Wednesday, 29 August 2018

সিপিএম পাকিস্তান থেকে অস্ত্র কিনে বারাসাতে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ খাদ্যমন্ত্রীর

ওয়েব ডেস্ক ২৯শে ২০১৮ :সিপিএম  পাকিস্তান থেকে অস্ত্র এনে বারাসাতে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করলেন মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ।খাদ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগে রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে , সেই সঙ্গে বিদ্যজনেদের একাংশে বলেছেন , জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে তারা যত টুকু চেনেন , তিনি একশো শতাংশ নিশ্চিন্ত না হয়ে কখনো বিপ্লব দেবের মতো মন্তব্য করেননা ।



প্রসঙ্গত আমডাঙায় গণহত্যাকাণ্ডে সিপিএম-বিজেপির উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছোড়েন  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভার এই সদস্য, সঙ্গে বলেন ,'পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ হয়ে অস্ত্র আসছে বারাসতে। সেই অস্ত্র নিয়েই আমডাঙায় হামলা চালিয়েছে সিপিএম।' জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, সিপিএম বোমা আর গুলির লড়াই ছাড়া কিছুই বোঝে না। সেই কারণেই একে ৪৭, এসএলআর নিয়ে রেখেছে। বিজেপিও তাদের দোসর হয়েছে। দুই দল মিলে চক্রান্ত করছে। তারই জেরে রক্ত ঝরেছে আমডাঙায়। উল্লেখ্য, আমডাঙার তাড়াবেড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে এলাকা। নিহত হন দুই তৃণমূল কর্মী ও এক সিপিএম কর্মী। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন ১৮ জন। মন্ত্রী বলেন, আমরাও দেখতে চাই, তৃণমূলকে মারার কত দম রয়েছে ওদের। বাংলাদেশ থেকে অস্ত্র আনুক, কিংবা পাকিস্তান থেকে ওদের রক্ষা নেই, পুলিশের হাতে ধরা পড়তেই হবে। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, বিএসএফের সহায়তাতেই ওদের হাতে অস্ত্র আসছে। তারপর ৩৪ বছর ধরে কিছু অস্ত্র মজুতও করে রেখেছে সিপিএম। সেসব নিয়েই অশান্তি ছড়ানো হচ্ছে।তিনি আরও বলেন, এভাবে হিংসা ছড়িয়ে, রক্ত ঝরিয়ে তৃণমূলকে শেষ করা যাবে না। আমডাঙার মাটিতেই আমরা মোক্ষম জবাব দেব। সেই জবাব দেব গণতান্ত্রিক পথেই। তবে তিনি অস্ত্র মজুতের কথা বললেও, পুলিশের গাফিলতি রয়েছে বলে মানতে নারাজ মন্ত্রী।
বিদ্যজনেদের একাংশের দাবি এলাকায় বিরোধীরা শাসক দলকে বেকায়দায় ফেলার জন্য , যে হরে এবং এমন চুপি সাড়ে অস্ত্র মজুদ করেছিল , যে পুলিশকেও বেগ পেতে হয় খুঁজে বার করতে , তবে অস্ত্র গুলোযে উদ্ধার হয়েছে এই যা রক্ষে ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "ওয়ান ইন্ডিয়া বেঙ্গলি "

No comments:

Post a Comment

loading...