Sunday, 7 October 2018

১৮ মাসের শিশুর যৌন্য নিগ্রহকে কেন্দ্র করে বিহারী তাড়ানো শুরু হয়েছে গুজরাটে

ওয়েব ডেস্ক ৭ই অক্টোবর ২০১৮ : দরকার ছিল একটা অজুহাতের , আর সেটা পেয়ে যাওয়ার সাথে সাথেই নিজেদের কার্য্যসিদ্ধি করতে নেমে পড়ল কিছু মানুষ । অনেকটা এরকমই মনে করছেন বিদ্যজনেদের একাংশ ।  প্রসঙ্গত গত ২৮ সেপ্টেম্বর হিম্মতনগরের গাম্ভোইয়ে ১৪ মাসের এক শিশুকে যৌন নিগ্রহের অভিযোগে ওই দিনই রবীন্দ্র সাহু নামে স্থানীয় একটি সেরামিক কারখানার শ্রমিককে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বিহারের বাসিন্দা।
                                

তারপর থেকেই মেহসানা, সবরকাঁঠা, পাটন, গান্ধীনগর, আহমেদাবাদে বিহার এবং উত্তর প্রদেশ থেকে আসা মানুষদের উপর শুরু হয় মারধর, নিগ্রহ, হামলা। তাঁরা বেশিরভাগই গুজরাটে অস্থায়ী শ্রমিকের কাজ করা দরিদ্র মানুষ।ডিজি জানালেন, এধরনের ঘটনা সম্পূর্ণ অনভিপ্রেত। গত এক সপ্তাহের মধ্যে ১৭০ জন হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মূলত ভিন রাজ্যের বাসিন্দা অধ্যুষিত সবরকাঁঠায় পুলিসি টহল চলছে। তবে আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। গুজরাটের উপ মুখ্যমন্ত্রী নিতিন প্যাটেল শনিবারই গুজরাট হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি আর সুভাষ রেড্ডিকে চিঠি লিখে ওই মামলায় এক মাসের মধ্যে শুনানি শেষ করে রায়ের আবেদন জানিয়েছেন।কিন্তু কথা হচ্ছে যৌন্য নিগ্রহে বিহারের ব্যক্তি জড়িত আছে বলেই কি নিতিন প্যাটেল এতটা তৎপর ? উস্কে দিচ্ছে জল্পনা ।


তথ্য  কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...