Thursday, 20 September 2018

ধর্ষক নিজের কুকীর্তির কথা আগেও স্বীকার করেছিল , তবুও নীরব ছিল বিজেপি শাসিত হরিয়ানা প্রশাসন

ওয়েব ডেস্ক  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ : কোনো ব্যক্তি যখন নিজের কলামে নিজের কুকীর্তির কথা স্বীকার করছে , তখন কি প্রশাসনের উচিত নয় তৎপর হওয়া ? প্রশাসনের উচিত ছিল না সেই ব্যক্তিকে জিজ্ঞসাবাদ করা ?এই ভাবেই বিজেপি শাসিত হরিয়ানাকে বিঁধলেন বিদ্যজনেদের একাংশ ।


প্রসঙ্গত সিবিএসসি পরীক্ষায় প্রথম হওয়া ছাত্রীকে গণধর্ষণের মতো ঘৃণ্য কাজ করা নীশু ফোগট এর আগেও একাধিকবার এ ধরনের কুকীর্তি করেছে। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে মেয়েদের উদ্দেশে কুরুচিকর পোস্টও করেছে। সম্প্রতি সামনে এসেছে সেই পোস্টের ছবি। যেখানে নীশু লিখেছিল, বরাবরই সে অন্যের বান্ধবী এবং অন্য মহিলাদের প্রতি আকৃষ্ট। এর আগেও একাধিকবার মহিলাদের হেনস্তা করেছে সে। ফেসবুকে নিজের কুকীর্তির কথা এভাবেই বড়াই করে লিখেছে নীশু। তার কথায়, ‘‌সবাই ভাবে আমার অনেক বান্ধবী। আসলে তারা জানে না, অন্যের বান্ধবী এবং অন্য মহিলাদেরও আমি হেনস্থা করি।’ এখানেই শেষ নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই মেয়েদের সম্পর্কে অশ্লীল কথাবার্তা এবং ভিডিও পোস্টও করেছে এই নীশু ফোগট। এর আগে লিখেছিল, ‘‌যেদিন থেকে আরও সিস্টেম এসেছে, সেদিন থেকে গ্রামের ছেলেরা আর মহিলাদের হেনস্তা করতে পারছে না।’ ‌ এদিকে, অভিযুক্ত নীশুকে আপাতত পুলিসি হেপাজতে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত আধিকারিক‌দের দাবি, ১৯ বছর বয়সি কিশোরীকে ধর্ষণের ছক কষেছিল এই নীশু ফোগটই। ‌‌বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত এতো সব জানার সত্ত্বেও যখন কিছুই করেনি হরিয়ানা প্রশাসন , ইট তাদের অপদার্থতাই প্রমান করে  ।   

তথ্য কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...