Wednesday, 26 December 2018

প্রকাশ্যে বিজেপির সমালোচনা করায় বেধড়ক মার্ খেতে হলো বিশেষ ভাবে সক্ষম এক ব্যক্তিকে , বিজেপি নেতার হাতে

ওয়েব ডেস্ক ২৬ শে ডিসেম্বর ২০১৮: বিজেপি নেতারা কি নিজেদের সর্বোচ্চ আদালতের উর্দ্ধে মনে করছেন ? সেটা যদি মনে করে থাকেন তাহলে আগামী দিনে ব্যাপারটা মোটেই ভালোর দিকে যাবেনা  । স্বাধীন ভারতে সবারই নিজেদের বক্তব্য পেশ করার অধিকার আছে কিন্তু তার জন্য কাউকে যদি মার্ খেতে হয় তাও আবার কোনো  বিজেপি নেতার হাতে  তাহলে অসহিষ্ণুতার প্রসঙ্গ বার বার উঠবে ।

প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশের সম্বল জেলার স্থানীয় বিজেপি নেতা সে রাজ্যে ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার কথা বলতেই এক বিশেষভাবে সক্ষম যুবককে লাঠিপেটা করলেন। ওই নেতার কীর্তি ধরা পড়ল ভিডিওতেই। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই সৃষ্টি হল বিতর্কের। যদিও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই ঘটনায় মুখ খোলেননি।ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, স্থানীয় উঠতি নেতা মহম্মদ মিয়া এসডিএম অফিসের সামনে এক বিশেষভাবে সক্ষম যুবককে লাঠি দিয়ে মারছেন। ওই যুবকের অপরাধ তিনি প্রকাশ্যে উত্তরপ্রদেশের শাসকদল বিজেপি’‌র বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন। পাশাপাশি তিনি আগামী ভোটে বিজেপি বিরোধী অখিলেশ যাদবের দলকে ভোট দেবেন বলে দাবি করেছিলেন। এই দাবি যে কেউ করতে পারেন। কারণ স্বাধীন গণতান্ত্রিক দেশে মতপ্রকাশের অধিকার সকলের রয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। সেখানে এইভাবে একজনকে মারধর করার ঘটনা মতপ্রকাশের স্বাধীনতার কন্ঠরোধের সামিল বলেই রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের ধারণা। সূত্রের খবর  মহম্মদ মিয়াকে উত্তেজিত করার জন্যই অখিলেশ যাদবের নাম বার বার তারস্বরে উচ্চারণ করছিলেন ওই বিশেষ ভাবে সক্ষম ব্যক্তিটি , তাও যদি হয় , তাহলে নিজের মেজাজ হারিয়ে ফেলাটা একেবারেই উচিত হয়নি বিজেপি নেতা মহম্মদ মিয়ার ।

No comments:

Post a Comment

loading...