Saturday, 6 October 2018

"ভারত মাতা কি জয় "বলার জন্য যোগীর রাজ্যে খুদে পড়ুয়ারা শাস্তির কবলে ,সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়

ওয়েব ডেস্ক ৬ই অক্টোবর ২০১৮ :যেই যোগী আদিত্যনাথ  , যিনি হিন্দু ধর্মেরই  নিয়ম কানুনকেই প্রশাসনের কাজ কর্মে মিলিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা করছেন , যিনি দেশাত্মবোধের ধয্যা তুলে একের পর এক কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়ে চলেছেন , সেই যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যের "ভারত মাতা কি জয়" বলাতে খুদে পড়ুয়াদের শাস্তির মুখে পড়তে হলো ।অভিযোগ উঠেছে বালিয়া জেলার একটি সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, প্রার্থনার সময় ‘‌ভারত মাতা কি জয়’‌ বলায় বেশ কয়েকজন পড়ুয়াকে শাস্তির মুখে পড়তে হয়েছে।


গত কয়েকমাস ধরেই এই ঘটনা ঘটছে। ইতিমধ্যে অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে তদন্তও শুরু হয়েছে। এদিকে এই অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়েছেন স্কুলটির প্রিন্সিপ্যাল মজিদ নাসির। স্কুলে এ ধরনের কোনও কাজকর্ম হয় না। বরং পড়ুয়াদের মধ্যে সবসময় দেশাত্মবোধ জাগিয়ে তোলা হয়। তাঁর কথায়, ‘‌এ ধরনের কোনও কার্যকলাপ এই স্কুলে হয় না। আমরা সবরকম দেশাত্মবোধক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে থাকি। এমনকি গত ২ অক্টোবর আমি নিজে স্বচ্ছ ভারত অভিযানে অংশ নিয়েছিলাম।’‌এ কথা বলে মজিদ নাসির কিছুটা হলেও সামাল দিয়েছেন কিন্তু বিদ্যজনেদের একাংশের প্রশ্ন সিনেমা হলে শো শুরু হওয়ার আগে বাজাতে হবে জাতীয় সঙ্গীত। স্বাধীনতা দিবস কিংবা সাধারণতন্ত্র দিবসে প্রত্যেক স্কুলে উত্তোলন করতে হবে জাতীয় পতাকা। এছাড়া দপ্তরে বা স্কুলে কাজ শুরুর পূর্বে গলা মেলাতে হবে জাতীয় সঙ্গীতে, তবেই শুরু করা যাবে কাজকর্ম। বিভিন্ন সময় দেশবাসীর মনে দেশাত্ববোধ জাগাতে জারি করা হয়েছে এমন নির্দেশ। তা সত্ত্বেও যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে এরকম ঘটনা ঘটল কি করে ?
‌‌‌


তথ্য  কৃতজ্ঞতা স্বীকার "আজকাল "

No comments:

Post a Comment

loading...