Thursday, 6 September 2018

সিপিএমের যুব শাখার নেত্রীকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ বিধায়কের বিরুদ্ধে , চারিদিকে শোরগোল

ওয়েব ডেস্ক ৬ই  সেপ্টেম্বর ২০১৮: জ্যোতি বাবুর মতো একজন বিচক্ষণ মানুষ মারা যাওয়ার পর সিপিএমে যে ছন্ন ছাড়া অবস্থা সেটা বলাই বাহুল্য । প্রকাশ ক্যারাট , বৃন্দ্য ক্যারাট থাকা সত্ত্বেও কিছুনা কিছু সমস্যা ঘনভূত হচ্ছে সিপিএম এ ,যেটা আগের মতো ধামা চাপা দেওয়া যাচ্ছেনা । যেটা দীর্ঘদিন ধরে হয়ে আসছিলো , এরকমই মন্তব্য বিদ্যজনেদের একাংশের । বিদ্যজনেদের কথায় সিলমোহর দিয়ে কেরল কমিউনিস্ট পার্টির একটি অপ্রীতিকর ঘটনা সামনে এলো ।
সিপিএম বিধায়কের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুললেন দলের যুব শাখা ডিওয়াইএফআইয়ের এক মহিলা সদস্য। আর তাতেই তোলপাড় দক্ষিণের বাম রাজনীতি। ঘটনার জেরে কেরলের সিপিএম আড়াআড়িভাবে বিভক্ত হয়ে পড়েছে বলে সূত্রের খবর। সেই সূত্রটির দাবি, কেরলের সিপিএম বিধায়ক পিকে শশীর বিরুদ্ধে ডিওয়াইএফআইয়ের এক মহিলা সদস্য যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন। পার্টির পালাক্কাড় অফিসে মহিলাকে যৌন নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ। সিপিএম এবং ডিওয়াইএফআইয়ের জেলা ও রাজ্য অফিসেও তিনি অভিযোগ জানিয়েছেন বলে খবর। তবে বিধায়কের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি এখনও। পলিটব্যুরো সদস্য বৃন্দা কারাতের কাছেও অভিযোগের চিঠি পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি এই ঘটনার বিষয়ে জানান, তিনি এই সংক্রান্ত অভিযোগ পেয়েছেন আর তা কেরল রাজ্য কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। আর ইয়েচুরির এমন মন্তব্যে পলিটব্যুরোর বহু সদস্য বেশ বিরক্ত বলে সূত্রের খবর। এরপরই পলিটব্যুরোর পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। সেখানে বলা হয়েছে, কিছু মিডিয়া রিপোর্টে দলের এক জনপ্রতিনিধি সম্পর্কে কিছু খবর প্রকাশ্যে আসে। পার্টির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। এই ধরণের অভিযোগ রাজ্য কমিটি দেখে থাকে। আর গোটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত বিধায়ক শশীর দাবি, গোটা ঘটনাই তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। কিছুক্ষনের জন্য যদি ধরেও নেওয়া যাই বিধায়ক শশী সত্যি কথা বলছেন , তাহলে এটাই কি প্রমাণিত হয় না , সিপিএমও মানুষকে ষড়যন্ত্রের শিকার হতে হয় ।তার মানে এতদিন ধরে যেই দাবি কম্যুনিস্টরা করে আসছিল যে সিপিএমে কোনো অনৈতিক কাজ হয়না ,সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যে ? বিদ্যজনেদের এটাই প্রশ্ন ।




তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...