Thursday, 27 September 2018

শিল্পে সাফল্য , আধার যন্ত্রণাকে মুক্তি - আর বনধ কে ব্যর্থ করে , সাফল্যের ত্রিপিল সেঞ্চুরি করলেন -বাংলার মুখ্যমন্ত্রী

পশিমবঙ্গের বর্তমান রাজ্যসরকার বাংলায় কেললমাত্র শিল্পের আদর্শ পরিবেশই তৈরি করেননি , শিল্প বান্ধব বহু উদ্যোগ নিয়েছে বর্তমান রাজ্য সরকার । মুখ্যমন্ত্রী ইতালিতে বলেছিলেন - আপনারা বাংলায় বিনিয়োগ করুন । বাংলায় দ্রুত উন্নয়ন হচ্ছে ।আমাদের দক্ষ কারিগর পৃথিবী বিক্ষাত । মুখ্যমন্ত্রী এমনভাবে বাংলার ভাবমূর্তিকে জার্মানি ও ইতালির শিল্পপতিদের সামনে তুলে ধরেছেন , যে তারা শুধু বড় মাপের বিনিয়োগই নয় , বাংলায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি মাপের বিনিয়োগ কারীরাও এখন বাংলায় বিনিয়োগ করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। বাংলা গঠনে ইতালিতে  শিল্পের সম্ভাবনাময় সাফল্য পেলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। 
                          

আধার যে যন্ত্রনা , তা প্রথম থেকেই বলে এসেছিলেন মমতা ব্যানার্জী । কেন্দ্র আধার কার্ডের সমস্যময় ঝামেলাকে সাধারণ মানুষের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে যন্ত্রনাময় করেতুলেছিলো । সাথে এই আধার কার্ডের ফাঁদে ফেলে বহু সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চনার স্বীকার করা হচ্ছিলো জনগণকে । ব্যাংকে কারবার করতে , গ্যাসের ভর্তুকি পেতে , কৃষিতে বীমা পেতে , মোবাইলের সিম চালু রাখতে আধার ব্যাধ্যতামূলক করে ওষ্ঠাগত প্রাণ করে তুলেছিল আধার কার্ড। এমনকী শিশুদের মিডডে মিলের খাবারে পর্যন্ত কোপ ফেলতে শুরু করেছিলো আধারকার্ড । সাথে সাধারণ মানুষের তথ্যের গোপনীয়তার অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিলো । তবে শেষ পর্যন্ত আধার যে বাধ্যতামূলক নয় ,মমতা ব্যানার্জীর প্রথম থেকে করে আসা সেই দাবিই জয়ী হলো, ভারতীয় সর্বচ্চ আদালত - সুপ্রিমকোর্টে । ইতালির মিলান থেকে এই জয়ের খবর পেয়ে ,উচ্ছাসিত মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন -এই জয় - কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের একনায়কতান্ত্রিক ভুল সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপামোর ভারতবাসীর জয় ।   
 একই সঙ্গে মিলানে শিল্পপতিদের সাথে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক করার সময়কালে,রাজ্যের ইসলামপুরের ছাত্র মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নোংরা রাজনীতি করতে,  রাজ্য বিজেপি বাংলায় যে কর্মনাশা বনধের ডাক দিয়েছিলো - তা সম্পূর্ণ ব্যর্থ করে দিয়েছে বাংলার মানুষ । তৃণমূল সরকারের তরফ থেকে পুজোর পূর্বে ,বনধের দিনে  জনজীবন সচল রাখতে প্রশাসনিক স্তরে আগের থেকেই  নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল  । এছাড়া বনধকে ব্যর্থ করতে তৃণমূল নেতা -কর্মীরাও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে তৎপর ছিলেন এদিন । সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী ,কোনো অফিস আদালতে  বনধের দিনে জনপরিষেবায় কোনো প্রভাব পড়েনি । বাংলার মানুষ প্রমান করেদিয়েছে যে  তারা সন্ত্রাসী বিজেপির কর্মনাশা, অর্থনাশ বন্ধের বিরুদ্ধে ... বাংলার মানুষ বাংলা গঠনে মমতা ব্যানার্জীর সরকারের উপরেই সম্পূর্ণ আস্থাশীল ...  যাইহোক দিনের শেষে , বিজেপির বনধকে লজ্জা জনক ভাবে ব্যর্থ করে , ইতালির শিল্পতিদের মন জিতে শিল্প সম্ভাবনাকে চূড়ান্ত করে ,সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আধার কার্ডের বাধ্যতাকে মূল্যহীন করে - এক্কেবারে সাফল্যের  সেঞ্চুরি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

No comments:

Post a Comment

loading...