Sunday, 9 September 2018

রাফায়েল নিয়ে প্রশ্ন করতেই পলায়নের পথ বেছে নিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী, চারিদিকে ছি ছি

ওয়েব ডেস্ক ৯ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ : রাফায়েল যুদ্ধ বিমান কেনা বেচায় এমন কি জূজূ আছে যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকেই পলায়নের পথ বেছে নিতে হলো ? এখন এই কথাটাই মানুষের মুখে মুখে , অনেকের প্রশ্ন এই সাংবাদিক সম্মেলনে আসবার আগে উনি কি জানতেননা প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হিসেবে রাফায়েল নিয়ে তাকে প্রশ্ন করা হবে ? সে যতই অস্বচ্ছন্দ প্রশ্ন হোক না কেন ?

সাংবাদিক সম্মেলনে একের পর এক প্রশ্ন ধেয়ে আসে নির্মলা সীতারামানের দিকে যিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন বিজেপির ‘প্রবীণ কর্মী’ হিসেবে। দিল্লির অম্বেডকর ভবনে আজ থেকে শুরু হওয়া বিজেপির কর্মসমিতির বৈঠকে সভাপতি অমিত শাহ কী বললেন, তা জানাতে। কিন্তু এ সব ‘বেগতিক’ প্রশ্ন উঠতেই নির্মলার সহকর্মী মাইক টেনে বললেন, ‘‘এ সবের জবাব আমরা পরে দেব।’’ বলেই তড়িঘড়ি শেষ করে সাংবাদিক বৈঠক থেকে উধাও!প্রশ্ন উঠল, ক’দিন আগেই প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, কেউ শৃঙ্খলা আনতে চাইলে তাকে স্বৈরতন্ত্র বলা হয়। আজ যা হল, সেটি শৃঙ্খলা না স্বৈরতন্ত্র? বিজেপি ‘কর্মী’ নির্মলা তো দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীও। রাফাল নিয়ে তো জবাব দিতে পারতেন। আসলে এই জমানায় রাফাল নিয়ে না প্রতিরক্ষামন্ত্রী কথা বলেন, না অর্থমন্ত্রী! রাতে কৃষকদের সহায়ক মূল্য নিয়ে কথা বললেও তা নিয়ে কোনও প্রশ্নের জবাবই দেননি মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান। কী বলতে এসেছিলেন নির্মলা? তিনি বললেন লোকসভা ভোটের জন্য সবাইকে অমিত শাহ কী মন্ত্র দিয়েছেন। অমিতের নিশানায় কংগ্রেস এবং বিরোধী জোট। বলেছেন, বিরোধীরা হতাশ। তাদের জোট শুধু চোখে ধুলো দিতে। মনমোহন সিংহ তাঁর দলকে অনুসরণ করতেন, নরেন্দ্র মোদী দলের নেতৃত্ব দেন। বিজেপি ‘মেকিং ইন্ডিয়া’ করছে, কংগ্রেস ‘ব্রেকিং ইন্ডিয়া’। অর্থনীতির হাল নিয়ে বিরোধীদের জবাব দিতেও বলেছেন অমিত।এ সবের বাইরেও ভূরি ভূরি কথা বলেছেন অমিত। তাতে স্পষ্ট, রাহুল গাঁধীদের সক্রিয়তায় বিজেপি উদ্বেগে। সকালেই অমিত দলের নেতাদের বলেছেন, ‘‘আগামী সাত মাস ‘ভারতমাতা’ আর ‘পদ্ম’ ছাড়া কিছু ভাববেন না। বিজেপিকে ‘অজেয়’ দল করতে হবে, যাতে আগামী ৫০ বছর ক্ষমতায় থাকতে পারে।’’তফসিলি জাতি, ওবিসি তাস খেলতে গিয়ে পুরনো ভোটব্যাঙ্ক উচ্চবর্ণের গোঁসা হচ্ছে। তারা বিজেপির বিরুদ্ধে ‘ভারত-বন্‌ধ’ করছে। ভারসাম্য আনতে মোদী-শাহ আঁকড়ে ধরেছেন অটলবিহারী বাজপেয়ীকে। দিল্লিতে ছড়িয়ে দিয়েছেন বাজপেয়ীর পোস্টার। মোদী আজ অটলের সঙ্গী লালকৃষ্ণ আডবাণীকেও মঞ্চে রেখেছেন। কথাও বলেছেন তিনি!
বিদ্যজনেদের একাংশের প্রশ্ন অমিত শাহ এই সব ভালো ভাল কথা বলে ২০১৯ শের বৈতরণী পার করতে পারবেন তো ? বেশ চাপ আছে কিন্তু ।তবে এটা ঠিক ২০১৯ শের কথা মাথায় রেখে মোদী -অমিত যুগলবন্দী কোনো কসুর করছেনা বিজেপিকে আবার ক্ষমতায় নিয়ে আসতে ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আনন্দবাজার পত্রিকা "

No comments:

Post a Comment

loading...