Friday, 7 December 2018

ডিভাইড এন্ড রুলের খেলায় মেতেছে বিজেপি , অভিযোগ ছেড়ে দেওয়া সংসদ সাবিত্রী বাই ফুলে

ওয়েব ডেস্ক ৭ই ডিসেম্বর ২০১৮  :বছর ঘুরলেই লোকসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই একাধিক বিক্ষুব্ধ নেতা বিজেপি ছেড়েছেন। আবার আগামী লোকসভা নির্বাচনে সুষমা স্বরাজ, উমা ভারতীর মতো হেভিওয়েট নেত্রীরা নির্বাচনে লড়বেন না। সমস্ত দিক মিলিয়ে গেরুয়াশিবিরে চিন্তার ভাঁজ। এবার বিজেপি ছাড়লেন বহু বিতর্কিত সাংসদ উত্তরপ্রদেশের বাহারাইচ থেকে নির্বাচিত সাবিত্রী বাই ফুলে। দলের বেশ কিছু সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট হয়েছেন তিনি। তাই পদত্যাগের মাধ্যমে তিনি নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন।


বিজেপি শাসিত কেন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে সাবিত্রী বাই ফুলে জানিয়েছেন, "ভারতের উন্নতির বদলে বড় বড় মূর্তি তৈরী করতে ভারত সরকার টাকা ব্যয় করছে।"বিজেপির নানা কাজেও অসন্তুষ্ট তিনি। তাঁর মতে, সমাজে 'বিভাজন প্রথা' চালু করতে চাইছে বিজেপি। তিনি বলেছেন, "আমি একজন সমাজকর্মী। দলিতের জন্য কাজ করি। কিন্তু বিজেপি দলিতদের সংরক্ষণের জন্য কোনো উদ্যোগই গ্রহণ করেনি।"উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা যোগী আদিত্যনাথের ভগবান হনুমানকে 'দলিত' মন্তব্যের প্রসঙ্গে সাবিত্রী বাই ফুলে বলেছেন, "ভগবান হনুমান দলিত ছিলেন এবং 'মনুবাদী' মানুষের দাস ছিলেন। তিনি ভগবান রামের জন্য সব করেছেন। তাহলে ওনার লেজ কেন থাকলো এবং ওনার মুখ কেন কালো? কেন বাঁদর হতে হলো ওনাকে?"র আগেও দলের গাইড লাইনের বাইরে গিয়ে একাধিক বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সাবিত্রী বাই ফুলে। বিজেপি নেতাদের দলিত বাড়ীতে খাওয়া প্রসঙ্গে সাবিত্রী বলেছিলেন, কেবলমাত্র ছবি তোলার জন্য বিজেপি নেতারা দলিত বাড়ীতে খান। এরও আগে এই বছরের মে মাসে পাকিস্তানের জনক মহম্মদ আলি জিন্নাহকে 'মহাপুরুষ' বলে উল্লেখ করে বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়েছিল। বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য যোগী আবোল তাবোল নি না বলে বেড়াচ্ছেন , যেমন হনুমান দলিত ছিলেন ,ইত্যাদি । ওনার মতো এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের এটা সভা পায়না । 

No comments:

Post a Comment

loading...