Saturday, 25 August 2018

হিন্দু মহাসভার সাধারণ সম্পাদক: নাথুরাম গডসের আগে জন্মালে, আমিই গান্ধীকে মারতাম

ওয়েব ডেস্ক ২৫শে অগাস্ট ২০১৮ :মহাত্মা গান্ধীর সমন্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করলেন মহিলা বিচারপতি ড.‌ পূজা শাকুন পাণ্ডে। তিনি আবার ভারত হিন্দু মহাসভার সাধারণ সম্পাদকও। নিজের উত্তেজনার বশেই, বা কোনো কিছু দ্বারা প্ররোচিত হয়েই হোক , তিনি এমন একটা মন্তব্য করে বসেন যার জন্য সারা দেশ ছি ছি  করছে । একজন বিচারপতি হয়ে তিনি বলেন, যদি তিনি নাথুরাম গডসের আগে জন্মাতেন তাহলে তিনিই মহাত্মা গান্ধীকে হত্যা করতেন ।


আলিগড়ে দাঁড়িয়ে জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর ভক্তদের রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে ড.‌ পূজা বলেছেন, স্বাধীন ভারতে কেউ আবার মহাত্মা গান্ধী হতে চাইলে তাঁকে গুলি করে মারা হবে। এমনকি দেশভাগের জন্য মহাত্মা গান্ধীকে দায়ী করেছেন হিন্দু মহাসভার সাধারণ সম্পাদক। গান্ধীর জন্যই নাকি দেশভাগের সময় লক্ষাধিক হিন্দু মারা গিয়েছিলেন বলে তাঁর মত। ড.‌ পূজা বলেছেন, ‘‌গডসের আগে আমি জন্মালে নিজের হাতে মারতাম গান্ধীকে। ভারতকে ভাগ করার জন্য তিনিই দায়ী। দেশভাগের সময় লক্ষাধিক হিন্দু মারা যান। আবার কেউ যদি দেশভাগের চেষ্টা করেন, তাঁকে হত্যা করব আমি।’‌
অঙ্কের অধ্যাপক, হিন্দু মহাসভার এই নেত্রী আরও বলেছেন, ‘‌মহাত্মা গান্ধীকে কেন জাতির জনক বলা হয় তা জানি না। কোনও পিতা তাঁর দুই সন্তানকে কখনও আলাদা করতে পারেন না। গান্ধীর জন্যই দেশভাগের সময় প্রচুর হিন্দু মারা যান। গান্ধীকে তাই জাতির জনক বলাই উচিত নয়।’‌ নাথুরাম গডসেকে দেশভক্ত দাবি করে পূজা বলেছেন, ‘‌নাথুরাম গডসে প্রকৃত দেশভক্ত। ইতিহাসে তাঁকে অসম্মান করা হয়েছে। নতুন প্রজন্মের কাছে ভুল বার্তা যাচ্ছে। বিজেপি সরকার ইতিহাস পাল্টাক। গান্ধী দর্শন পাঠ্যবই থেকে বাদ দেওয়া হোক।’‌ এরই মধ্যে হিন্দু আদালত  স্থাপিত হয়েছে উত্তরপ্রদেশের মীরাটে , যার জন্য এলাহাবাদ হাই কোর্ট জেলা শাসককে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন ।আর এই হিন্দু আদালত গঠন করেছে "ভারত হিন্দু মহাস", যার সম্পাদক এই বিতর্তিক মহিলা ।





তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...