Friday, 7 September 2018

নাগরিক পঞ্জী নিয়ে বেকায়দায় অসম বিজেপি ,দিলীপ ঘোষ মানুষকে বিভ্রান্ত করে এ রাজ্যে এনআরসির দাবি তুললেন

ওয়েব ডেস্ক ৬ই  সেপ্টেম্বর ২০১৮: অসমের বিজেপি যখন নাগরিক পঞ্জী নিয়ে বেকায়দায় , শুধু মাত্র রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য নাগরিকপঞ্জী পশ্চিম বাংলায় লাগু করার কথা বললেন শ্রীযুক্ত দিলীপ ঘোষ ।তার এই রাজ্যের নাগরিক পঞ্জির দাবি এমন একটা সময় উঠল যখন অসম বিজেপি নেতারাই  অভিযোগ আনছে , এনআরসি–‌র কারণেই অসমের  স্থানীয়রাই বেশি দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। এবং  কেন্দ্রীয় সরকার ও রাজ্য এনআরসি সমন্বয়কের কাছে স্মারকপত্র দেওয়ার পরিকল্পনা করছে ।

                            
এনআরসি নিয়ে এমনিতে বিস্তর উৎসাহ দেখিয়ে আসছিল বিজেপি। কিন্তু গত মঙ্গলবার গুয়াহাটিতে সাংবাদিক–সম্মেলন ডেকে সেই বিজেপি তার  ক্ষোভ জানাল।বিদ্যজনেদের একাংশের মত, হয়তো এই ঘটনাটা দিলীপ ঘোষ মহাশয় অবগত ছিলেন না ।থাকলে এরকম দাবি হয়তো করতেন না ।মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ের পর বিজেপির তরফে এনআরসির দাবি তুলে তিনি বলেন, কলকাতায় ব্রিজের নিচে থাকেন বাংলাদেশিরা। মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই এনআরসি প্রসঙ্গে উত্থাপন করলেন দিলীপ ঘোষ।কলকাতায় সেতু বিপর্যয়ে দেদার রাজনীতি তো হচ্ছেই, সেইসঙ্গে সেতু বিপর্যয় থেকে এনআরসির দাবি তুলতেও সিদ্ধহস্ত হলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। তিনি বলেন, কলকাতায় ব্রিজের নিচের বাংলাদেশি তাড়াতেই এনআরসি করা জরুরি। নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, অবিলম্বে ব্রিজের নিচের জায়গা খালি করতে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর সেই নির্দেশের সূত্র ধরেই পাল্টা এনআরসি প্রসঙ্গ তুলে দিলেন দিলীপ ঘোষ। বাংলায় জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকরণের জন্য নতুন এক সূত্র পেয়ে গেল বিজেপি। উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, কলকাতা ও শহরতলির ২০টি ব্রিজের স্বাস্থ্যের হাল খুই শোচনীয়।
নাগরিক পঞ্জি নিয়ে কি রকম দশা অসমের  সেটা ভালো ভাবেই জানেন দিলীপ ঘোষ, তা সত্ত্বেও রাজনৌতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্যই এসব কথা বলে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন বলে মনে করেন বিদ্যজনেদের একাংশের ।তাদের দাবি অবিলম্বে এগুলো বন্ধ হওয়া দরকার ।












তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "ওয়ান ইন্ডিয়া বেঙ্গলি "

No comments:

Post a Comment

loading...