Wednesday, 29 August 2018

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে অমিত শাহ

ওয়েব ডেস্ক ২৯শে ২০১৮ :গতকাল তৃণমূল ছাত্রপরিষদের প্রতিষ্ঠাদিবসে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া চ্যালেঞ্জ জানালেন বিজেপির সবভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে ।তিনি বলেন ‘‌মৃত্যুবরণ করব। বদনাম নেব না। বিজেপি–‌র বিরুদ্ধে লড়াই আমাদের চলবে। ওদের একটাই লক্ষ্য— মমতাকে আক্রমণ করা। একবার মমতা অনুমতি দিলে মাঠে–‌ময়দানে নেমে ফুটো কলসির কত দম, সেটা দেখে নেব। মমতা যদি চুপ করে থাকতেন, তাহলে আজও সিপিএমের বন্দুকের নলের সামনে আমাদের মাথা নিচু করে থাকতে হত।’ অভিষেকের আরও কটাক্ষ, ‘‌এই মেয়ো রোডে বিজেপি সভাপতি সভা করে জায়গাটা অপবিত্র করে গেছেন। গঙ্গাজল ছিটিয়ে আমাদের এখানে সভা করতে হবে। তাঁকে জানিয়ে দিতে চাই, তৃণমূল কোর্টেও যেতে, ভোটেও জেতে।’‌


তবে এটাও মনে রাখা দরকার  তৃণমূলের সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জির বিরুদ্ধে সিন্ডিকেট চালানোর অভিযোগ তুলেছিলেন এই  অমিত শাহ , যখন তিনি মেয়ো রোডে সভা করতে এসেছিলেন ,তার পরিপ্রেক্ষিতে আইনি নোটিশও পাঠিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । এদিন অভিষেক বাবু  বলেন, ‘‌বিজেপি–‌র কোনও লোকজন নেই। নেতারা শুধু বড় বড় ভাষণ দেন। বাংলার সংস্কৃতি বিজেপি জানে না। মেয়ো রোডে সভা করে বলে গেছেন, লোকসভায় ২২টা আসনে জিতবেন। ক্ষমতা থাকলে ২২টা বুথে আগে জিতে দেখা।’‌ অভিষেকের অভিযোগ, বিজেপি বাংলায় ধ্বংসের রাজনীতি শুরু করেছে। তিনি বলেন, ‘‌আমরা ধ্বংসের রাজনীতিতে বিশ্বাসী নই। বাংলাকে সাজিয়ে দিচ্ছেন মমতা। ক্ষমতায় আসার আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, ‌সিঙ্গুরের জমি ফেরত দেওয়া হবে। জমি ফেরত দেওয়া হয়েছে। মোদি বলেছিলেন, অনেক চাকরি হবে। বাংলার ছেলেদের তিনি চাকরি দিতে পেরেছেন, এটা অনুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়েও দেখতে পাওয়া যাবে না। তিনি লবডঙ্কা দিয়েছেন।’ বিজেপি–র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করে অভিষেক বলেন, ‘মমতার বিরুদ্ধে যিনি কুৎসা করেন, তাঁর ছাত্র‌যুবর বিরুদ্ধে লড়াই করার কোনও ক্ষমতা নেই। দিল্লি থেকে ভাড়া করে নেতা নিয়ে আসছেন। তাতে কোনও লাভ হবে না!’ বিদ্যজনেদের একাংশের মন্তব্য , বিজেপির অমিত শাহর মন্তব্য করার আগে ইকটু চিন্তা ভাবনা করা উচিত ছিল ,ওনার  হটাৎ করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর সিন্ডিকেট চালানোর অভিযোগটা একেবারেই ঠিক কাজ হয়নি  । অমিত বাবুর কোনো মন্তব্য করবার আগে সচেতন হওয়া আরো দরকার ছিল ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...