Friday, 14 September 2018

এবার ধর্ষণের অভিযোগ আটকাতে কিল, চড় তরুণীকে , পুলিশ অফিসারের ছেলের ,দিল্লিতে

ওয়েব ডেস্ক ১৪ ই সেপ্টেম্বর ২০১৮: দিল্লির মতন জায়গা যেখানে রাজনাথ সিংহ বসেন , যেখানে প্রধানমন্ত্রীর অফিস , যেখানে সংসদ ভবন রয়েছে , সেখানে চাকরির খোঁজ করতে যাওয়া একটি মেয়েকে একজন পুলিশ অফিসারের ছেলে ধর্ষণ করল ।মেয়েটি যখন পুলিশের কাছে যাওয়ার কথা বলে তথন তাকে বেধড়ক মারে সেই পুলিশ অফিসারের ছেলে রোহিত । ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে  চারিদিকে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় ।


পুলিশ জানাচ্ছে, ঘটনাটি ঘটে গত ২ সেপ্টেম্বর। ওই দিন বিকেল তিনটে নাগাদ দিল্লির উত্তম নগর এলাকার একটি বিপিও-তে ওই ঘটনা ঘটে। বিপিওটি চালান রহিতের বন্ধু আলি হাসান। ২১ বছর বয়সী ওই তরুণী ওই বিপিওতে গিয়েছিলেন চাকরির খোঁজে।ঘটনাটা ঘটে পুলিশকর্তার ছেলে রহিতের বন্ধুদের সামনেই। রহিতের বাবা দিল্লি পুলিশের (মধ্য) নারকোটিক্স বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইনস্পেক্টর  অশোক সিংহ তোমর। রহিতেরই এক বন্ধু গোটা ঘটনার ভিডিয়ো তুলে রাখেন। তাতে শোনা যায়, ওই বন্ধু রহিতকে বলছেন, ''থামো, থামো, আর মেরো না।'' কিন্তু তার পরেও থামেননি রহিত। সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় বিব্রত হয়ে পড়েন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। টুইট করে অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবি জানান। তাঁর নির্দেশেই শুক্রবার রহিতকে গ্রেফতার করা হয়। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৬ এবং ৩৫৪ নম্বর ধারায় রহিতের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।রোহিত তরুণীকে চুলের মুঠি ধরে   টেনে নিয়ে গিয়ে তাঁকে কিল, চড় মারে । মেয়েটির  পেটে লাথিও মারা হয়। করা হয় গালিগালাজও ।তরুণী বলেছেন, ''রহিত আমাকে ওর বন্ধুর ওই বিপিওতে কাজের জন্য ডেকে পাঠায়। আমি সেখানে গেলে আমাকে ধর্ষণ করা হয়। ওই ঘটনার কথা আমি পুলিশে জানাব বলতেই রহিত আমাকে মারধর করতে শুরু করে।''  ঘটনাটি ট্রোলড হওয়ার সাথে সাথে নিন্দার ঝড় বয়ে যায় ।অবিলম্বে কঠোর শাস্তি দাবি জানানো হয় সোশ্যাল মিডিয়ায় ।

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আনন্দবাজার পত্রিকা "

No comments:

Post a Comment

loading...