Monday, 24 December 2018

হোয়াটসাপের মাধ্যমে কে কি ব্যক্তিগত কথা বলছে , এবার সে বিষয়ে নজর দিতে চায় কেন্দ্র, নেটিজেনরা নেটিজেনরা বিরোক্তিতো

ওয়েব ডেস্ক ২৪ শে ডিসেম্বর ২০১৮: এবার মানুষের ব্যক্তিগত জীবন বলে কি কিছুই থাকবেনা বিজেপির জমানায় ? এখন এই কথাটাই মানুষের মুখে মুখে । দেশের মানুষ টিভিতে কি প্রোগ্র্যাম দেখছে কতক্ষন দেখছে সে নিয়ে একটা সফটওয়্যার বসানোর কথা বলে বিজেপি সরকার বিশাল প্রতিবাদের মুখে পড়েছিল ।এবার দু’‌দিন আগেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে বিতর্কিত নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছিল দেশের ১০টি কেন্দ্রীয় সংস্থা নজরদারি চালাবে ব্যক্তিগত কম্পিউটার থেকে ফোনে।

অর্থাৎ সেখানে আড়িপাতার বিষয়টি উঠে আসায় শোরগোল পড়ে যায় দেশজুড়ে। এবার এনডিএ সরকার নতুন ইনফরমেশন টেকনোলজি আইন এনে হোয়াটসঅ্যাপে নজরদারি চালাবে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। আইটি আইনের ৭৯ ধারাকে সংশোধন করে তা লাগু করা হবে বলে খবর। যাতে বেআইনি তথ্য সম্বলিত প্রচার আটকানো যায়। সরকারের একটি সূত্রে খবর, আইফোন সহ–অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলিতে চলবে নজরদারি। সেখানের মেসেজ, চ্যাট, ইমেজ, ভিডিওতে নজরদারি চালানো হবে। সেক্ষেত্রেও ব্যক্তিগত গোপনীয়তায় হাত পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। এই নিয়ে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়েছে। এখনই একসঙ্গে ৫টির বেশি ইমেজ বা ভিডিও পাঠানো যায় না। এরকমই প্রযুক্তি নিয়ে আসা হচ্ছে যাতে হোয়াটসঅ্যাপে গুজব, বিকৃত মেসেজ, অশ্লীল মেসেজ সহ–অন্যান্য বিতর্কিত ভিডিও স্বয়ংক্রিয়ভাবে মুছে ফেলা যায়। তার জন্য বিভিন্ন সংস্থাকে জানানো হয়েছে বলে খবর। তাছাড়া এই কাজে নোডাল অফিসার নিয়োগ করা হচ্ছে। যাতে সবসময় বিষয়গুলির ওপর নজর রাখা যায়। ইতিমধ্যেই এই মর্মে একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। যা পাঠানো হবে গুগল, ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপকে। ‌‌এভাবে কি আর ভোটে যেটা যায়?এখন এই কথাটাই সোশ্যাল  মিডিয়ায় বেশি করে ট্রোলড হচ্ছে ।

No comments:

Post a Comment

loading...