Sunday, 7 October 2018

বিপ্লব দেব নাগরিক পঞ্জী কার্যকর করতে চাইছেন এর পেছনে কি নতুন কোনও অভিসন্ধি রয়েছে?‌

ওয়েব ডেস্ক ৭ই অক্টোবর ২০১৮ : নাগরিকপঞ্জী নিয়ে অসমে বিস্তর অশান্তির পর এখন সেই অশান্তিই কামনা করছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব ।বিদ্যজনেদের একাংশের মত , একমাত্র বিপ্লব দেবের মতন লোকের পক্ষেই সম্ভব এরকম কাজ করার , যাকে হিন্দির পরিভাষায় বলা হয় "আ ব্যাল মুঝে মার "।
তিনি বলেন, নাগরিকপঞ্জি তৈরিতে অসমে যদি সাফল্য পাওয়া যায় তাহলে ত্রিপুরাতেও তা করা হবে। তবে নাগরিকপঞ্জির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। কেন্দ্র যদি নাগরিকপঞ্জি নিয়ে আইন আনে তাহলে রাজ্যে তা কার্যকর  করবে ত্রিপুরা সরকার।তবে অসমে কি সাফল্য এসেছে তা তিনি খোলসা করে বলেননি । নাগরিকপঞ্জি নিয়ে এখন দেশজুড়ে বিতর্ক চলছে। বিষয়টি নিয়ে প্রবল আপত্তি তুলেছে বিরোধীরা। এমন সময়ে বিপ্লব দেবের এই বিতর্কিত মন্তব্য। সাংবাদিকদের বিপ্লব বলেন, ‘‌অসমে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে কী হচ্ছে সবাই লক্ষ্য করছে। গোটা প্রক্রিয়াটা শেষ হয়ে গেলে আমারও ত্রিপুরাতে তা করব। দেশের সব রাজ্যেই তা হবে।’‌ আর তারপর থেকেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে।অন্যদিকে নতুন বিতর্ক তৈরি করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম। সংবাদসংস্থা পিটিআইকে ইমাম বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ব্যক্তিগতভাবে আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, যাদের নাম এনআরসিতে নেই তাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে না।’‌ এই কথা যদি সত্যি ধরে নেওয়া হয় তাহলে এনআরসি নিয়ে এত অস্থিরতা দেখাচ্ছে কেন কেন্দ্রীয় সরকার?‌ ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবও এই মন্তব্য কেন করলেন?‌ তাহলে কি এইসবের পিছনে নতুন কোনও অভিসন্ধি রয়েছে?‌ এই প্রশ্নগুলিই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে জাতীয় রাজনীতির স্তরে। যার উত্তর পাওয়া যাবে সময় গড়ালে।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত এইচটি ইমামই আসল কথাটা উত্থাপন করেছে , যদি তার কথা সত্যি হয় তাহলে নিশ্চিন্ত ভাবে এর মধ্যে অন্য কিছু লুকিয়ে আছে ।

তথ্য  কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...