Saturday, 15 September 2018

বিজেপি নেত্রীর স্বীকারোক্তি, চাকরি না পাওয়ার জন্যই এতো ধর্ষণ , কেন্দ্র বিপাকে

ওয়েব ডেস্ক ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৮: সিবিএসই-র প্রথমস্থানাধিকারী ছাত্রীর গণধর্ষণের ঘটনায় শুক্রবার থেকে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা হরিয়ানায়। সব থেকে মজার ব্যাপার হল ধর্ষণের  মতো ঘৃণ্য ঘটনার অভিযোগ জানাতে গিয়েও  পুলিশি হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে ওই পড়ুয়ার পরিবারকে। হরিয়ানার রেওয়ারিতে সিবিএসই বোর্ডের প্রথম স্থানাধিকারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় এমনিতেই বিপাকে বিজেপি। তার ওপর পুলিশি হেনস্তা , সব মিলিয়ে ত্রাহি ত্রাহি রব হরিয়ানার রাজ্য বিজেপির ।


ঘটনার তিন দিন পরেও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। দেশজুড়ে তীব্র নিন্দার ঝড় বইছে মনোহরলাল খট্টরের সরকারের বিরুদ্ধে। এর উপর তাদের নিজেদের বিধায়কের মন্তব্যে আরও ফ্যাসাদে পড়েছে রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকার। হরিয়ানার উচনা কেন্দ্রের বিধায়ক প্রেমলতা, রেওয়াড়ি গণধর্ষণ মামলা সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, দেশে সেভাবে কর্মসংস্থান নেই। বাড়ছে বেকারত্ব। তার জ্বালায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে দেশের যুবসমাজ। তাই এধরনের অপরাধ ঘটাচ্ছে তারা। রেওয়াড়িকাণ্ডে অভিযুক্তদের সন্ধান দিলে এক লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে প্রশাসন। শুধু রেওয়াড়িকাণ্ডই নয়, দেশে ক্রমাগত বেড়ে চলা ধর্ষণ, খুন এবং গণপিটুনির মতো ঘটনার দিকেই আঙুল তুলেছেন প্রেমলতা বলে মনে করছে বিরোধীরা। দলীয় বিধায়কের এহেন মন্তব্যে স্বভাবতই বিপদে পড়েছে বিজেপি। কারণ, ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার আগে দেশে ১০ কোটি কর্মসংস্থানের আশ্বাস দিয়েছিলেন মোদি। কিন্তু এখনও পর্যন্ত চার কোটি কর্মসংস্থানও হয়নি বলে বহুদিন ধরেই কটাক্ষ করছে বিরোধীরা। সম্প্রতি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং–ও এই প্রসঙ্গ তুলে কেন্দ্র এবং নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন। এবার বেকারত্ব নিয়ে তাঁদের নিজেদের দলেরই এক সদস্যের মন্তব্যে সেই অভিযোগই জোরাল হল বলে আশঙ্কা বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের।বিদ্যজনেদের একাংশের মত হরিয়ানার মহিলা বিধায়ক কার্যত বিজেপির কর্মসংস্থান দেওয়ার ব্যর্থতাকেই তুলে ধরেছেন ।তিনি একরকম স্বীকারই করে নিয়েছেন বিজেপি তার প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ ।এহেন অবস্থায় মানুষ ২০১৯ লোকসভার ভোটের দিকেই তাকিয়ে ।     


তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...