Saturday, 28 July 2018

অনাহারে মৃত্যু বিজেপি শাসিত ঝাড়খণ্ডে , প্রশাসনের তরফে ধামাচাপার চেষ্টা

ওয়েব ডেস্ক ২৮শে জুলাই ২০১৮ : গতকাল সারা ভারত উত্তাল হয়েছিল ,মোদির গড় হিসেবে পরিচিত দিল্লির মতো জায়গায়  ,একটি পরিবারের তিনটি শিশু অনাহারে মারা গিয়েছিলো । সেই ঘা শুকাতে না শুকাতে বিজেপি শাসিত ঝাড়খণ্ডে অনাহারে এক আদিবাসীর মৃত্যুর খবর এলো ।

Image result for pics of a dead body in hospital

একটি ৪০  বছর বয়েসী আদিবাসী ব্যক্তির স্ত্রী,  দাবি করেছেন যে তার স্বামী ঝাড়খন্ডের রামগড় জেলায় অনাহারে  মারা গেছেন, তাদের কাছে একটি রেশন কার্ড পর্যন্ত ছিল না।আদিম বীরহর জাতির  অন্তর্গত রাজেন্দ্র বীরহর গতকাল রামগড়জ থেকে ২0 কিমি দূরে মানদু  ব্লকের নাওয়াদিহ গ্রামে মারা যান। কিন্তু প্রশাসনের তরফ থেকে তার মৃত্যুর কারণ অসুস্স্থতা হিসেবে দেখানো হচ্ছে , ধামা চাপা দেওয়া হচ্ছে অভুক্তের ব্যাপারটি ।
শ্রী বীরহরের স্ত্রী শান্তী দেবী (৩৫) বলেন, তার স্বামী জন্ডিসে ভুগছিলেন,তাকে ডাক্তারও দেখানো হয়েছিল কিন্তু টাকার অভাবে  ডাক্তারের দ্বারা বিহিত ওষুধ তারা কিনতে পারেনি , সেখানে অনাহারের  ব্যাপারটাই স্বাভাবিক ।
রাজ্য সরকারের জনসাধারণের বিতরণ স্কিমের অধীনে ভর্তুকি দেওয়া খাদ্যের জন্য পরিবারটিতে  একটি রেশন কার্ড পর্যন্ত ছিলনা।
ছয় সন্তানের বাবা এবং সংসারে একমাত্র   উপার্জনকারী সদস্য ছিলেন এই রাজেন্দ্র বীরহর । তাকে  সম্প্রতি রাজেন্দ্র ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেসে ভর্তি করানো হয়েছিল  ,এবং সূত্রের খবর অনুসারে ছেড়েও দেওয়া হয় ।তবে বি.ডি.ও অফিসার স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন পরিবারটিতে রেশন কার্ড ছিলনা , তবে রাজেন্দ্র বীরহরের স্ত্রীর হাতে ১০,০০০ টাকা আর কিছু খাদ্য তুলে দিয়ে আসেন । বিদ্যজনেদের একাংশের মত মারা যাওয়ার পর প্রশাসন নড়ে চড়ে বসছে ? এই কাজটি আগে করতে পারল না । 

No comments:

Post a Comment

loading...