Friday, 26 October 2018

৫৬ ইঞ্চির ছাতির আমলে, ভারতবাসী সাত মাসের সর্বনিম্ন সেনসেক্সও দেখলো

ওয়েব ডেস্ক ২৬শে অক্টোবর ২০১৮: বিরোধীদের কথাই সত্যি  প্রমাণিত হচ্ছে । প্রসঙ্গত কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধীরা অনেকদিন ধরেই বলে আসছিলো , ভারতীয় অর্থ্যনীতি তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়বে , কিন্তু অরুন জেটলি থেকে বিজেপির তাবড় তাবড় নেতারা ব্যাপারটা গম্ভীর ভাবে নেননি আজ তারই খেসারত দিতে হচ্ছে বলে মনে করেন বিদ্যজনেদের  একাংশ ।


আজ শেয়ার বাজার খোলার পর থেকে ধস নামতে শুরু করে । ৩৪০.৭৮ পয়েন্ট নেমে সেনসেক্স থামল ৩৩, ৩৪৯.৩১ পয়েন্টে।  নিফটিও ৯৪.৯০ পয়েন্ট নেমে দিনের শেষে থামল ১০, ০৩০.০০ পয়েন্টে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ধাক্কা খেয়েছে ইয়েস ব্যাঙ্ক, জেএসডব্লিউ স্টিল, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক, এইচসিএল টেক অ্যান্ড গ্রাসিমের মতো সংস্থার শেয়ার। মোট ৩০টি স্টকের মধ্যে ২২টি লাল সীমানায় থেমেছে। টিসিএস, আইটিসি, কোটাক ব্যাঙ্কের মতো সংস্থাও এতে রয়েছে। ক্ষতির বোঝা পিঠে চেপেছে ইনফোসিসেরও। তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে টিসিএস, ইনফোসিসের সবচেয়ে বেশি ধাক্কা লেগেছে। ইনফোসিস ২.১ শতাংশ পড়েছে, টিসিএস পড়েছে ২.৫ শতাংশ হারে।প্রসঙ্গত মোদির অর্থনীতি নিয়ে দেশের  তাবড় তাবড়  অর্থনীতিবিদ প্রকাশ্যে সমালোচনা করেছে , কিন্তু তাতে কোনো রকম ভুরুক্ষেপ করেননি অরুন জেটলি বা প্রধানমন্ত্রী , কারণ তারা মনে করেছিল দীর্ঘ উন্নতির জন্য জি,এস.টি  প্রয়োজন কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি ।নোটবন্দি করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার , সেখানে দেখা যাচ্ছে ক্ষুদ্র শিল্প প্রচন্ড ধাক্কা খেয়েছে ।

No comments:

Post a Comment

loading...