Tuesday, 18 September 2018

অসহায় বৃদ্ধার পাশে দাঁড়ালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় , পড়ুন

ওয়েব ডেস্ক ১৮ ই সেপ্টেম্বর ২০১৮: যেমন পিসি তেমনি ভাইপো , মানুষের দুঃখ কষ্ট দেখলে ঝাঁপিয়ে পড়েন ,এখানেও অনত্র হল না । প্রসঙ্গত এক শিক্ষক দম্পতি ঘরে তালা লাগিয়ে নিজের মাকে বারান্দায় বের করে দিয়ে অসমে ঘুরতে চলে যায় ।মায়ের জন্য রেখে যায় অল্প কিছু শুকনো মুড়ি , তা দিয়ে আর কতক্ষন খিদে নিবারণ কড়া যায় ? অতএব যার হওয়ার তাই হলো , বৃদ্ধা পেটের জ্বালায় কান্নাকাটি  শুরু করে দেন ।তার কান্নার আওয়াজ পেয়ে প্রথমে ছুটে আসেন বাড়ির মালিক , এবং এলাকার মানুষজন ।
ঘটনাটি খবরের  কাগজে চাউর হওয়ার পর  চোখে পরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ।তিনি সঙ্গে সঙ্গে দলের দুই যুবনেতার  মাধ্যমে ফল মিষ্টি এবং শাড়ী পাঠিয়ে পাশে থাকার বার্তা দেন  । বিদ্যজনেদের একাংশ বলেন , তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যের মতোই কাজ করেছেন ।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতায় থাকলে উনিও এই  ভাবেই পাশে দাঁড়াতেন । প্রসঙ্গত কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষক রতন ভট্টাচায্য , এবং শিক্ষিকা স্বাতী ভট্টাচার্য্য তাদের বিচিত্র মানসিকতার পরিচয় দিয়েই এই ভাবে ঘুরতে চলে যান গত বৃহস্পতিবার , গত কালও তারা অসম থেকে ফেরেননি , এদিকে তাদের মায়ের   এরকম অবস্থা দেখে কিন্ডারগার্টেন স্কুলের প্রিন্সিপাল কুনাল ঘটক  তার দুবেলার খাওয়ার দায়িত্ব নিয়েছেন ।
সূত্রের খবর অনুসারে  বৃদ্ধা রাইমনি ভট্টাচার্য্যর তিন তিনটি ছেলে , ছোট ছেলে রতনকে সব বিষয়সম্পত্তি দিয়ে দেওয়ার জন্য তার দুই ছেলে আগেই বৃদ্ধার সাথে সম্পর্ক চুকিয়ে দেয় , এবার ছোট ছেলে বিষয়সম্পত্তি পাওয়ার পরে মার দিকে আর ফিরেও তাকায় না । অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে সোমবার রাতেই রাইমনি ভট্টাচার্যের বাড়িতে পাড়ি দেন উঃ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের দুই যুব নেতা জয়দীপ দাস ও শুভ্র কান্তি বন্দ্যোপাধ্যায় তারা রায়মনি দেবীকে জানান "অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ওনার পাশে আছেন এবং কিছু ফল ও শাড়ি পাঠিয়েছেন  । যে কোন সমস্যায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ওই বৃদ্ধার পাশে আছেন  ।"

No comments:

Post a Comment

loading...