Thursday, 23 August 2018

বিজেপি আমলে আদিবাসীদের হোস্টেলের অবস্থা নক্কারজনক , তারপরেও মেয়েদের উপবাসে উৎসাহিত করা হচ্ছে

ওয়েব ডেস্ক ২৩শে অগাস্ট ২০১৮ : ২০১৭  সালের ডিসেম্বর  থেকে জুলাই ২০১৮  সালের মধ্যে আদিবাসী গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্র (কার্ড ) বিজেপি শাসিত  তিনটি রাজ্যে মোট ৩২ টি সরকারি অনুদান গ্রহণপ্রাপ্ত আদিবাসী হোস্টেলগুলির  একটি জরিপে করে , এবং তাদের  তথ্যে উঠে আসছে  আদিবাসী হোস্টেলগুলি খুব সামান্য খাদ্য, অস্বাস্থকর  শৌচাগার, জীর্ন বাড়ির এসব সমস্যার সম্মুখীন বহু বছর ধরে  হয়ে আসছেন সেখানকার পোড়ুয়ারা ৷ ঝাড়খণ্ড, মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানের ৩২  টি হোস্টেলের ১ ,৭০০  শিক্ষার্থীর মধ্যে কার্ডের  জরিপটি উল্লেখ করে রাঁচির মান্দারের হোস্টেলটি সব থেকে নিকৃষ্টতম  ৷




কেন্দ্র ও রাজ্য দ্বারা অর্থায়নে, এই আদিবাসী হোস্টেলগুলি - ঝাড়খণ্ডে নয়টি, রাজস্থানের আটটি এবং মধ্যপ্রদেশে ১৫  টি - বাড়ি থেকে দূরঅবস্থিত আদিবাসীদের জন্য গড়ে তোলা হয়েছিল ৷ এসব হোস্টেলগুলির মধ্যে ঝাড়খণ্ডের হোস্টেলগুলি  সব থেকে খারাপ বলে চিহ্নিত হয়েছে , শতকরা ২৯ % নিবাসী খোলা আকাশে মলত্যাগ করে ৷ঝাড়খণ্ডে অনেক হোস্টেলে শুধু নামেই বাথরুম রয়েছে , সেগুলো একেবারেই ব্যবহারের উপযোগী নয় , শুধু তাই নয় মাস্টারমশাই থেকে পোড়ুয়ারা সবাই খোলা আকাশের নিচ্ছে মলত্যাগ করতে বাধ্য হন  ৷ শুধু তাই নয় ২৩ % মেয়েরা ঝাড়খণ্ডে এবং ১৭ % মেয়েরা রাজস্থানে , স্রেফ জলের অভাবে খোলো আকাশের নিচ্ছে স্নান করতে বাধ্য হন  ৷
এই তিনটি রাজ্যেই , প্রতি বিছানায় ১.৫ থেকে দুজন বরাদ্য যে খানে একজন হওয়া উচিত ,সরকার থেকে যা অনুদান দেওয়া হয় তাতে  পুষ্টি, বিশেষত প্রোটিন,  অপর্যাপ্তই থেকে যায়। আরো একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য হচ্ছে , ঝাড়খণ্ডে এই সব হোস্টেল গুলি অধিকতর বিদ্যা বিকাশ সমিতি চালায় , যাদের আবার আরএসএস এর সঙ্গে যোগ আছে, সেখানে পড়ুয়াদের সাম্প্রদিক গান যেমন গাওয়ানো হয় , তেমনি মেয়েদের উপবাসে উৎসাহিত করা হয়   ৷ 

No comments:

Post a Comment

loading...