব আদায়ে। জিডিপি হারও অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। যার প্রত্যক্ষ ফলাফলে কর্মসংস্থানের সুযোগ ঘটেছে।’‌ তাঁর কথায়, ‘‌পশ্চিমবঙ্গ যেভাবে এগিয়েছে, কর্মসংস্থান, তথ্য প্রযুক্তি ও চর্মশিল্পে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। উদাহরণ সৃষ্টি করেছে সারা দেশেই।’‌ এদিকে কমিশনের কাছে রাজ্যের বক্তব্য, তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর গত ৭ বছরে ২ লক্ষ ২৫ হাজার কোটি টাকা সুদ ও আসল–‌সহ ফেরত দিতে হয়েছে কেন্দ্রকে। চলতি আর্থিক বছরেই ৪৬ হাজার কোটি টাকা দিতে হয়েছে। এন কে সিং আশ্বাস দিয়েছেন, ‘‌এর স্থায়ী সমাধান খুঁজে বের করতে হবে। ঋণ মকুব বা পুনর্গঠনের ব্যাপারে সুপারিশ করব আমরা।’‌
রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কমিশনের কাছে অভিযোগ জানানো হয় ,রাজ্য সরকারকে অন্ধকারে রেখে অনেক প্রকল্পই কেন্দ্র সরকার বন্ধ করে দিয়েছে , যার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে বিপদে পড়তে হয়েছে ।৯০% রাজ্যবাসীকে  শিক্ষা , স্বাস্থ ,পানীয় জল, রাস্তা, বিদ্যুৎ, নারী ও শিশু কল্যাণ প্রকল্পে আওতায় নিয়ে আশা হয়েছে ।রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কেন্দ্রের তরফ থেকে আরো বেশি আর্থিক অনুদান দাবি করা হয়েছে ।











তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল"

No comments:

Post a Comment

loading...