Thursday, 6 September 2018

স্বমকামিতা বৈধতার জন্য বাড়বে রোগের প্রকোপ ,এইডস :সুব্রামানিয়াম স্বামী , বিজেপি

ওয়েব ডেস্ক ৬ই  সেপ্টেম্বর ২০১৮: বিতর্কিত, জ্ঞানহীন মন্তব্য করাটা বিজেপি নেতাদের যেন একটা অভ্যাসে পরিণত হয়েছে ।যেমন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মহাশয় , পুলিশ পেটাবার কথা বলে শিরোনামে এসেছিলেন , এবং বদনাম কুড়িয়ে ছিলেন ।বিপ্লব দেব তো যখন তখন তার সাধারণ জ্ঞানের পরিচয় দিয়েথাকেন , সেটা আর নতুন করে নাই বা বললাম , তারা সবই জানে ।


এবার প্রভাবশালী বিজেপি নেতা সুব্রামানিয়াম স্বামী বলেন ‘‘সমকামী যৌনতাকে আইনি বৈধতা দেওয়া হলে যৌনসংসর্গের ফলে ছড়ানো রোগীর সংখ্যা বাড়বে, বাড়বে এইডস রোগের প্রকোপও।’’সমকামীদের দেশের অন্যান্য মানুষের সঙ্গে সমান অধিকার পাওয়ার ঘটনাকে কোনওভাবেই মানতে নারাজ স্বামী। তাঁর দাবি, সমকামী মানুষেরা জিনগত ভাবেই বিকৃত। তাঁদের বৈধতা দিলে দেশ জুড়ে বাড়বে ‘গে বার’-এর সংখ্যাও। পুরো বিষয়টিকে ‘সোশ্যাল ইভিল’ অর্থাৎ ‘সামাজিক শয়তান’ বলেই দেখছেন স্বামী।
তবে স্বামীর দাবি, এই রায় চূড়ান্ত নয়। সাত সদস্যের সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ এই রায়ের বিরুদ্ধে পাল্টা রায় দিতে পারে, এই আশাও রাখছেন তিনি।যখন পুরনো ধ্যানধারণা ছুঁড়ে ফেলে সমকামী মানুষদের আর পাঁচটা মানুষের মতো সমান অধিকার দিচ্ছে দেশের শীর্ষ আদালত, তখন স্বামীর আপত্তির কারণ কী? রাজনৈতিক মহলের ধারণা, আসলে এর সঙ্গে কোথাও লুকিয়ে আছে ভোটব্যাঙ্ক ইস্যুটিও। দেশের একটি রক্ষণশীল অংশের মানুষ এখনও সমকামিতাকে স্বাভাবিক বলে মানতে নারাজ। যার নেতৃত্বে অবশ্যই আছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। এখনও সমকামিতাকে অনৈতিক ও যথেচ্ছাচার বলেই মনে করে আরএসএস। সমাজের এই অংশটির মন রাখতেই এই মন্তব্য করলেন সুব্রহ্মণ্যম স্বামী, এমনটাই মনে করছেন অনেকে।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত স্বাধীন ভারতে বক্তব্য রাখার অধিকার সবারই আছে ।সেই সুবাদে সুব্রামানিয়াম স্বামীও তার বক্তব্য পেশ করেছেন ।কে সেটা কে গম্ভীর ভাবে নেবে আর কে নেবেনা তাদের ব্যাপার ।



তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আনন্দ বাজার পত্রিকা "

No comments:

Post a Comment

loading...