Monday, 26 November 2018

ঝাড়গ্রামে ভাষণ দিতে গিয়ে, সিপিএম ও বিজেপিকে তুলোধোনা মমতার

ওয়েব ডেস্ক ২৬শে নভেম্বর, ২০১৮ : লোকসভা ভোট যতই এগিয়ে আসছে , ততই রাজনৌতিক পারদ চড়ছে ।একদিকে যখন রাজ্য সরকারকে নাস্তানাবুদ করার পরিকল্পনায় সিপিএম বিজেপি হাতে হাত মিলিয়েছে তখন বাংলার উন্নয়ন থেমে নেই ।একটার পর একটা উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েই যাচ্ছে ।ঝাড়গ্রামের জামবনিতে একটি সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন ‘‌ওদের শ্রী রাম থাকলে, আমাদের মা দুর্গা আছে’‌‌।মমতা ব্যানার্জি রাম মন্দির ইস্যু নিয়ে বলেন, ‘‌বিজেপি আসলে রাম নয় রাবণের পুজো করে। রামের পুজো আসলে লোক দেখানো।

গোটা দেশজুড়ে শ্রী রামের স্লোগান তুলছে ওরা। ওদের শ্রী রাম থাকলে আমাদের মা দুর্গা রয়েছে। মা দুর্গার পুজো শ্রী রামচন্দ্রও করেছিলেন।’‌ তিনি আরও বলেন, ‘‌বিজেপি ছত্তিশগড়ে মাওবাদীকে দমন করতে ব্যর্থ হয়েছে। ঝাড়খণ্ড থেকে মাওবাদী এনে এ রাজ্যে গণ্ডগোল সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে বিজেপি। ধর্মের নামে দাদাগিরি করতে নেমেছে বিজেপি। শুধু তাই নয় ভোটের আগে কেউ কেউ বিভাজন রাজনীতি করতে চায়। কিন্তু এ রাজ্যে তা হবে না।’‌ মুখ্যমন্ত্রী জানান, ঝাড়গ্রামে ভোটের আগে কেউ কেউ টাকা নিচ্ছে বিজেপির হয়ে প্রচার করার জন্য। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌টাকা নিন, কিন্তু ভোট দেবেন না। ঝাড়গ্রামে যখন কোনও উন্নয়ন ছিল না, কোথায় ছিল এই গেরুয়া দল। এখানে দিনের পর দিন মানুষ না খেতে পেয়ে মারা যেত, তখন কোনও দল এগিয়ে আসেনি।’‌মমতা ব্যানার্জি এদিন বিজেপি–সিপিএমকে একসঙ্গে নিশানা করে বলেন, ‘‌গত ৩৪ বছর ধরে সিপিএম বাংলাকে সর্বস্বান্ত করেছে। সেই দেনা শোধ করছে আমাদের সরকার। সিপিএম সকালে লাল জামা পড়ে আর বিকেলে হাত ধরে বিজেপির। বিজেপি দেশজুড়ে ধর্মীয় উস্কানি দিচ্ছে।’‌ মুখ্যমন্ত্রী ঝাড়গ্রামে কন্যাশ্রী ও যুবকদের উদ্দেশ্যে জানান, যারা বিভাজনের রাজনীতি করছে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।   
প্রসঙ্গত পূর্বের সরকারের আমলে ঝাড়গ্রামের আদিবাসীরা পিঁপড়ে সেদ্ধ করে খেত , সেটা মুখ্যমন্ত্রী বিলক্ষণ জানতেন , আর তাই ক্ষমতায় আসার পরেই দুটাকা কেজি দরে চাল মনজুর করেন ঝাড়গ্রামের আদিবাসীদের জন্য , এরকম মুখ্যমন্ত্রী এই বহু ভারতে কোথায় ? বলে প্রশ্ন তুললেন বিদ্যজনেদের একাংশ ।    

1 comment:

Unknown said...

T m c zindabad.momotadi zindabad

Post a Comment

loading...