Friday, 31 August 2018

কালো টাকা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দাবিকে নস্যাৎ করল আরবিআই এর বার্ষিক রিপোর্ট ,পড়ুন

ওয়েব ডেস্ক ৩১শে ২০১৮  :ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংকের বার্ষিক রিপোর্টে প্রমাণিত হয়েছে যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর যেই  দাবি করেছিলেন নোটবন্দির জন্য কালো টাকা আটকাতে সক্ষম হয়েছে সরকার সেটা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ।৮  নভেম্বর ২০১৬ , যখন ৫০০  এবং ১০০০  টাকার নোট অবৈধ ঘোষণা করা হয় , তখন  নিষেধাজ্ঞার পিছনে মোদীজি ব্যাখ্যা করেছিলেন তার মূল উদ্দেশ্য হল  কালো টাকাকে দেশ থেকে নির্মূল করা ।


তবে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সাম্প্রতিক রিপোর্টে বলা হয়েছে যে ৮  নভেম্বর, ২০১৬  আগে  ১৫ ,৪১৭ .৯৩  নোটবন্দির নোট বাজারে ছড়িয়েছিল। নোটবন্দির পর দেখা যাচ্ছে  ১৫ ,৩১০ .৭৩ ভারতীয় নোট   ব্যাংকগুলিতে ফেরত আসে  , তার মানে প্রায় সব টাকাই ফেরত এসেছে ।
ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংকের সাম্প্রতিক এই রিপোর্টে মোদির জন্য আরও বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে । একেই তো  তিনি  এবং  তার মন্ত্রিপরিষদ  ব্যাখ্যা করতে সমস্যায় পড়ছে  কেন  হঠাৎ করে ৯০%    মুদ্রা প্রচলন অবৈধ ঘোষণা করেছিলেন এ নিয়ে । এই তড়িঘড়ি ঘোষণার  ফলে ভারতীয় অর্থনীতিতে ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে শুরু করে, যেসব  ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসাদাঁর যারা নগদ    লেনদেনের উপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল ছিল, তারা ব্যাপক ভাবে ক্ষতি গ্রস্তও হয় ।
 রিজার্ভ ব্যাংকের এই রিপোর্টটা পূর্ব  অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বারানের বর্তমান কেন্দ্র সরকারকে একহাত নেওয়ার একদিন পর বেরিয়েছে ।প্রসঙ্গত পূর্ব অর্থমন্ত্রী তার দীর্ঘ বক্তিতায় বলেছেন এই নোটবন্দি পৃথিবীর কোনো অর্থনীতিবিদই ভালো চক্ষে দেখেননি ।

No comments:

Post a Comment

loading...