Friday, 10 August 2018

মুসলিম গ্রামের নাম পাল্টে ফেলার হিড়িক তুলেছেন বসুন্ধরা রাজের সরকার, সর্বত্রই নিন্দার ঝড়

ওয়েব ডেস্ক ১০ই জুলাই ২০১৮ :রাজ্যে একটার পর একটা ধর্ষণের ঘটনা ঘটে যাচ্ছে , নারী নির্যাতনের ঘটনা ভুরি ভুরি সেগুলোর কোনো চোখে পড়ার মতো আটকানোর প্রয়াস না করে রাজস্থান  নাম পালটানোর হিড়িকে মেতে উঠেছে । উত্তরপ্রদেশের পর এবার আসরে রাজস্থান। রাজ্যে আটটি গ্রামের মুসলিম নাম পালটে হিন্দু নামকরণ করল বসুন্ধরা রাজের সরকার। এই পদক্ষেপ ইতিমধ্যেই উসকে দিয়েছে বিতর্ক।জানা গিয়েছে, ‘মিঞা কা বাড়া’ গ্রামটির নাম পালটে করা হয়েছে মহেশনগর। রাজস্থানের বারমের জেলার এই গ্রামের নাম পালটালেও, পরিস্থিতি অপরিবর্তিত। রূপ আজও সেই এক। স্থানীয় বাসিন্দাদের মতে, গ্রামের পরিস্থিতি পালটানো সরকারের উদ্দেশ্য নয়।


রাজে সরকার চাইছে গ্রামগুলির নাম থেকে মুসলিম স্পর্শটুকু মুছে ফেলা। সব মিলিয়ে রাজস্থানে মোট আটটি গ্রামের নাম থেকে মুসলিম ছোঁয়া মুছে ফেলা হয়েছে। এই পদক্ষেপের সমর্থনে সরকারের যুক্তি, ওই গ্রামগুলি হিন্দু অধ্যুষিত, তাই মুসলিম নাম পালটে ফেলা হয়েছে। সরকারের এই পদক্ষেপকে সমর্থন জানিয়েছেন বাসিন্দাদের একাংশ। তাঁদের কথায়, আগে লোকে গ্রামের নাম শুনে মেয়ে বিয়ে দিতে চাইত না। এবার সেই সমস্যার সমাধান মিলেছে। সিওয়ানার বিজেপি বিধায়ক হামিরসিং ভায়াল জানান, গ্রামের নাম পরিবর্তনের দাবি বহু পুরোনো। ‘মিঞা কা বাড়া’ গ্রামটিতে মাত্র চারটি মুসলিম পরিবার রয়েছে। এছাড়াও এখানে একটি শিবমন্দির রয়েছে, তাই মহেশনগর নাম রাখা হয়েছে।চলতি বছরের শুরুতেই গ্রামগুলির নাম বদলের সিদ্ধান্ত নেয় রাজস্থান সরকার। এই মর্মে লিখিত আবেদন জানানো হয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে। সেখান থেকে অনুমতি মেলার পরই এই পদক্ষেপ করে রাজ্য সরকার। লক্ষণীয়ভাবে বিধানসভা নির্বাচনের কয়েক মাস আগেই এই পদক্ষেপ করেছে রাজস্থান সরকার। ফলে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা। বিরোধীদের অভিযোগ, ভোট ব্যাংকের জন্য মেরুকরণের রাজনীতি করছে বিজেপি সরকার।  বিদ্যজনেদের একাংশের প্রতিক্রিয়া অনুসারে গ্রামের নাম না পাল্টে যদি পরিষেবার উন্নতিতে মনোযোগ দিতো বসুন্ধরা রাজের সরকার তাহলে বুদ্ধিমত্তার পরিচয় পাওয়া যেত ।







তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "সংবাদ প্রতিদিন"

No comments:

Post a Comment

loading...