Monday, 31 December 2018

আর্থিক টানা টানি থাকা সত্ত্বেও কৃষকদের জন্য জোড়া উপহার মমতার

ওয়েব ডেস্ক ৩০শে ডিসেম্বর ২০১৮:যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কি ভাবে চলতে হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে শেখা উচিত । অস্ট্রেলিয়া যদি আতশবাজি রোশনাই দিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পারে, বুবাই যদি করতে পারে তাহলে আমাদের বাংলাই বা পিছিয়ে থাকবে কেন ?এবছরই প্রথম রাত ১২টায় বর্ষবরণের সাইরেন বাজাবে রাজ্য সরকার। সরকারি স্তরে এবারই এই প্রথম বর্ষবরণের কোনও উদ্যোগ নেওয়া হল। নবান্ন থেকে সাংবাদিক বৈঠক করে একথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। অন্যদিকে বছর শেষে কৃষকদের জন্য কল্পতরু হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নতুন বছরের কৃষকদের জন্য দুটি নতুন প্রকল্প ঘোষণা করলেন মমতা।

নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মতো কৃষকদরদি সরকার দেশের আর কোথাও নেই। চরম আর্থিক আসুবিধা সত্ত্বেও কৃষকদের জন্য দুটি নতুন প্রকল্প ঘোষণা করা হয়েছে। যার নাম তিনি দিয়েছেন কৃষকবন্ধু। অ্যাসিওরেন্স মডেল এই নতুন প্রকল্পে ১৮ থেকে ৬০ বছর পর্যন্ত কৃষকের মৃত্যু হলে কারণ যাই হোক সেই পরিবার ২ লাখ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য পাবে। এই প্রকল্পের আওতায় ক্ষেতমজুররাও পড়ছেন। অর্থাৎ তাঁরাও এই আর্থিক সাহায্য পাবেন। দ্বিতীয় প্রকল্পে যেকোনও একটি চাষের জন্য (‌‌এক একর বা তার কম জমিতে)‌ বছরে দুই খেপে পাঁচ হাজার টাকা পাবেন রাজ্যের কৃষকরা। আগামিকাল অর্থাৎ এক জানুয়ারি থেকেই এই দুটি নতুন প্রকল্প শুরু হয়ে যাচ্ছে। তবে এক ফেব্রুয়ারি থেকে ফর্ম হাতে পাবেন কৃষকরা। রাজ্যে ৭২ লক্ষ কৃষক এবং ক্ষেতমজুর রয়েছেন। তাঁদের সকলকে এই পরিষেবার আওতায় আনতে কয়েকশো কোটি টাকা খরচ হবে রাজ্য সরকারের। অনেক ক্ষতি স্বীকার করেও কৃষকদের স্বার্থে এই অর্থ ব্যয় করতে প্রস্তুত রাজ্য সরকার। ইচ্ছে থাকলে মানুষের ভালো যে করা যেতে পারে সেটা আবার প্রমান করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

No comments:

Post a Comment

loading...