Wednesday, 14 November 2018

ডামাডোলের জেরে ইন্টারপোলের চাওয়া গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে পারছেনা সিবিআই, কেন্দ্রে মুখে কুলুপ

ওয়েব ডেস্ক ১৪ ই  নভেম্বর ২০১৮: সিবিআইতে দুই ডিরেক্টরের ঝামেলা কি গট আপ ম্যাচ ?যে দিকে জল গড়াচ্ছে সেটা মনে না হওয়ার কোনো কারণ দেখছেন না বিদ্যজনেদের একাংশ ।প্রসঙ্গত ডিরেক্টর অলোক বর্মা এবং স্পেশাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানার কাদা ছোড়া ছুড়িতে সিবিআই তে এমনিতেই অমাবস্যা নেমে এসেছিল , এবার তাদের অনুপস্থিতিতে কাজ কর্মের ডামাডোল বেঁধে গেছে ।যার জেরে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে বিজয় মালিয়া, নীরব মোদি, মেহুল চোকসিদের মতো বড় বড় ঋণখেলাপীদের তদন্তের কাজে। এমনটাই খবর সিবিআই সূত্রে।
সিবিআইয়ের অন্দরে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে, শীর্ষ দুই আধিকারিকের অনুপস্থিতিতে কোনও আধিকারিকই আর নতুন করে দায়িত্ব নিতে চাইছেন না। সূত্রের খবর, বেশ কিছু পুরনো মামলার অগ্রগতিও কার্যত থমকে গিয়েছে।ডিসেম্বরের ১০ তারিখ লন্ডনে বিজয় মালিয়ার প্রত্যার্পণ মামলার গুরুত্বপূর্ণ শুনানি রয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এখনও ঠিকই করে উঠতে পারেনি, দুই শীর্ষকর্তার অনুপস্থিতিতে ওই শুনানির দিন সিবিআইয়ের প্রতিনিধি কে হবেন। শুধু মালিয়া মামলা নয়, অনেক মামলার ক্ষেত্রেই আধিকারিকরা নতুন করে কোনওরকম সিদ্ধান্ত নিতে চাইছেন না। আরও এক ঋণখেলাপি মেহুল চোকসির সম্পর্কে সিবিআইয়ের কাছে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চেয়েছে ইন্টারপোল। কিন্তু সিবিআই সেই সব তথ্য দিতে পারেনি ওই একই কারণে। ইন্টারপোলের এক আধিকারিক বলছেন, ‘‌চোকসি ভারতীয় জেলের খারাপ পরিস্থিতি নিয়ে অভিযোগ করেছেন। সে বিষয়ে সিবিআইয়ের কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা কোনও উত্তরই দেয়নি।’‌ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার নিষ্ক্রিয়তার কারণেই এখনও হেপাজতে নেওয়া যায়নি চোকসি ঘনিষ্ঠ দীপক কুলকার্ণিকেও।তাহলে কোনো শীর্ষ করতে যদি অনুপস্তিথ থাকে তাহলে সব কাজ কর্ম বন্ধ হয়ে যাবে ? এখন এই প্রশ্নটাই বিরোধীদের মুখে ? বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত , ইন্টারপোলের প্রয়োজনীয় তথ্য যে সরবাহ করা যাচ্ছেনা এতে কি নীরব মোদী , মেহুল চোকসি, কিংবা বিজয় মালিয়ারা কি সুবিধেজনক অবস্থায় চলে যাচ্ছেনা? এই সব প্রশ্নের কোনো উত্তর অবশ্য পাওয়া যায়নি  ।

No comments:

Post a Comment

loading...