Friday, 14 September 2018

এবার সৌন্দর্যায়নের দোহাই দিয়ে সরানো হল জওহরলাল নেহরুর মূর্তি , উত্তরপ্রদেশে , চারিদিকে ছি ছি

ওয়েব ডেস্ক ১৪ ই সেপ্টেম্বর ২০১৮: বিজেপি ক্ষমতা আসার পর , যে কোটা বিধানসভা নির্বাচন হয়েছে ,সেখানে যেনতেন প্রকারে জোট সরকার করে আধিপত্য কায়েম করার চেষ্টা চালিয়েছে , এবং তারা এই কাজে এখনো পর্যন্ত সফল । এবার কি পরবর্তী পদক্ষেপ কংগ্রেসের নাম , নিশান মেটানো ? ঠিক এই ভাষাতেই প্রশ্ন করলেন বিদ্যজনেদের একাংশ কারণ যেভাবে ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর মূর্তি সৌন্দর্যায়নের বাঁচানোর নামে সরানো হল সেটা কল্পনা করে কঠিন , কিন্তু এটাই বাস্তব।

বৃহস্পতিবার এলাহাবাদের বালসন চৌরাহা থেকে নেহরুর দীর্ঘ মূর্তিটি সরিয়ে দেওয়া হল। কিন্তু কেন? কর্তৃপক্ষের সাফাই, আগামী বছর জানুয়ারি মাসে এখানেই শুরু হবে কুম্ভ মেলা। তার আগে এলাকার সৌন্দর্যায়নের জন্যই এমন পদক্ষেপ। তবে এমন ঘটনায় ক্ষুব্ধ কংগ্রেস। এভাবে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে অপমান করা হয়েছে বলেই সুর চড়িয়েছেন কংগ্রেসের নেতা-মন্ত্রীরা। সমাজবাদী পার্টির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বৃহস্পতিবার একটি প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছিল রাহুল গান্ধীর দল। কংগ্রেসের দাবি, ইচ্ছাকৃতভাবেই নেহরুর মূর্তি উৎখাত করা হয়েছে ওই এলাকা থেকে। যে ক্রেনটি দিয়ে মূর্তিটি তুলে সরিয়ে ফেলা হচ্ছিল, সেটি রুখে দেন তাঁরা। এমন ঘটনায় উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে কাঠগড়ায় তুলে তাঁদের অভিযোগ, ষড়যন্ত্র করেই এমন কাজ করেছে সরকার। নেহরুর আদর্শকে ক্ষুণ্ণ করাই প্রশাসনের উদ্দেশ্য। বিষয়টি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ে যাওয়ার কথাও শুনিয়ে রেখেছেন তাঁরা।মূর্তি সরানো প্রসঙ্গে কর্তৃপক্ষের ব্যাখ্যা মেনে নিতেও নারাজ কংগ্রেস। তাদের পালটা প্রশ্ন, যদি ওই এলাকার সৌন্দর্যায়নের জন্যই নেহরুর মূর্তি উৎখাত করা হয়ে থাকে, তবে একই রাস্তায় বিজেপির প্রতিষ্ঠাতা-সদস্য পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায়ের মূর্তি রাখা হচ্ছে কেন? যদিও এই প্রশ্নের উত্তর দেয়নি কর্তৃপক্ষ। এমনকী এ নিয়ে বিস্তারিত তথ্য গোপনই রেখেছে তারা। শুধু জানানো হয়েছে, আপাতত নেহরুর মূর্তির কাছের একটি পার্কে রাখা হয়েছে। বিদ্যজনেদের অভিমত বিজেপি আস্তে আস্তে কংগ্রেসকে পুরো মুছে ফেলার পরিকল্পনা করছে ।কংগ্রেসের কোনো চিহ্নই যেন না থাকে সেই কাজটি নিবিড় ভাবে করছে , এটাকে মনস্তাত্ত্বিক ভাবে মাত দেওয়ার একটা পরিকল্পনা মাত্র ।


তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "সংবাদ প্রতিদিন "

1 comment:

Post a Comment

loading...