Thursday, 16 August 2018

এবার খোদ মোদীর রাজ্য থেকেই একটি বিশাল শিশু পাচার চক্রের হদিশ পেল মুম্বাই পুলিশ

ওয়েব ডেস্ক ১৬ই অগাস্ট ২০১৮ : প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী  নিজের রাজ্য হিসেবে পরিচিত গুজরাট থেকে শিশুপাচার চক্রের একটা চাঁইয়ের সন্ধান  পেল মুম্বাই পুলিশ ।পুলিশের জালে ধরা পড়েছে রাজুভাই গামলেওয়ালা পঞ্চাশ বছরের এক পান্ডা ,যার সাগরেদদের হোয়াটস্যাপ নম্বরের সাহায্যে  থেকে পুলিশ তাকে প্রধানমন্ত্রীর গড় হিসেবে পরিচিত ,গুজরাট থেকে গ্রেফতার করেন।মুম্বই পুলিসের ৯ নম্বর জোনের ডিসিপি পরমজিত সিং দাহিয়া বললেন, ২০০৭ সাল থেকে আমেরিকায় শিশুপাচারের ব্যবসা শুরু করেছিল।


ওই বছরই ভুয়ো পাসপোর্ট মামলায় ধরাও পড়েছিল রাজুভাই। কিন্তু পরে ছাড়া পেয়ে যায়। রাজুভাই এই ১১ বছরে কমপক্ষে ৩০০ জন শিশুকে আমেরিকায় বিক্রি করেছে। পাচার হওয়া শিশুদের বয়স মোটামুটি ১১–১৬ বছরের মধ্যে। বেশিরভাগই হতদরিদ্র পরিবারের মেয়ে এবং অধিকাংশই গুজরাটের  বাসিন্দা। দাহিয়া আরও জানালেন, আমেরিকার কোনও গ্রাহকের কাছ থেকে বরাত পেলেই নিজের দলবলকে কাজে লাগিয়ে দিত রাজুভাই। তারা গুজরাটের নানান গ্রাম ঘুরে সেই সব দরিদ্র পরিবারের খোঁজ করত, যারা অর্থাভাবে নিজেদের সন্তানদের বিক্রি করতে সহজে রাজি হয়ে যেত। এছাড়া রাজুভাইয়ের সাঙ্গোপাঙ্গোরা এমন কিছু পরিবারের খোঁজ করত যারা নিজেদের সন্তানদের পাসপোর্ট ভাড়ায় দিতে রাজি হত। তারপর যে সব মেয়েদের সঙ্গে পাসপোর্টে থাকা ছবির সামান্য মিল থাকত, তাদের সাজিয়ে প্রায় ছবির মতো তৈরি করে কোনও ক্যারিয়ার বা বাহকের সাহায্যে পাচার করত আমেরিকায়। সেখানে শিশু বিক্রি করে ভারতে ফিরে এসে ওই ক্যারিয়ার পাসপোর্টগুলি আসল মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিত। কিন্তু পাসপোর্ট হোল্ডারের অনুপস্থিতিতে কী করে অভিবাসন দপ্তর তাতে স্ট্যাম্প মারত তা নিয়ে সন্দিহান মুম্বই পুলিস।স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে কিভাবে অভিবাসন দফতরের মতো জায়গায় এরকম দুর্নীতির ছোয়া লাগল ?আর কিভাবেই বা ওই সব পাসপোর্ট ক্যরিয়ার বা বাহকরা ফিরিয়ে আনতো বিদেশ থেকে ? কেননা সেই সময় তো আর সঙ্গে নিয়ে যাওয়া শিশু বা বাচ্চাটি থাকতো না । বিদ্যজনেদের একাংশের মন্তব্য এরকমও হয় বিজেপি শাসিত গুজরাটে ?




তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...