Saturday, 8 December 2018

বীরভূমের কয়লা খনি পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা খনিতে পরিণত হচ্ছে ১২০০০ কোটি টাকার বিনিয়োগে

ওয়েব ডেস্ক ৮ই ডিসেম্বর ২০১৮ : নিন্দুকেরা কতই না সমালোচনা করেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ।তাদের একটাই প্রশ্ন ছিল  রাজ্যে বিনিয়োগ কোথায় ? সেই নিন্দুকদের বাড়া ভাতে ছাই দিয়ে রাজ্যে ১২০০০ কোটি টাকার ওপর বিনিয়োগ হতে চলেছে কয়লা খনিতে । তৃণমূলের সমালোচনা যারা করেছেন তাদের  উদেশ্যে বিদ্যজনেদের একাংশের প্রশ্ন , তারা কি কখনো এই প্রশ্নটি করেছিলেন বাংলার বিগত সরকারকে ,যে গঙ্গার ধারে সারি সারি কলকারখানা গুলো বন্ধ করলেন কেন ? স্বাভাবিক ভাবেই এই নিদুকের হারিয়ে যান বেকায়দায় পড়লে , আর এ ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে ।প্রসঙ্গত ,
প্রায় তিন বছর অপেক্ষার পর রাজ্যে কয়লা খনিতে বিনিয়োগ হতে চলেছে ।


রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় শুক্রবার নিজের ফেসবুক বার্তায় জানিয়েছেন, বীরভুমের দেওচা পচামি হরিণশিঙ্গা দেওয়ানগঞ্জে কয়লা উত্তলন হবে । এই খনি থেকে প্রায় ২১০২ মিলিয়ান টন কয়লা তোলা হবে, যা সারা বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা খনি হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে ।নতুন এই খনির জন্য কর্মসংস্থান হবে ওই জেলার লক্ষাধিক মানুষের । পরোক্ষভাবে উপকৃত হবেন পার্শ্ববর্তী জেলার মানুষজনেরাও । প্রাথমিকভাবে এই প্রকল্প প্রায় বারো হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ হতে চলেছে । এই প্রকল্প শুরু হওয়ার কারণে বীরভূম জেলার সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নতি হবে । ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক পরিকাঠামো তৈরির কাজ শুরু হয়েছে ।বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত ক্ষমতায় আসবার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন অক্ষরে অক্ষরে সেগুলো পালন করে যাচ্ছেন , তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেস্টুনে , "সততার প্রতীক" লেখাটা অমুলূক নয় ।

No comments:

Post a Comment

loading...