Monday, 16 July 2018

জনপ্রিয়তার নিরিক্ষে নরেন্দ্র মোদিকে পেছনে ফেলে দিয়ে একনম্বর স্থানে মমতা

ওয়েব ডেস্ক ১৬ই ২০১৮ : সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো একাউন্ট নতুন কিছু নয় ,কিন্তু সেই ভুয়ো একাউন্ট সাফাই করতে গিয়ে টুইটার আবিষ্কার করল ,নরেন্দ্র মোদিকে পেছনে ফেলে দিয়ে ,জনপ্রিয়তার  তালিকায় একনম্বর স্থানে উঠে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।এ দেশে রাজনৈতিক নেতাদের তালিকায় সবার ওপরে বিরাজ করছেন শুধু মাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

বিশ্বের সমস্ত বড় রাজনৈতিক ব্যক্তির মতোই এ দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর অ্যাকাউন্টেও সাফাই অভিযান চালায় টুইটার। ফলাফল চমকে দেওয়ার মতো। টুইটার যে তালিকা প্রকাশ করেছে, তাতে ভুয়ো ফলোয়ার অ্যাকাউন্ট বা অনুসরণকারী ভুয়ো অ্যাকাউন্ট প্রায় প্রত্যেকেরই রয়েছে। দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে অনুসরণ করছে এমন অসংখ্য ভুয়ো অ্যাকাউন্ট রয়েছে। তার মধ্যে একদিনে ৩ লক্ষ ভুয়ো অ্যাকাউন্ট ছেঁটে ফেলল টুইটার!
গত মার্চ মাস থেকে এই সমীক্ষা চালাচ্ছে টুইটার। সাফাই করতে নেমে সবচেয়ে কম খাটতে হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অ্যাকাউন্টের জন্য। তাঁকে অনুসরণ করছেন এমন ভুয়ো অ্যাকাউন্টের সংখ্যা মাত্র ১০ হাজার ৩৩টি। মোদির ফলোয়ারদের মধ্যে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট যেখানে ২ লক্ষ ৮৪ হাজার ৭৪৬, সেখানে পিএমও বা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের ভুয়ো ফলোয়ার অ্যাকাউন্ট ১ লক্ষ ৪০ হাজার ৬৩৫টি। রাহুল গান্ধীর ১৭ হাজার ৫০৩টি। উল্লেখযোগ্যভাবে শশী থারুরের ছিল ১ লক্ষ ৫১ হাজার ৫০৯টি। সুষমা স্বরাজের ৭৪ হাজার ১৩২টি। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ৯১ হাজার ৫৫৫টি। অমিত শাহর ৩৩ হাজার ৩৬৩টি। এই সব ভুয়ো ফলোয়ার অ্যাকাউন্ট একদিনে সরিয়ে ফেলেছে টুইটার।
কাকতালীয় হলেও এটাই সত্যি আজকেই পশ্চিমবঙ্গে পা রাখছে নরেন্দ্র মোদী , তার আগেই এতো বড় একটা ঘটনা বিজেপিকে কিছুটা হলেও ব্যাক ফুটে ফেলে দিল বৈকি ।তৃণমূল এটা নিয়েই যে প্রচারে পুরোদস্তুর নামবে সেটা বলার অপেক্ষায় রাখেনা ।তবে এই ফলাফলে তৃণমূলের রাজ্যসভার দলনেতা তথা, দলের সর্বভারতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও’ ব্রায়েন একে বারেই বিস্মিত নন , তার কথায়, এখন ট্রেন্ড এটাই চলছে ।

তথ্য কৃতজ্ঞতা  স্বীকার "সংবাদ প্রতিদিন"

No comments:

Post a Comment

loading...