Saturday, 4 August 2018

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুমকি বিজেপি নেতার

ওয়েব ডেস্ক ৪ঠা অগাস্ট ,২০১৮ : বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের  খারাপ  প্রভাব কি  রাজ্য নেতাদের  মধ্যে পড়ল ? এটাই এখন মানুষের মনে উঁকি দিচ্ছে ।বীরভূম বিজেপির প্রাক্তন জেলা সভাপতি নির্মলচন্দ্র মণ্ডল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্ধৃত করে বলেছেন 'তোমার ভাইপো যদি খুন হয়ে যায়, তখন কী হবে দিদি'। উনি নিজেকে কি মনে করেন সেটা অবশ্য জানা যায়নি তবে বাংলার রাজনীতি কখনোই যে ইটা নয় সেটা ওনার জানার দরকার ছিল . অন্তত বিদ্যজনেদের একাংশের এটাই অভিমত ।

এই ঘটার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফ থেকে বারাসাত থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে এবং অবিলম্বে নির্মলচন্দ্র মণ্ডলকে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়েছে ।পুলিশ সুপারের দফতরের সামনে বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না করেই বলেন, তোমার ভাইপো যদি খুন হয়ে যায়, তখন কী হবে দিদি। পরোক্ষে অভিযোগের তির যে যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে ছিল, তা সহজেই অনুমেয়। এরপরই তীব্র সমালোচনা শুরু হয় রাজনৈতিক মহলে। বারাসত থানায় অভিযোগ দায়ের করে যুব তৃণমূল।
বিজেপি নেতা শুধু অভিষেককে খুনের হুমকি দিয়েই থেমে থাকেননি, তিনি এ প্রসঙ্গেই বলেন, কেরলে এখন আমাদের সঙ্গে সিপিএমের লড়াই হচ্ছে। ওরা একটা খুন করলে আমরা দুটো খুন করি। সিপিএম আরএসএসকে যমের মতো ভয় করে। সিপিএম মানে ক্রিমিনাল পার্টি অব ইন্ডিয়াকে আমরা যে ভাষায় জবাব দিচ্ছি কেরলে, এ রাজ্যেও সেই ভাষাতেই জবাব দেওয়া শুরু করব বলে হুঁশিয়ারিও দেন বিজেপি নেতা।বিজেপি নেতার এই প্রকাশ্য খুনের হুমকির প্রতিবাদে এফআইআর দায়ের করে তৃণমূলের যুব নেতা সম্রাট তপাদার বলেন, অভিষেকের গায়ে যদি আঁচড়ও লাগে তবে বাংলায় আগুন জ্বলবে। রাজনীতিতে মত পার্থক্য থাকতেই পারে, তবে ওই বিজেপি নেতা যেভাবে খুনের হুমকি দিয়েছেন, তা বাংলার রাজনীতিতে বিরল। অবিলম্বে ওই বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করতে হবে।
বিদ্যজনেদের একাংশের বক্তব্য , কেরলের কথা বলে বিজেপি ঠিক কি বোঝাতে চাইছে ,সেটা পরিষ্কার হওয়া দরকার ।খুন খারাপির রাজনীতি বা প্রতিহিংসার রাজনীতি যে বাংলার চল নয় সেটা অন্ত বিজেপি নেতাদের বোঝা উচিত ,এতে সমস্যার সমাধানের বদলে ,ঘণিভূতই বেশি হবে ।

No comments:

Post a Comment

loading...