Tuesday, 21 August 2018

বিজেপি শাসিত রাজ্যে উলঙ্গ করে এক নারীকে গ্রাম ঘোরানো হল

ওয়েব ডেস্ক ২১শে অগাস্ট ২০১৮ :  বিজেপি শাসিত বিহার যে বিহারেই আছে , তা আরো  একবার প্রমাণিত হল ।মুজাফ্ফরপুরের ঘটনা থেকে বিহারের পুলিশ যে তৎপর হওয়ার শিক্ষা নেয়নি তা এই ঘটনায় আবার উঠে এলো । বিহারের ভোজপুর জেলার দামোদরপুর গ্রামে একটি মাঠ থেকে উদ্ধার হয় কিশোরের দেহ। গ্রামবাসীদের আনুমান করে যৌনপল্লীতেই কোনও গোলমালে জড়িয়ে পড়ার জন্যই  ওই কিশোরকে খুন হতে হয় । তারপরেই গ্রামের সেই যৌনপল্লীতে হামলা চালায় গ্রামবাসীরা।



একের পর এক বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন তাঁরা। এমনকী দোকানপাট ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেন। সেই পল্লী থেকেই একটি মহিলাকে টেনে বের করে উলঙ্গ করে মারধর করে গ্রামবাসীরা। স্রেফ অনুমানের  ভিত্তিতে ওই মহিলার ওপর চলে অত্যাচার  । তার উপযুক্ত সাজা দিতে মহিলাকে নগ্ন করে রাস্তাতেও ঘোরানো হয় । সঙ্গে ছিল অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারধর ।                                                প্রকাশ্যে দিনের আলোয় এই নারকীয় ঘটনা দেখেও মহিলাকে বাঁচাতে কেউ এগিয়ে আসেনি। তারপর গ্রামবাসীরাই তাঁকে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখনও পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। তাঁদের মধ্যে রয়েছে এক আরজেডি নেতাও। কিশোরী যাদব নামে ওই আরজেডি নেতাকে আটক করে জেরা করছে পুলিস। জগদীশপুরের এসডিএম অরুণ কুমার জানিয়েছেন, থানার অদূরেই এই ঘটনা ঘটার পরেও কর্তব্যরত পুলিসকর্মীরা কেন পদক্ষেপ করেননি তা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই সেদিন কর্তব্যরত আট পুলিসকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে । তাঁদের মধ্যে রয়েছেন স্টেশন হাউস অফিসার কানোয়ার গুপ্তাও করেছেন। গ্রামে উত্তেজনা থাকায় পুলিস মোতায়েন করা হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে পুলিশের "ইনফরমার "থাকার সত্ত্বেও কি করে এই ঘটনাটা এতো বড় আকার নিল ? পুলিশ কি তাহলে ইচ্ছাকৃত ভাবেই এর মজা নিচ্ছিলো না অন্য কিছু ?



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...