Wednesday, 1 August 2018

পরিত্যক্ত জমিতে শিল্প স্থাপনের পরিকল্পনা তৃণমূল সরকারের , নজির সৃষ্টি শুধু সময়ের অপেক্ষা

ওয়েব ডেস্ক ১লা অগাস্ট ২০১৮ :পরিত্যক্ত জমিতেও শিল্প যে স্থাপন করা যায় সেটা এতদিন খাতায় কলমে থাকলেও বাস্তবে সেটা করে দেখাচ্ছেন   রাজ্যের শিল্প মন্ত্রী অমিত মিত্র মহাশয় ।সৎ ইচ্ছে থাকলে সেটা বাস্তবায়নে যে অসম্ভব নয় সেটা আরো একবার প্রমাণিত ।বিদ্যজনেদের একাংশের মত অনুসারে  বামফ্রন্ট সরকার রাজ্যে ক্ষমতায় আসার আগে গঙ্গা পারে সারি সারি কারখানা ছিল , বামফ্রন্ট ক্ষমতায় আসার পর অনৈতিক জঙ্গি আন্দোলনের জন্য সেগুলো বিলুপ্ত হয়েছে  । এবার আবার নতুন করে শিল্প মমতার হাত ধরেই যে আসবে এনিয়ে কোনো দ্বিমত নেই  ।

Image result for amit mitra in vidhan sabha

তাই তৃণমূল সরকার পরিত্যক্ত জমি গুলো কে কাজে লাগাচ্ছে শিল্প তৈরির জন্য  ।সাধুবাদ পাওয়াটা সময়ের অপেক্ষা ছিল এখন সেটাও পাচ্ছেন রাজ্যের মন্ত্রী আমলারা  ।কোচবিহারে শিল্পবিকাশ কেন্দ্রের অব্যবহৃত জমিতে ২৪টি শিল্প ইউনিট বসানোর কাজ শুরু করেছে রাজ্য সরকার। সম্প্রতি বিধানসভায় এ কথা জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র। কোচবিহারের মোট ২০.৬৮ একর জমিতে এই ২৪টি ইউনিট বসানো হবে। ইতিমধ্যে ২১টি ইউনিটের জন্য শিল্পোদ্যোগীদের জমি দেওয়া হয়েছে।শিল্পমন্ত্রী আরও জানান, অব্যবৃত ২০.৬৮ একর জমি নেওয়া হয়েছে। সেখানে মোট ২৪টি শিল্প গড়তে উদ্যোগী রাজ্য। ২১টি ইউনিটকে জমি দেওয়া হয়েছে, শিল্পোদ্যোগীরা জমির টাকাও দিয়ে দিয়েছে। এই ২১টি ইউনিটের জন্য মোট ১৬.৫১ একর জমি দেওয়া হয়েছে। এই ২১টি ইউনিটে দু-হাজারেরও বেশি কর্মসংস্থান হবে। এই ২৪টি শিল্প ইউনিটে বিনিয়োগ করা হয়েছে ৬,৮৩১.৯৮ লক্ষ টাকা।প্রথমে ইউ শিল্প তালাকের জুটপার্ক করার কথা ভেবেছিলেন শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র। কিন্তু সরকার এখন মাল্টি প্রোডাক্ট পার্কের কথা ভেবেছে। ২১টি ইউনিটে মাল্টি প্রোডাক্টের কারখানা হয়েছে। সেখানে রাজ করছে ২০৩৮ জন। অর্থমন্ত্রী জানান, শুধু এখানেই নয়, আরও যে সমস্ত পরিত্যক্ত জমি রয়েছে, সেখানে শিল্পস্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
এখানেই শেষ না করে অমিত  মিত্র বলেন যেই সব কারখানা গুলো ঢুকছে সেই সব কারখানা যাতে পুনরুজ্জীবন পায় সরকারের সেই দিকেও তীক্ষ্ণ নজর আছে ।রাজ্যে  শিল্প ভবিষ্যতে যে আসবেই তা নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী শোনায় অমিত মিত্রের গলায় । 

No comments:

Post a Comment

loading...