Wednesday, 12 September 2018

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খোলসা করে বললেন , চক্রান্ত করেই তাকে চিকাগো যেতে দেওয়া হয়নি

ওয়েব ডেস্ক ১২ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ : অবশেষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নিলেন । আশঙ্কা ছিল অনেকের মনেই কিন্তু তাতে সিলমোহর ছিলনা আজ  পরে গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগে ।মঙ্গলবার বিকেলে স্বামীজির শিকাগো ধর্ম মহাসম্মেলনে বক্তৃতার ১২৫তম বর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বেলুড় মঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌আমরা শিকাগোয় যাওয়ার চেষ্টা করেছিলাম।

কিন্তু আমাদের যাওয়া আটকাতে অশুভ শক্তির চক্রান্ত কাজ করেছে। কিন্তু এভাবে কাউকে আটকে রাখা যায় না।’‌ তিনি বলেন, ‘‌শিকাগোর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার জন্য বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু আমার ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শিকাগো যাওয়া আটকানো হয়েছে। এমনকী বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। ওঁরা হয়তো একথা বলতে পারবেন না। কিন্তু আমি বলে দিচ্ছি। ওঁদের হুমকি দেওয়া হয়েছে। আমাদের শিকাগো যাওয়া বন্ধ করতে চক্রান্ত করা হয়েছে। আসলে চক্রান্তকারীরা চায়নি বাংলা থেকে আমরা কেউ শিকাগোয় যাই। তবে এক্ষেত্রে বেলুড় মঠের কোনও দোষ নেই। এতে অামি দুঃখ পেয়েছি। ব্যথা পেয়েছি। কিন্তু এভাবে আমাদের আটকে রাখতে পারবে না। নাই বা শিকাগোয় যেতে পারলাম। বেলুড় মঠে তো অনুষ্ঠান হল।’‌এদিন বেলুড় মঠে বিবেকানন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বামী বিবেকানন্দের নামে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে একটি ‘চেয়ার’ প্রদান করার কথা ঘোষণা করেন মমতা। এর জন্য বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষকে সরকারের তরফে এদিন মুখ্যমন্ত্রী দেড় কোটি টাকা দেন। পাশাপাশি রাজারহাটে বেলুড় মঠের পক্ষ থেকে গড়ে উঠতে থাকা বিবেকতীর্থে ‘সেন্টার অফ এক্সিলেন্স’ তৈরির জন্য রাজ্য সরকারের তরফে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দ মহারাজের হাতে ১০ কোটি টাকার চেক তুলে দেন মমতা। এদিনের অনুষ্ঠান থেকে নিবেদিতা ভবনের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানমঞ্চে বিবেকানন্দের শিকাগো বক্তৃতা সংবলিত পুস্তিকা ‘‌বিবেকচেতনায় উদ্ভাসিত জগৎ’‌ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেন অধ্যক্ষ মহারাজ। ছিলেন ব্রিটিশ ডেপুটি হাই কমিশনার ব্রুস বাকনেল, সাংসদ প্রসূন ব্যানার্জি, বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া ও হাওড়ার মেয়র ডাঃ রথীন চক্রবর্তী।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত বেলুড় মঠকে দেড় কোটি টাকা দান করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার প্রমান করলেন সব ধর্মকেই তিনি সমান চোখে দেখেন । রাজ্যের বিরোধী গোষ্ঠী যখন তার ওপর তোপ দেগেছিলো যে তিনি বিশেষ একটি সম্প্রদায়ের প্রতি সহনাভূতিশীল, এবার বেলুড় মঠএর দানের ব্যাপারে তারা কি বলবে ? বলার কিছু আছে ?

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...